কুখ্যাত খুনি লবস্টার বয় এর কাহিনী  

ঢাকা, সোমবার   ২০ মে ২০১৯,   জ্যৈষ্ঠ ৬ ১৪২৬,   ১৪ রমজান ১৪৪০

Best Electronics

কুখ্যাত খুনি লবস্টার বয় এর কাহিনী  

শাখাওয়াত হোসেইন শুভ  ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১১:২১ ২৬ এপ্রিল ২০১৯  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

গ্র্যাডি স্টাইলস জুনিয়র, যে কিনা ‘লবস্টার বয়’ হিসেবে পরিচিত, ১৯৩৭ সালে পিটসবার্গে লবস্টার ম্যান বংশের এক পরিবারে জন্ম নেন। ওই পরিবারের সদস্যরা বিভিন্ন মেলায় ও সার্কাসে কাজ করত। আশ্চর্যের ব্যাপার হলো, তারা বংশগতভাবেই বিকলাঙ্গ ছিল! অদ্ভূতভাবে তাদের দুই হাতের আঙ্গুলগুলো গলদা চিংড়ির হাতের মত জোড়া থাকতো! কিন্তু গ্র্যাডি স্টাইলসের অবস্থা আর খারাপ ছিল। তার হাত বিকলাঙ্গ হওয়ার সাথে সাথে তার পায়েও একই সমস্যা হয়, যার দরুন সে হাঁটতে অক্ষম হয়ে পড়ে। তার জীবনের বেশির ভাগ সময় সে হুইলচেয়ার ব্যবহার করত এবং আশ্চর্যজনকভাবে সে নিজের শরীরের উপরের অংশ অস্বাভাবিক শক্তি ব্যাবহার করে নিজেকে মেঝে থেকে তুলতে শিখেছিলো।   

এত সীমাবদ্ধতা এবং তার শারীরিক বিকলাঙ্গতার মধ্যেও গ্র্যাডি মেলায় কাজ করত। মারিয়া তেরেসা নামক মেলার এক কর্মীকে ভালোবেসেছিল সে। মারিয়া তেরেসা সার্কাসে কাজ করার জন্যে খুবই অল্প বয়সে বাড়ি থেকে পালিয়েছিলেন। তারা খুব দ্রুতই বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন এবং দুই সন্তানের জন্ম দেন। কিন্তু অবস্থার অবনতি ঘটে যখন স্টাইলস মদ্যপান শুরু করে। সে তার শরীরের উপরের অংশের প্রকৃতি প্রদত্ত মাত্রাধিক শক্তি ব্যাবহার করে তার স্ত্রী এবং সন্তানদের উপর নির্যাতন করতেন।স্টাইলসের কিশোরী মেয়ে ডোনা যখন একজন যুবককে ভালবাসে বিয়ে করার সিদ্ধান্ত নেয় তখন সে ঠিক বিয়ের আগের দিন ঠান্ডা মাথায় তার কন্যার বাগদত্তাকে খুন করে। এই কাজের জন্য সে কোনো অনুতাপ অনুভব করেননি। এমনকি যখন তার বিচার কাজ হয় তখন সে কোন অনুতাপ ছাড়াই তার কুকর্ম স্বীকার করে। তার সাজা চলাকালীন সময়ে সে উল্লেখ করেন যে তাকে কোনো কারাগারে রাখা যাবেনা। এর কারণ হিসেবে সে বলে, যেহেতু সে বিকলাঙ্গ তাই তার জন্য কোনো উপযুক্ত কারাগার নেই। যার জন্যে তার ১৫ বছরের সাজা মৌকুফ করে বাড়িতে ফেরার অনুমতি দেয়া হয়।
    
যখন তার বিচার কাজ চলছিল তখন তার স্ত্রীর সাথে বিবাহ বিচ্ছেদ ঘটে। কিন্তু ১৯৮৯ সালে তার প্রথম স্ত্রী তাকে পুনরায় বিবাহ করতে রাজি হন। এর কারণ স্টাইলস এর পরিবার বা বাইরের কেউই বুঝতে পারেনি। কিন্তু তার স্ত্রী ফিরে এলে স্টাইলস তার উপর অত্যাচার এর মাত্রা আরো বারিয়ে দেয়। স্বামীর অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে তাদের দ্বিতীয় বিয়ের কিছু বছর পরে তার স্ত্রী ১৭ বছর বয়সের প্রতিবেশী ক্রিস ওয়্যান্টকে ১৫০০ ডলার দেন, স্টাইলস্কে গুলি করে মারার জন্য এবং এর মাধ্যমে পৃথিবীর ইতিহাসের সবথেকে অবিশ্বাস্য গল্পের সমাধি ঘটে। স্টাইলস এর স্ত্রী এবং হত্যাকারি ক্রিস ওয়্যান্ট দু’জনেই স্বীকার করেন যে, তারা স্টাইলসকে হত্যা করেছেন। বিচার এর সময় স্টাইলসের স্ত্রী তার উপর করা অমানুষিক অত্যাচারের সম্পূর্ণ বিবরণ দেন। তিনি এও বলেন যে, তিনি মন থেকে বিশ্বাস করতেন তার স্বামী তার পরিবারের সবাইকে হত্যা করে ফেলত, এজন্য বাধ্য হয়ে তিনি স্বামীকে হত্যা করেছিলেন, কারণ প্রচলিত বিচার ব্যবস্থা তাকে জেলে আটকে রাখতে পারেনি। 

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএমএস

Best Electronics

শিরোনাম

শিরোনামজঙ্গিবাদ থেকে মুক্ত রেখে দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন চায় সরকার: প্রধানমন্ত্রী শিরোনামপরিবেশ আইন-লঙ্ঘন: উত্তরাঞ্চলের ১৯ ইটভাটার মালিকের বিরুদ্ধে মামলা করার নির্দেশ হাইকোর্টের শিরোনামকেমিক্যাল ব্যবহার বন্ধে সারা দেশের ফলের বাজারে যৌথ কমিটির তদারকির নির্দেশ হাইকোর্টের শিরোনামরূপপুর পরমাণু বিদ্যুৎকেন্দ্রের আবাসিক প্রকল্পে দুর্নীতির ঘটনা তদন্ত চেয়ে হাইকোর্টে করা রিটের শুনানি আজ শিরোনামবিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের হজ ফ্লাইটের টিকিট বিক্রি শুরু শিরোনামসংরক্ষিত আসনে বিএনপির মনোনয়ন জমা দিলেন রুমিন ফারহানা শিরোনামরাঙামাটিতে যুবলীগ নেতাকে গুলি করে হত্যা শিরোনামচট্টগ্রামে বন্দুকযুদ্ধে ছিনতাইকারী নিহত শিরোনামরাজধানীতে বন্দুকযুদ্ধে দুই ছিনতাইকারী নিহত শিরোনামআজ ইফতার: সন্ধ্যা ৬টা ৪০ মিনিটে