‘কোয়ারেন্টাইন নিয়ে তামাশা নয়’ জানালেন করোনাজয়ী এক নারী

ঢাকা, সোমবার   ৩০ মার্চ ২০২০,   চৈত্র ১৬ ১৪২৬,   ০৫ শা'বান ১৪৪১

Akash

‘কোয়ারেন্টাইন নিয়ে তামাশা নয়’ জানালেন করোনাজয়ী এক নারী

জান্নাতুল মাওয়া সুইটি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৩:৫৩ ১৯ মার্চ ২০২০   আপডেট: ১৩:২৬ ২৪ মার্চ ২০২০

ছবি: অ্যামি ড্রিসকল

ছবি: অ্যামি ড্রিসকল

কোভিড-১৯, বর্তমানে বিশ্বে এক আতঙ্কের নাম। ক্রমশ এক দেশ থেকে আরেক দেশে ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস। আক্রান্তের পাশাপাশি মৃতের সংখ্যাও বাড়ছে। 

বিশেষ করে করোনা আতঙ্কের কারণে অনেকেই ঋতু পরিবর্তনের কারণে হওয়া ঠাণ্ডা-জ্বরেও ভয় পেয়ে যাচ্ছেন। তবে সবচেয়ে ভয়ের বিষয় হলো করোনা শরীরের প্রবেশের পরই লক্ষণ প্রকাশ করে না। অন্তত সপ্তাহখানেক পর এর লক্ষণ প্রকাশ্যে আসে। তাই জ্বর না থাকলেও ঠাণ্ডা-কাশি হেলাফেলায় না নেয়াই ভালো! 

করোনাজয়ী এক নারী তার নিজ ফেসবুকে জানিয়েছেন সেই কঠিন সময়ের কথা। আমেরিকার অঙ্গরাজ্য ওহিওতে বসবাসকারী ৪৮ বছরের এক নারী অ্যামি ড্রিসকল। তিনি জানিয়েছেন, কোভিড-১৯ সংক্রমণ থেকে তিনি কীভাবে বেঁচে ফিরেছেন। তার ফেসবুক পোস্টটি বর্তমানে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল।

‘১১ মার্চ, বুধবার। সকাল থেকেই আমি অসুস্থবোধ করি। তখন আমি বাড়িতেই ছিলাম। ভাবলাম, জ্বর এসেছে বোধ হয়! মেপে দেখি ৯৯ দশমিক ২ মাত্রার জ্বর। তেমন বেশি নয়, তবে আমি অস্বস্তি বোধ করতে থাকি। সঙ্গে মাথা ব্যথা ও কাশি রয়েছে। সারাদিন ঘরেই ছিলাম। শুয়েই দিন কেটেছে। অতঃপর বিকেলের দিকে আমি ঘুমিয়ে পড়ি। হঠাৎ রাত তিনটার দিকে আমার ঘুম ভেঙে যায়। এরপরই অনুভব করি আমার বুকে ব্যথা করছে। পাশাপাশি নিঃশ্বাস নিতেও কষ্টবোধ করছিলাম। সঙ্গে ক্রমাগত কাশি উঠছিল।’ এভাবেই অ্যামি তার ফেসবুক পোস্টে করোনার লক্ষণগুলো সম্পর্কে জানিয়েছেন।

অতঃপর অ্যামি ডাক্তারের শরণাপন্ন হয়ে কোভিড-১৯ টেস্ট করান। শুক্রবার রাতে অ্যামি জানতে পারেন তার শরীর করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। এর চিকিৎসা হিসেবে তার মাথাব্যথা কমাতে ডাক্তার অ্যান্টিবায়োটিক খাওয়ান। এরপর ডাক্তারের পরামর্শেই অ্যামি শনিবার হোম কোয়ারেন্টাইনে যান। বাইরে পর্যন্ত বের হননি তিনি। 

তার মতে, কোয়ারেন্টাইনে থেকেই সুস্থ হয়েছেন তিনি। তাই এটি নিয়ে হেলাফেলা নয়। করোনাকে জয় করেছেন এই মধ্যবয়স্কা নারী। তিনি কীভাবে এই ব্যাধি থেকে রক্ষা পেয়েছেন এই বিষয়ে আলোকপাত করে বলেন, ‘কোয়ারেন্টাইন কোনো তামাশার বিষয় নয়। নিজেকে ও অন্যকে বাঁচাতে বর্তমান পরিস্থিতিতে কোয়ারেন্টাইন মেনে চলুন। সুস্থতা নিশ্চিত!’

সূত্র: টাইমস অব ইন্ডিয়া

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএমএস/এমআরকে/এএ