কোভিড পরবর্তী বিনিয়োগ আকর্ষণে কার্যকর উদ্যোগ প্রয়োজন
SELECT bn_content.*, bn_bas_category.*, DATE_FORMAT(bn_content.DateTimeInserted, '%H:%i %e %M %Y') AS fDateTimeInserted, DATE_FORMAT(bn_content.DateTimeUpdated, '%H:%i %e %M %Y') AS fDateTimeUpdated, bn_totalhit.TotalHit FROM bn_content INNER JOIN bn_bas_category ON bn_bas_category.CategoryID=bn_content.CategoryID INNER JOIN bn_totalhit ON bn_totalhit.ContentID=bn_content.ContentID WHERE bn_content.Deletable=1 AND bn_content.ShowContent=1 AND bn_content.ContentID=193647 LIMIT 1

ঢাকা, সোমবার   ১০ আগস্ট ২০২০,   শ্রাবণ ২৬ ১৪২৭,   ১৯ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

Beximco LPG Gas

কোভিড পরবর্তী বিনিয়োগ আকর্ষণে কার্যকর উদ্যোগ প্রয়োজন

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৯:৫৯ ১২ জুলাই ২০২০   আপডেট: ২০:০৪ ১২ জুলাই ২০২০

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

বিনিয়োগ স্থবিরতা দূর করতে কোভিড-১৯ এর নানামুখী প্রভাব পর্যালোচনার স্বার্থে বাংলাদেশের প্রয়োজন দ্রুত নতুন নীতিমালা প্রণয়নসহ প্রয়োজনীয় বাণিজ্য নীতিমালা সংস্কার করা। কোভিড পরবর্তী নতুন নতুন সম্ভাবনা খুঁজে বের করা, দেশের স্বাভাবিক উন্নয়ন কৌশলের সঙ্গে তাল মিলিয়ে নীতি সংস্কার কার্যক্রম, ইউরোপ ও দক্ষিণ এশিয়া থেকে নতুন নতুন বিনিয়োগ আকর্ষণে কার্যকর উদ্যোগ নিতে হবে।

রোববার রিসারজেন্ট বাংলাদেশ আয়োজিত  ‘অনিশ্চিত সময়ে বেসরকারি বিনিয়োগ : বাংলাদেশে কোভিডের প্রভাব এবং নীতিমালার প্রয়োগ’ সংলাপ অনুষ্ঠানে এসব মতামত তুলে ধরেন বক্তারা। 

এছাড়া সর্বোচ্চ নীতি নির্ধারকদের পরিকল্পনার সঙ্গে বাস্তবায়নের সংগতি রাখা, কর ও বৈদেশিক মুদ্রা আহরণের ক্ষেত্রে প্রতিবন্ধকতাসমূহ বের করাসহ কোভিড পরবর্তী সময়ে দেশে বিনিয়োগ পরিবেশ উন্নয়ন ও অর্থনীতি পুণরুদ্ধারে যথাযথ কর্মপরিকল্পনা গ্রহণ করার বিষয়ে মতামত দেন বক্তারা।

জুম এর মাধ্যমে আয়োজিত আলোচনাটি সঞ্চালনা করেন এমসিসিআই সভাপতি ব্যরিস্টার নিহাদ কবির। এমসিসিআই, ডিসিসিআই, চট্রগ্রাম স্টক এক্সচেঙ্গ লি:, বিল্ড এবং পলিসি এক্সচেঞ্জ এর যৌথ উদ্যোগে প্রতিষ্ঠিত একটি উদ্যোগ রিসারজেন্ট বাংলাদেশ।

অনুষ্ঠানে পলিসি এক্সচেঞ্জের চেয়ারম্যান ড. মাসরুর রিয়াজ মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন। তিনি কোভিড পরবর্তী অর্থনৈতিক চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় বিশ্বে শিল্প উৎপাদন খাতে যে পরিবর্তন এসেছে, বিনিয়োগকারীদের অগ্রাধিকার যাচাই এবং তাদের দৃষ্টিতে ভবিষ্যৎ বিনিয়োগ পরিস্থিতি, সুযোগ, সংশ্লিষ্ট নীতি কাঠামো ইত্যাদি বিষয়গুলো প্রাধান্য দেয়ার বিষয়ে জোরারোপ করেন। এ অবস্থা থেকে অর্থনৈতিক উত্তোরণের জন্য বেসরকারি ও বিদেশি বিনিয়োগ আকর্ষণের কোনো বিকল্প নেই বলেও তিনি জানান। 

