Exim Bank Ltd.
ঢাকা, শনিবার ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ৭ আশ্বিন ১৪২৫

কোটি টাকার প্রকল্প তিন মাসেই বন্ধ

মাগুরা প্রতিনিধিডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম
কোটি টাকার প্রকল্প তিন মাসেই বন্ধ
ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদফতর ও বিশ্বব্যাংকের অর্থায়নে, বাংলাদেশ রুরাল ওয়াটার সাপ্লাই আ্যন্ড স্যানিটেশন প্রকল্প চালু হওয়ার তিনমাস পর আবার বন্ধ হয়ে গেছে।

ফলে সংযোগ পেয়েও এ প্রকল্প থেকে নিরাপদ পানির সুবিধা থেকে বঞ্চিত হয়েছেন মহম্মদপুর উপজেলার শতাধিক পরিবার। স্থানীয় প্রকৌশল অধিদপ্তরের অনিয়ম ও দুর্নীতির কারনে জনকল্যাণকর এই প্রকল্পটি মুখ থুবড়ে পড়ে আছে বলে অভিযোগ করেছেন অধিকাংশ গ্রাহক।

আর্সেনিকমুক্ত বিশুদ্ধ পানি সরবরাহ করার লক্ষ্যে মহম্মদপুর উপজেলা সদর ও বিনোদপুর ইউনিয়নে এক কোটি ত্রিশ লাখ টাকা ব্যয়ে নির্মিত পানি সরবরাহ প্রকল্পটি কোন কাজে আসছে না এলাকাবাসীর। চার বছর আগে নির্মাণকাজ শেষ হলেও এখনো নিয়মিতভাবে পানি সরবরাহ কার্যক্রম শুরু করতে পারেনি কর্তৃপক্ষ। অন্যদিকে পাম্প ব্যবহৃত না হওয়ায় ঘন জঙ্গলে আচ্ছাদিত হয়ে ক্রমাগত নষ্ট হচ্ছে পাম্প স্টেশন এবং এর মূল্যবান সব যন্ত্রপাতি।

২০১৪ সালের জুন মাসে বাংলাদেশে রুরাল ওয়াটার সাপ্লাই আ্যন্ড স্যানিটেশন প্রকল্পের আওতায় গ্রামে গ্রামে আর্সেনিকমুক্ত বিশুদ্ধ পানি সরবরাহের উদ্যোগ নেয়। মহম্মদপুর ও বিনোদপুর ইউনিয়নের ৮টি গ্রামের ১৮০ জন গ্রাহকের জন্য এক কোটি ৩০ লাখ টাকা ব্যয়ে প্রকল্পের কাজটি শেষ হয় ওই বছরের জুন মাসে। প্রকল্পে মাটির নিচ দিয়ে আট কিলোমিটার পানি সরবরাহ পাইপ, ১০হাজার লিটার ধারণ ক্ষমতাসম্পন্ন দু’টি রিজার্ভ ট্যাংক ও দু’টি পাম্প স্টেশন স্থাপন করা হয়।

উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অফিস সূত্রে জানা গেছে, ২০০৫ সালে মহম্মদপুর উপজেলার ৬০ ভাগ নলকূপের পানিতে মাত্রাতিরিক্ত আর্সেনিক পাওয়া যায়। জরিপকারী সংস্থা আর্সেনিকযুক্ত নরকুপ লালরং করে চিহিৃত করে। এসব নলকূপের পানি পান বিপজ্জনক হলেও বিকল্প কোনো উৎস না থাকায় নিরুপায় হয়ে মানুষ এই পানি পান করতে থাকেন। এর ফলে ক্রমাগত আর্সেনিকে আক্রান্ত হতে থাকে এলাকার মানুষ। অন্যদিকে- পানি সরবরাহ কাজ চলাকালে ঠিকাদার মিরুল ইসলামের বিরুদ্ধে নিম্নমানের সামগ্রী ব্যাবহারের অভিযোগ ওঠে। তারপরও দলীয় প্রভাব খাটিয়ে ২০১৫ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে ঠিকাদার কাজ শেষ করে বিল তুলে নিয়ে যান।

