কুড়িগ্রামে আম্ফানে ফসলের ব্যাপক ক্ষতি

ঢাকা, শনিবার   ৩০ মে ২০২০,   জ্যৈষ্ঠ ১৬ ১৪২৭,   ০৬ শাওয়াল ১৪৪১

Beximco LPG Gas

কুড়িগ্রামে আম্ফানে ফসলের ব্যাপক ক্ষতি

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৪:৩৩ ২২ মে ২০২০   আপডেট: ১৬:৫৩ ২২ মে ২০২০

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

আম্ফানের প্রভাবে ১৬ নদ-নদী বেষ্টিত কুড়িগ্রামে ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। অবিরাম ঝড় বৃষ্টি ও দমকা হাওয়ায় জনজীবনে নেমে পড়েছে স্থবিরতা। 

ঝড়ো হাওয়ায় বিভিন্ন স্থানে কাঁচা ঘর ও গাছপালা ভেঙে গেছে। বিদ্যুতের তারে গাছপালা ভেঙে পড়ায় বুধবার রাত থেকে গত তিন ধরে জেলায় বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। 

ধান ও খড় নিয়ে কৃষক চরম বিপাকে পড়েছেন। তিনদিনের রোদহীন আকাশে আধা শুকনো ধান রোদে শুকাতে না পেরে কৃষকের ধানে দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে। রোদ না থাকায় পঁচে যাচ্ছে ধানের খড়।

স্থানীয় কৃষক সাইফুর রহমান, মুসা আলী ও শুভ মিয়া জানান, ঝড়-বৃষ্টির কারণে তাদের উঠতি আধাপাকা বোরো ধান পানিতে তলিয়ে গেছে। তাদেরকে বাধ্য হয়েই আধাপাকা ধান কাটতে হয়েছে। ধান পরিপক্ক না হওয়ায় তারা এসব ধান থেকে ভালো দাম পাবেন না বলে জানান।

কুড়িগ্রাম কৃষি সম্প্রসারণ অধিদ্ফতর খামারবাড়ীর উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা আসাদুজ্জামান সরকার রাজু জানান, আম্ফানের প্রভাবে সৃষ্ট ঝড়, দমকা হাওয়া ও বৃষ্টিতে জেলার ৯ উপজেলার কৃষকদের ৬৫৪ হেক্টর জমির উঠতি ফসলের ক্ষতি হয়েছে। 

এর মধ্যে ৫৩৪ হেক্টর জমির পাকা বোরো ধান মাটিতে নুয়ে পড়েছে। ১২০ হেক্টর জমির শাক-সবজির ক্ষতি হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত উপজেলারগুলোর মধ্যে ফুলবাড়ী, নাগেশ্বরী ও ভুরুঙ্গামারীর ক্ষতি বেশি হয়েছে বলেও জানান তিনি।

রাজারহাট কৃষি আবহাওয়া পর্যবেক্ষণ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সুবল চন্দ্র সরকার জানান, শুক্রবার সকাল ৯ টা পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় জেলায় বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে ১২২ মিলি মিটার। শনিবার এই দুর্যোগপুর্ণ আবহাওয়া স্বাভাবিক হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলেও জানান তিনি। 

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকে