কোমায় থেকেই অলৌকিকভাবে সন্তান জন্ম তরুনীর

ঢাকা, রোববার   ১৬ জুন ২০১৯,   আষাঢ় ২ ১৪২৬,   ১১ শাওয়াল ১৪৪০

কোমায় থেকেই অলৌকিকভাবে সন্তান জন্ম তরুনীর

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৩:৩৯ ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

প্রচন্ড মাথা ব্যাথা নিয়ে ঘুমোতে গিয়েছিলেন এক তরুণী। সেই ঘুম থেকেই চলে গেলেন কোমায়। চারদিন পর কোমা থেকে জ্ঞান ফিরলো তার। কিন্তু কি আশ্চর্য! জেগে দেখেন সদ্যজাত এক কন্যা শিশুর মা হয়ে গেছেন তিনি। 

সম্প্রতি যুক্তরাজ্যের ওল্ডহ্যামে ঘটেছে আশ্চর্যজনক এ ঘটনা। খবর - বিবিসি’র

যুক্তরাজ্যের বাসিন্দা ১৮ বছরের তরুনী ইবোনি স্টিভেন্সনে’র ঘুমোতে যাওয়ার আগে কোনো ধারণাই ছিল না যে তিনি গর্ভবতী ছিলেন। হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে কোমায় চলে যাওয়ায় তার পরিবার তাকে হাসপাতালে ভর্তি করায়। হাসপাতালের চিকিৎসকেরা তার শারীরিক অবস্থা পরীক্ষা করতে গিয়ে দেখেন যে তিনি গর্ভবতী। 

তার গর্ভস্থ শিশুটি তার শরীরের দু’টি জরায়ুর একটিতে অবস্থান করছিলো। চিকিৎসা বিজ্ঞানের ইতিহাসে এটি খুবই বিরল একটি ব্যাপার, যেটাকে বলা হয় ‘ইউটেরাস ডিডেলফিস’। 

ইবোনির দু’টি জরায়ুর একটি যখন শিশু ধারণ করেছিলো, একই সময়ে অপর জরায়ুটিতে তার মাসিক চলছিলো। তার শিশু ধারণ করা জরায়ুটি পেছন দিকে থাকায় তার সন্তান গর্ভধারণের ব্যাপারটি দৃশ্যমান হয়নি। 

ক্রীড়া চিকিৎসা বিষয়ের ছাত্রী ইবোনি গেল বছরের ৬ ডিসেম্বর কোমা থেকে জেগে দেখেন ফুটফটে এক কণ্যা সন্তানের জন্ম দিয়েছেন তিনি। তিন ঘণ্টার এক জটিল অস্ত্রপচারের মাধ্যমে তার সন্তান ভুমিষ্ঠ হয়। সন্তান জন্মদানের এ সময়টিতে একবারের জন্যও তার মাসিক বন্ধ হয়নি।

প্রথমবারের মত মা হওয়া ইবোনি তার অলৌকিক ভাবে ভুমিষ্ঠ হওয়া এ কণ্যা শিশুর নাম রেখেছেন এলোডি। চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন সাত পাউন্ড ওজন নিয়ে জন্মানো এ অলৌকিক শিশু ও তার মা উভয়েই ভালো আছেন। 

ডেইলি বাংলাদেশ/মাহাদী/টিআরএইচ