তথ্যানুসন্ধানে জানা যায়, কাজ শেষ হওয়ায় চারবছর পর স্থানীয়দের চাপের মুখে চলতি বছরের জানুয়ারি মাসে গ্রাহক পর্যায়ে পানি সরবরাহ শুরু করেন জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল বিভাগ। মাত্র তিনমাস চালু থাকার পর বন্ধ হয়ে যায় প্রকল্পের কার্যক্রম। উপজেলা সদরের অভ্যন্তরে অবস্থিত পাম্প স্টেশনটি এখন ঘন জঙ্গলে ঢেকে আছে। ভেঙ্গে গেছে মাটির নিচে পানি সরবরাহ পাইপের নিয়ন্ত্রণ সুইচের ঢাকনা। অনেক জায়গায় পাইপে ফাটল দেখা দিয়েছে। সেইসাথে নষ্ট হচ্ছে রিজার্ভ ট্যাংক ও পাম্প স্টেশনের মূল্যবান যন্ত্রপাতি। ফলে গ্রাহকদের কোন কাজেই আসছে কোটিটাকা ব্যয়ে নির্মীত পানি সাপ্লাই প্রকল্প বরং সংযোগ নেওয়া শতাধিক পরিবার চরম ভোগান্তিতে পড়েছে। বাধ্য হয়েই তারা আর্সেনিকযুক্ত পানি পানসহ গৃহস্থালির কাজে ব্যবহার করে যাচ্ছেন।

জনস্বাস্থ্য অধিদফতর সূত্রে জানা যায়, প্রকল্পে নিয়ম অনুযায়ী পানি সরবরাহ ব্যবস্থা নিয়ন্ত্রণের জন্য একটি গ্রাম কমিটি গঠন করা হয়। এই কমিটির সভাপতি হন স্থানীয় সরকারদলীয় দুই নেতা। পানি সরবরাহ সংযোগ, পাম্প ও রিজার্ভ ট্যাংক রক্ষণা-বেক্ষণ, পাম্প চালকের বেতন ও বিদ্যুৎ বিল কমিটি পরিশোধ করবে। গ্রাহকরা নিজ খরচে সংযোগ নিয়ে প্রতিমাসে কমিটির কাছে হারে বিল পরিশোধ করবে। কিন্তু কমিটির কোনো কার্যক্রম চোঁখে পড়েনি। অন্যদিকে রশিদ না দিয়ে গ্রাহকের কাছ থেকে বিল উত্তোলনের অভিযোগ পাওয়া গেছে জনস্বাস্থ্য অধিদফতরের অফিস সহকারী আতাউর রহমানের বিরুদ্ধে। কানাইনগর গ্রামের প্রভাষক মশিউর রহমান, বাদশা মিয়া, মান্নান মিয়া, সরোয়ার শেখ, নায়েব আলী, হাফিজ শেখ, জাঙ্গালিয়া গ্রামের ইউনুচ মোল্যা, শামসেল শেখ অভিযোগ করেন, তাদের কাছ থেকে তিন মাসের বিলের টাকা অফিস সহকারী আতাউর রশিদ না দিয়ে নিয়ে গেছেন।

অফিস সহকারী আতাউর মিয়া রশীদ না দিয়ে টাকা নেয়ার বিষয়টি তিনি স্বীকার করে বলেন, উত্তোলিত টাকা দিয়ে বিদ্যুত বিল দেয়া হয়েছে।

মহম্মদপুর পানি সরবরাহ প্রকল্পের সভাপতি সদর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কোরবান আলী জানান, গ্রহকরা ঠিকমত বিদ্যুৎ বিল না দেয়ায় আপাতত পানি সাপ্লাই বন্ধ আছে। আবার এটা চালুর ব্যাপারে চেষ্টা চলছে।

উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল আধিদফতরের সহকারী প্রকৌশলী সুনীল কুমার বিশ্বাস জানান, অফিসে জনবল কম থাকায় দেখভালের অভাবে প্রকল্পটি বন্ধ আছে তবে শিগগিরই চালু করা হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরআর

