Alexa কাউন্সিলর রূপা হাসপাতালে

ঢাকা, মঙ্গলবার   ১০ ডিসেম্বর ২০১৯,   অগ্রহায়ণ ২৫ ১৪২৬,   ১২ রবিউস সানি ১৪৪১

কাউন্সিলর রূপা হাসপাতালে

 প্রকাশিত: ১৫:৩৬ ২১ জুলাই ২০১৭  

বরিশালে কারান্তরীণ নারী কাউন্সিলর ইসরাত আমান রূপাকে শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাত ১টার দিকে গুরুতর অসুস্থ হলে তাকে মেডিকেলের করোনারি কেয়ার ইউনিটে (সিসিইউ) ভর্তি করা হয়। ইসরাত আমান রূপা নগরীর সংরক্ষিত ১৬, ১৭ ও ১৮ ওয়ার্ডের কাউন্সিলর। বরিশাল কেন্দ্রীয় কারাগারের ডেপুটি জেলার মো. মনির হোসেন জানান, বৃহস্পতিবার বিকেলে কোতয়ালী মডেল থানা পুলিশ তাকে আদালতে সোপর্দ করে। আদালত রূপাকে কারাগারে প্রেরণ করলে ওই রাতেই কারা অভ্যন্তরে অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। কারা চিকিৎসকদের প্রাথমিক পর্যবেক্ষণের পর বৃহস্পতিবার রাত ১টার দিকে গুরুতর অসুস্থ রূপাকে শের-ই-বাংলা মেডিকেলের করোনারি কেয়ার ইউনিটে (সিসিইউ) ভর্তি করা হয়। কোতোয়ালি মডেল থানা পুলিশের সেকেন্ড অফিসার এসআই সত্য রঞ্জন খাসকেল জনান, গত সোমবার রাত ১০টার দিকে বরিশাল নগরীর ২২ নম্বর ওয়ার্ডের জিয়া সড়ক মদিনা মসজিদ এলাকায় সাপুড়ে মান্না পাহাড়ির দুই পায়ের রগ কেটে দেয়াসহ নির্মমভাবে কুপিয়ে আহত করে সন্ত্রাসীরা। এ ঘটনায় গত বুধবার রাতে আহত সাপুড়ে মান্নার স্ত্রী কাজল বেগম বাদী হয়ে ইসরাত আমান রূপাকে হুকুমের আসামিসহ স্থানীয় যুবলীগ কর্মী তরিকুল ইসলাম রাজা, সরজিৎ চন্দ্র রায় ওরফে সবুজ, মো. ফিরোজ, মাসুদ মোল্লা ও রফিকুল ইসলাম বাদশাকে আসামি করে কোতয়ালি থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে নগরীর ব্রাউন কম্পাউন্ড রোডের নিজ বাসা থেকে সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর রূপাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। মামলায় মান্নার স্ত্রী কাজল বেগম অভিযোগ করেন, কয়েক মাস আগে মান্নাকে সাপের বাক্সে কক্সবাজার থেকে বরিশালে ইয়াবা বহনের প্রস্তাব দেয় যুবলীগ কর্মী রাজা ও কাউন্সিলর রূপা। এতে রাজী না হওয়ায় মান্নাকে হুমকি দেন তারা। ওই সময়ে মান্না কোতোয়ালি মডেল থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন। কিন্তু তারপরও শেষ রক্ষা হয়নি। হাসপাতালের চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, প্রাণে বেঁচে গেলেও মান্নার পুরোপুরি সুস্থ হতে কয়েক মাস লেগে যেতে পারে। ডেইলি বাংলাদেশ/আরকে