ইউনিলিভার বাংলাদেশ এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও কাদের লেলে দক্ষিণ এশিয়ায় আঞ্চলিক বাণিজ্যের সুযোগ-সুবিধা গ্রহণের ওপর ও বিনিয়োগ সম্ভাবনা খুঁজে বের করার বিষয়ে জোর প্রদান করেন। গ্রামীণফোনের সিইও ইয়াসের আজমান বলেন, সামগ্রিক নীতি কাঠামোর সংস্কার ও দীর্ঘমেয়াদি কর কাঠামো ব্যবসার পরিবেশ উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। 

জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন ভূইয়া নীতি নির্ধারকদের সঙ্গে ব্যবসায়ী মহলের নিয়মিত আলোচনার ওপর গুরুত্বারোপ করেন। এনবিআর এর অপর সাবেক চেয়ারম্যান ড. নাসিরউদ্দিন আহমেদ দীর্ঘমেয়াদি উন্নয়ন কৌশল যথা ৮ম পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনা বাস্তবায়নে এনবিআর ও কর কাঠামের আধুনিকায়নের পরামর্শ প্রদান করেন। 

ঢাকা চেম্বারের সভাপতি শামস মাহমুদ বলেন, বেসরকারি বিনিয়োগ আকর্ষণের সঙ্গে যেসব সরকারি সংস্থাসমূহ জড়িত তারা যেন আগ্রহী বিনিয়োগকারীদের সার্বিক সহায়তা প্রদান করে ও কোনোরকম হয়রানি না করে সে বিষয়ে নজরদারি জোরদার করতে হবে। শুধু বিদেশি বিনিয়োগই নয়, স্থানীয় বিনিয়োগ আকর্ষণেও সম্ভব সব কিছু করতে তিনি সরকারের সহায়তা কামনা করেন। 

এমপি ও পররাষ্ট্র বিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য নাহিম রাজ্জাক বলেন, বাণিজ্য ও বিনিয়োগকে উৎসাহ প্রদানের লক্ষ্যে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে একটি সুনির্দিষ্ট ইউনিট স্থাপন করা হয়েছে। 

বেপজা এর নির্বাহী চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল সালাউদ্দিন ইসলাম বলেন, প্রণোদনা এবং প্রতিযোগী শ্রমবাজার বাংলাদেশে বেসরকারি বিনিয়োগ আকর্ষণে সাহায্য করবে।

বিডা এর নির্বাহী চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম বলেন, সরকার খেলাপী ঋণ হ্রাস ও কাস্টমস আইন যুগোপযোগীকরণের ক্ষেত্রে যথাযথ নীতি সংস্কারের উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। তিনি আরো বলেন, প্রযুক্তিতে উৎকর্ষ সাধনের মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট দফতরসমূহের যথাযথ সমন্বয়ের মাধ্যমে বিনিয়োগকারীদের ওয়ান স্পট সার্ভিসের সুবিধা আরো সুন্দরভাবে প্রদান করা যাবে।

সংলাপে চীন ও ভারতের বিশাল বাজারের সুবিধা গ্রহণের পরামর্শ প্রদান করেন বিল্ড এর চেয়ারম্যান আবুল কাসেম খান। অন্যান্যের মাঝে স্প্যানিশ চেম্বারের সভাপতি নুরিয়া লোপেজ, ফরেন চেম্বারের নির্বাহী পরিচালক নূরুল কবির, ইকোনমিক রিপোটার্স ফোরামের সেক্রেটারি জেনারেল রাশিদুল ইসলাম বক্তব্য দেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/এসএস/জেডআর