কিংবদন্তির মৃত্যুবার্ষিকীতে নুহাশপল্লীর আয়োজন

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২০ জুন ২০১৯,   আষাঢ় ৬ ১৪২৬,   ১৫ শাওয়াল ১৪৪০

কিংবদন্তির মৃত্যুবার্ষিকীতে নুহাশপল্লীর আয়োজন

 প্রকাশিত: ০৯:৩৫ ১৯ জুলাই ২০১৮   আপডেট: ১৪:৩৫ ১৯ জুলাই ২০১৮

বৃষ্টি বিলাস

বৃষ্টি বিলাস

হুমায়ুন আহমেদ মানেই এক অনন্য চরিত্রে নাম। আজ হিমু, মিসির আলী বা শুভ্র’র স্রষ্টার ষষ্ঠ প্রয়াণ দিবস। ২০১২ সালের এইদিন তিনি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে তার অগনিত ভক্তকূলকে কাদিয়ে চলে যান না ফেরার দেশে।

আকাশচুম্বী জনপ্রিয় এ লেখকের মৃত্যুতে সেদিন পুরো দেশে শোকের ছায়া নেমে এসেছিল। তার লক্ষ-কোটি ভক্তদের অন্তর আজো সে শোক ধারণ করছে। নুহাশপল্লীর লিচুতলায় শায়িত রয়েছেন বাংলা সাহিত্যের বরপুত্র হুমায়ুন আহমদ। 

হুমায়ুন আহমেদের মৃত্যুতে বাংলা সাহিত্যে সৃষ্টি হয় শূন্যতার। শূন্যতা সৃষ্টি হয় তার প্রিয় প্রাঙ্গন নুহাশপল্লীতেও। যে শূন্যতা পূরণ হওয়ার নয়। আর তাই নুহাশপল্লীর প্রতিটি গাছপালা ও পাখপাখালি এবং নানা ভাস্কর্যের ভিড়ে অকাল প্রয়াত এ লেখককে মনে পড়ে এখানে আসা দর্শনার্থীদের।

হুমায়ুন আহমেদের মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে গাজীপুরের নুহাশ পল্লীর সমাধিতে দিনভর পুষ্পাঞ্জলি দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করবেন স্বজন ও ভক্তরা।

স্বামীর কবর জিয়ারত করতে ছেলে নিষাদ ও নিনিতকে নিয়ে নুহাশ পল্লীতে যাবেন স্ত্রী মেহের আফরোজ শাওন। এছাড়াও এ লেখকের ভাই ও অন্য সন্তানসহ ভক্তবৃন্দরা জানিয়েছেন নূহাশ পল্লীর কর্মকর্তারা।

প্রতি বছরের মতো এবারো তার মৃত্যুবার্ষিকীতে নুহাশপল্লীর আশেপাশের এতিমখানায় হুমায়ুন আহমেদের স্মরণে কোরআন খতম ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়েছে। 

এছাড়া এতিম শিশুদের জন্য খাওয়া-দাওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে বলে জানান নুহাশপল্লীর ব্যবস্থাপক ইব্রাহিম জুয়েল। তিনি বলেন, সারাদিনের অনুষ্ঠানের মধ্যে রয়েছে কবর জিয়ারত, মিলাদ ও দোয়া-মাহফিল, এতিম ভোজ প্রভৃতি।

মৃত্যুবার্ষিকী উদযাপন করার লক্ষ্যে তার কবরের সাদা পাথর দিয়ে করা মূল কবররের চারপাশে কাঁচ এবং লাইটের ব্যবস্থা করা হয়েছে। সাধারণ দর্শনার্থীদের জন্য কবরের পশ্চিমপাশে গেইটের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, ১৯৭৩ সালে হুমায়ূন আহমেদ বিয়ে করেন প্রিন্সিপাল ইব্রাহীম খাঁর নাতনি গুলতেকিন খানকে। হুমায়ূন এবং গুলতেকিন দম্পতির চার ছেলে-মেয়ে। তিন মেয়ে নোভা, শিলা ও বিপাশা আহমেদ এবং ছেলে নুহাশ হুমায়ূন।

তাদের ৩২ বছরের দাম্পত্য জীবনের অবসান ঘটে ২০০৫ সালে। এরপর হুমায়ূন আহমেদ বিয়ে করেন অভিনেত্রী মেহের আফরোজ শাওনকে। এ দম্পতির দুই ছেলে- নিষাদ ও নিনিত হুমায়ূন।

ডেইলি বাংলাদেশ/টিএএস