Alexa কোম্পানীগঞ্জে ছাত্রের হাত ভেঙে দিলেন শিক্ষক!

ঢাকা, শুক্রবার   ১৫ নভেম্বর ২০১৯,   কার্তিক ৩০ ১৪২৬,   ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

Akash

কোম্পানীগঞ্জে ছাত্রের হাত ভেঙে দিলেন শিক্ষক!

কোম্পনীগঞ্জ (নোয়াখালী) প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৬:৪৬ ৭ নভেম্বর ২০১৯  

অভিযুক্ত শিক্ষক (বামে). ভুক্তভোগী ছাত্র (ডানে)

অভিযুক্ত শিক্ষক (বামে). ভুক্তভোগী ছাত্র (ডানে)

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে জাহিদুল ইসলাম নামের এক ছাত্রকে পিটিয়ে হাত ভাঙার অভিযোগ উঠেছে। 

বুধবার (৩০ অক্টোবর) দুপুরে উপজেলার মুছাপুর ইউপির ইদ্রিছিয়া আলিম মাদরাসায় এ ঘটনা ঘটে। তবে সম্প্রতি ঘটনাটি আলোচনায় এসেছে। 

ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী জাহিদুল ওই ইউপির আবদুল হক সারেং বাড়ির কবির আহম্মদের ছেলে। সে ওই মাদরাসার পঞ্চম শ্রেণির ছাত্র।

কবির আহম্মদ জানান, বুধবার দুপুর ১২টায় তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে শিক্ষক আবদুল মান্নান শ্রেণিকক্ষে তার ছেলেকে পিটিয়ে হাত ভেঙে দেন। ঘটনার একদিন পর তিনি হাত ভাঙার বিষয়টি টের পান। তিনি দরিদ্র বলে ঘটনাটি ধামাচাপা দিতে এরইমধ্যে শিক্ষকসহ একটি প্রভাবশালী মহল উঠে পড়ে লেগেছে। 

তিনি আরো জানান, একাধিক শিক্ষকের অনুরোধে গোপনে ছেলেকে চিকিৎসা করাচ্ছেন। কিন্তু ঘটনার আটদিন পার হলেও অভিযুক্ত শিক্ষক নির্যাতনকারী শিক্ষক তার ছাত্রকে একবারের জন্য দেখতে আসেননি। তবে তিনি চিকিৎসার জন্য তিন হাজার টাকা দিয়ে দায় মুক্ত হতে চেয়েছেন। 

অভিযুক্ত শিক্ষক আব্দুল মান্নানের মোবাইলে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলেও তিনি কল রিসিভ করেননি।

এ ব্যাপারে ইদ্রিছিয়া আলিম মাদরাসার সুপারেনটেন্ড ফরহাদুল হাসান বলেন, আটদিন সাংবাদিকের মাধ্যমে ছাত্রের হাত ভাঙার খবর জানতে পেরেছি। এরইমধ্যে খবরটির সত্যতা পেয়েছি। অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে। এর আগে ডাস্টার দিয়ে ছাত্রকে মারার অভিযোগে আরেক শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছিল। 

কোম্পানিগঞ্জের ইউএনও ফয়সল আহমেদ বলেন, বিষয়টি খতিয়ে দেখে অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকেএ