.ঢাকা, রোববার   ২১ এপ্রিল ২০১৯,   বৈশাখ ৭ ১৪২৬,   ১৫ শা'বান ১৪৪০

কুর্দিদের সুরক্ষায় মার্কিন অনুরোধ প্রত্যাখান এরদোগানের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :: international-desk

 প্রকাশিত: ১৩:৪৮ ৯ জানুয়ারি ২০১৯   আপডেট: ১৩:৪৮ ৯ জানুয়ারি ২০১৯

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

সিরিয়ায় কুর্দি সেনাদের সুরক্ষা প্রদানে যুক্তরাষ্ট্রের আহ্বান জোরালভাবে প্রত্যাখ্যান করেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যিপ এরদোগান।

রোববার যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বোল্টন তুরস্ক সফরে এক বক্তব্যে তুরস্কের প্রতি এ আহ্বান জানিয়েছিলেন। এরদোগান বোল্টনের এ আহ্বানের প্রেক্ষিতে জানিয়েছেন, তার শর্ত ‘অগ্রহনযোগ্য’। - খবর বিবিসি’র

তুরস্কে সফর করা বোল্টনের সাথে সাক্ষাতে অস্বীকৃতি জানিয়ে দেশটির পার্লামেন্টে দেওয়া এক বক্তব্যে তিনি বলেন, সিরিয়া থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের বিনিময়ে কুর্দি সেনাদের সুরক্ষা প্রদানের শর্ত প্রদান করে বোল্টন ‘চরম ভুল’ করেছেন। ইসরায়েল থেকে তার বয়ে আনা বার্তা আমাদের পক্ষে গ্রহন করা সম্ভব নয়।

সিরিয়া থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের পর দেশটির উত্তরাঞ্চলে ইসলামিক স্টেট (আইএস) এর সঙ্গে লড়াই চালিয়ে যাওয়া কুর্দি যোদ্ধাদের নিরাপত্তার নিশ্চয়তা পেতে তুরস্ক সফর করছেন বোল্টন।

কিন্তু তুরস্ক সরকার আইএস’র সঙ্গে লড়াইরত ওই কুর্দি ওয়াইপিজি যোদ্ধাদের সন্ত্রাসী হিসাবেই গণ্য করে। মঙ্গলবার নিজ দল ‘একে পার্টি’র এমপিদের এরদোয়ান বলেন, তুরস্ক বোল্টনের বার্তা ‘মেনে নিতে পারে না’।

তিনি বলেন, ‘ওয়াইপিজি এবং কুর্দিদের অন্যান্য দলগুলো কী জিনিস তা আমেরিকানরা জানে না। যদি যুক্তরাষ্ট্র কুর্দিদের তাদের ভাই মনে থাকে তবে তারা মারাত্মক বিভ্রমের মধ্যে বাস করছে।’

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ‘আইএস পরাজিত হয়েছে’ বলে গত মাসে আকস্মিক সিরিয়া থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের ঘোষণা দেন ।

তবে গেলো সপ্তাহে ইসরায়েল ও তুরস্ক সফরকালে বোল্টন সিরিয়া থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের ক্ষেত্রে দুটো শর্ত জুড়ে দিয়েছেন।

তিনি বলেন, জঙ্গি গোষ্ঠী আইএস নির্মূল না হওয়া পর্যন্ত মার্কিন সেনারা সিরিয়ায় থাকবে। আর তুরস্ককেও যুক্তরাষ্ট্রের মিত্র কুর্দি বাহিনীর ওপর হামলা না চালানোর ও সুরক্ষা প্রদানের নিশ্চয়তা দিতে হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/মাহাদী/টিআরএইচ