Alexa কোচিংয়ে যাওয়ার পথে স্কুলছাত্রীর পেটে ছুরি মারল বখাটে

ঢাকা, মঙ্গলবার   ২০ আগস্ট ২০১৯,   ভাদ্র ৫ ১৪২৬,   ১৮ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

Akash

কোচিংয়ে যাওয়ার পথে স্কুলছাত্রীর পেটে ছুরি মারল বখাটে

গৌরীপুর (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৫:৩৮ ২৫ জুলাই ২০১৯   আপডেট: ১৫:৪৩ ২৫ জুলাই ২০১৯

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ময়মনসিংহের গৌরীপুর উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ করায় কোচিংয়ে যাওয়ার পথে স্কুলছাত্রীর পেটে ছুরিকাঘাত করেছে এক বখাটে। এ ঘটনায় গৌরীপুর-শাহগঞ্জ সড়কে অবরোধ করেন শিক্ষক-শিক্ষার্থীসহ স্থানীয়রা।

বৃহস্পতিবার ভোরে উপজেলার অচিন্তপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। অভিযুক্ত জহিরুল ইসলাম একই গ্রামের সামছুল ইসলামের ছেলে। ঘটনার পর থেকে জহিরুল আত্মগোপনে রয়েছে।

আহত স্কুলছাত্রী জানান, স্কুলে আসা যাওয়ার পথে বখাটে জহিরুল বিভিন্ন সময় তাকেসহ সহপাঠীদের উত্ত্যক্ত ও নানা অসামাজিক প্রস্তাব দিতো। এতে প্রতিবাদ করায় জহিরুল ও তার লোক তাদের হুমকী দেয়। বৃহস্পতিবার ভোরে কোচিং করার উদ্দেশ্যে অচিন্তপুর বাজারে যাচ্ছিল স্কুলছাত্রী। এ সময় তার পেছনে আসছিল জহিরুল। এক পর্যায়ে জহিরুল ছাত্রীর পেটের ডান দিকে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়। ঘটনার সময় জহিরুলের সঙ্গে অজ্ঞাত এক যুবক ছিল।

গৌরীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক মৌপ্রিয়া মজুমদার জানান, স্কুলছাত্রী এখন শঙ্কামুক্ত। উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়েছে।

ড. এম .আর করিম উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সাইফুল ইসলাম জানান, মাদকাসক্ত জহিরুল স্কুলের ছাত্রীদের সড়কে প্রতিনিয়ত উত্ত্যক্ত করতো। ছাত্রীদের উত্ত্যক্তের ঘটনায় তার পরিবারের কাছে বিচার দিয়েও প্রতিকার পাননি কেউ। পরে তার বিরুদ্ধে ভুক্তভোগীরা ইউএনও বরাবরে অভিযোগ করেন। এর ভিত্তিতে পুলিশ অনেকবার অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করতে পারেনি। সে এক বছর আত্মগোপনে ছিল। সম্প্রতি বাড়ি এসে পুনরায় ছাত্রীদের উত্ত্যক্ত করতে শুরু করে। এর প্রতিবাদ করায় আরেক স্কুলছাত্রীকে ছুরিকাঘাতে আহত করেছে। এ ঘটনায় সড়ক অবরোধ করা হলেও পুলিশের আশ্বাসে তা তোলে নেয়া হয়।  

গৌরীপুর থানার এসআই নজরুল ইসলাম জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। বখাটে যুবককে আটক করতে অভিযান চালানো হয়েছে।

উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও ভারপ্রাপ্ত ইউএনও এএসএম রিয়াদ হাসান গৌরব বলেন, আহত স্কুলছাত্রীকে হাসপাতালে দেখে এসেছি। চিকিৎসার খোঁজ নিয়েছি। এ ঘটনায় সার্বিক সহযোগিতা করা হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকেএ

Best Electronics
Best Electronics