আরোও পড়ুন
সর্বশেষ
বিএনপি মরা গাঙে জোয়ার আনতে চায়: কাদের
বিএনপি মরা গাঙে জোয়ার আনতে চায়: কাদের
গাজীপুরে দুটি ফুটওভার ব্রিজের ভিত্তি প্রস্তর
গাজীপুরে দুটি ফুটওভার ব্রিজের ভিত্তি প্রস্তর
বিশ্বের ১০টি বিপজ্জনক সেতু!
বিশ্বের ১০টি বিপজ্জনক সেতু!
শেখ হাসিনার নিরাপত্তার জন্যই জাতীয় ঐক্য: জাফরুল্লাহ
শেখ হাসিনার নিরাপত্তার জন্যই জাতীয় ঐক্য: জাফরুল্লাহ
ইউপি চেয়ারম্যানের অনুপস্থিতে ভোগান্তি
ইউপি চেয়ারম্যানের অনুপস্থিতে ভোগান্তি
কুড়িগ্রামে গাঁজাসহ নারী মাদক ব্যবসায়ী আটক
কুড়িগ্রামে গাঁজাসহ নারী মাদক ব্যবসায়ী আটক
নাগরিক সমাবেশে বি চৌধুরী, গুঞ্জনের অবসান
নাগরিক সমাবেশে বি চৌধুরী, গুঞ্জনের অবসান
খালেদার মুক্তি চাইলেন মান্না
খালেদার মুক্তি চাইলেন মান্না
চুল হাইলাইট করুন ঘরেই
চুল হাইলাইট করুন ঘরেই
পটুয়াখালীতে ছাত্রলীগের সংঘর্ষে আহত ১০
পটুয়াখালীতে ছাত্রলীগের সংঘর্ষে আহত ১০
সড়ক আইনে যাত্রীদের অধিকার উপেক্ষা করা হয়েছে
সড়ক আইনে যাত্রীদের অধিকার উপেক্ষা করা হয়েছে
গরুর রেজালা
গরুর রেজালা
মিষ্টান্ন তৈরির গুরুত্বপূর্ণ টিপস
মিষ্টান্ন তৈরির গুরুত্বপূর্ণ টিপস
দেশ’র পাণ্ডুলিপি আহ্বান
দেশ’র পাণ্ডুলিপি আহ্বান
প্রেসার কুকারে পুডিং
প্রেসার কুকারে পুডিং
নারায়ণগঞ্জে অস্ত্র-গুলিসহ কিলার জসিম গ্রেফতার
নারায়ণগঞ্জে অস্ত্র-গুলিসহ কিলার জসিম গ্রেফতার
উখিয়ায় ইয়াবার সিন্ডিকেট বাণিজ্য!
উখিয়ায় ইয়াবার সিন্ডিকেট বাণিজ্য!
ফেসবুক পেজ ‘বাঁশের কেল্লা’ ফের বন্ধ
ফেসবুক পেজ ‘বাঁশের কেল্লা’ ফের বন্ধ
আর্জেন্টিনা ম্যাচে শক্তিশালী দল ঘোষণা ব্রাজিলের
আর্জেন্টিনা ম্যাচে শক্তিশালী দল ঘোষণা ব্রাজিলের
নরসিংদীতে নৌকা ডুবে নিহত ৩
নরসিংদীতে নৌকা ডুবে নিহত ৩
জনগণের ভোটাধিকার নিশ্চিতে জাতীয় ঐক্যের আহ্বান কামালের
জনগণের ভোটাধিকার নিশ্চিতে জাতীয় ঐক্যের আহ্বান কামালের
মাশরাফির হিসেবে কামব্যাকের সুযোগ
মাশরাফির হিসেবে কামব্যাকের সুযোগ
চুমু নকল অমিতাভের, লজ্জায় লাল আনুশকা
চুমু নকল অমিতাভের, লজ্জায় লাল আনুশকা
অসুস্থ কিডনি ফেলাতে গিয়ে ভালোটিই হারালেন নির্মাতার মা!
অসুস্থ কিডনি ফেলাতে গিয়ে ভালোটিই হারালেন নির্মাতার মা!
বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপের ট্রফি উম্মোচন
বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপের ট্রফি উম্মোচন
বিদায় আশুরা, তবে শেষ হয়নি মহররমের আমল
বিদায় আশুরা, তবে শেষ হয়নি মহররমের আমল
সালিশ করায় ইউপি সদস্যসহ আটক ২
সালিশ করায় ইউপি সদস্যসহ আটক ২
সিনহার বই মোটিভেটেড
সিনহার বই মোটিভেটেড
সারাদেশে কিশোর-কিশোরী ক্লাব স্থাপন প্রকল্প উদ্বোধন
সারাদেশে কিশোর-কিশোরী ক্লাব স্থাপন প্রকল্প উদ্বোধন
দু’বছরের মধ্যে সড়কে শৃঙ্খলা ফেরানোর আশ্বাস খোকনের
দু’বছরের মধ্যে সড়কে শৃঙ্খলা ফেরানোর আশ্বাস খোকনের
সর্বাধিক পঠিত
শিস দিয়েই দুই বাংলার তারকা জামালপুরের অবন্তী
শিস দিয়েই দুই বাংলার তারকা জামালপুরের অবন্তী
আশুরার রোজা: নিয়ম ও ফজিলত
আশুরার রোজা: নিয়ম ও ফজিলত
তরুণীদের বেডরুমে নেয়ার পর হত্যা করাই কাজ
তরুণীদের বেডরুমে নেয়ার পর হত্যা করাই কাজ
রাতে ফেসবুক বন্ধ চান রওশন
রাতে ফেসবুক বন্ধ চান রওশন
সূরা আল নাস এর গুরুত্ব ও ফজিলত
সূরা আল নাস এর গুরুত্ব ও ফজিলত
অবন্তী সিঁথির জয়জয়কার
অবন্তী সিঁথির জয়জয়কার
যদি তুমি রুখে দাঁড়াও তবেই তুমি বাংলাদেশ!
যদি তুমি রুখে দাঁড়াও তবেই তুমি বাংলাদেশ!
‘বিয়ে’ নিয়ে হৈচৈ, বুবলী প্রসঙ্গে যা বললেন শাকিব
‘বিয়ে’ নিয়ে হৈচৈ, বুবলী প্রসঙ্গে যা বললেন শাকিব
যৌনতায় ঠাসা ৫টি সিনেমা
যৌনতায় ঠাসা ৫টি সিনেমা
উচ্চতা বাড়ায় যেসব খাবার
উচ্চতা বাড়ায় যেসব খাবার
চাকরি না পাওয়ায় সুইসাইড নোট লিখে যুবকের আত্মহত্যা
চাকরি না পাওয়ায় সুইসাইড নোট লিখে যুবকের আত্মহত্যা
মিলনে ‘অপটু’ ট্রাম্প, বোমা ফাটালেন এই পর্নো তারকা!
মিলনে ‘অপটু’ ট্রাম্প, বোমা ফাটালেন এই পর্নো তারকা!
‘শাহরুখ’ আর রেডি গোয়িং টু জাহান্নাম!
‘শাহরুখ’ আর রেডি গোয়িং টু জাহান্নাম!
‘তারেকের তিন গাড়ি, আমার বোন চলে বাসে’
‘তারেকের তিন গাড়ি, আমার বোন চলে বাসে’
নিককে প্রকাশ্যে চুমু খেলেন প্রিয়াঙ্কা
নিককে প্রকাশ্যে চুমু খেলেন প্রিয়াঙ্কা
বিয়ে ছাড়াই মা হলেন জিৎ-এর প্রেমিকা!
বিয়ে ছাড়াই মা হলেন জিৎ-এর প্রেমিকা!
স্টিফেন হকিংয়ের পাঁচ ভয়ংকর ভবিষ্যদ্বাণী
স্টিফেন হকিংয়ের পাঁচ ভয়ংকর ভবিষ্যদ্বাণী
‘পবিত্র আশুরা’
‘পবিত্র আশুরা’
সূরা বাকারার শেষ অংশের ফজিলত
সূরা বাকারার শেষ অংশের ফজিলত
স্টিফেন হকিংয়ের জীবন বদলানো ১০ উক্তি
স্টিফেন হকিংয়ের জীবন বদলানো ১০ উক্তি
সর্বশেষ:
মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন রোববার: কোনো প্রলোভনে ভোট প্রক্রিয়ায় অংশ না নিতে বাংলাদেশিদের প্রতি দূতাবাসের আহ্বান মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন রোববার: কোনো প্রলোভনে ভোট প্রক্রিয়ায় অংশ না নিতে বাংলাদেশিদের প্রতি দূতাবাসের আহ্বান জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার নাগরিক সমাবেশে বিএনপি নেতারা, আছে হেফাজত নেতা বাবু নগরী ও ব্যারিস্টার মঈনুল হোসেন জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার নাগরিক সমাবেশে বিএনপি নেতারা, আছে হেফাজত নেতা বাবু নগরী ও ব্যারিস্টার মঈনুল হোসেন ইরানের আহবাজ শহরে সেনা প্যারেডে বন্দুকধারীর হামলা, আহত ২০ ইরানের আহবাজ শহরে সেনা প্যারেডে বন্দুকধারীর হামলা, আহত ২০ সড়ক পরিবহন আইনে যাত্রীদের অধিকার সম্পূর্ণ উপেক্ষা করা হয়েছে: যাত্রীকল্যাণ সমিতি সড়ক পরিবহন আইনে যাত্রীদের অধিকার সম্পূর্ণ উপেক্ষা করা হয়েছে: যাত্রীকল্যাণ সমিতি ২০১৮ শেষ অথবা ২০১৯’র শুরুতে জাতীয় নির্বাচন: সিইসি ২০১৮ শেষ অথবা ২০১৯’র শুরুতে জাতীয় নির্বাচন: সিইসি যশোরে ও বান্দরবানে বন্দুকযুদ্ধে নিহত ২ যশোরে ও বান্দরবানে বন্দুকযুদ্ধে নিহত ২ ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল মেয়র ওসমান গণি মারা গেছেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল মেয়র ওসমান গণি মারা গেছেন তানজানিয়ায় ফেরি ডুবে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৩৬ তানজানিয়ায় ফেরি ডুবে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৩৬