করোনা সংক্রমণ ঘটাতে লম্বা নখ কতটা দায়ী? জানালেন বিশেষজ্ঞরা  

ঢাকা, সোমবার   ০১ জুন ২০২০,   জ্যৈষ্ঠ ১৮ ১৪২৭,   ০৮ শাওয়াল ১৪৪১

Beximco LPG Gas

করোনা সংক্রমণ ঘটাতে লম্বা নখ কতটা দায়ী? জানালেন বিশেষজ্ঞরা  

স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৬:০০ ২৯ মার্চ ২০২০   আপডেট: ১৬:১৬ ২৯ মার্চ ২০২০

ছবি: লম্বা নখেই বিপদ!

ছবি: লম্বা নখেই বিপদ!

হাতের মাধ্যমে অনেক রোগ জীবাণু শরীরে প্রবেশ করে। সম্প্রতি সারাবিশ্বে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাস হাতের মাধ্যমেই চোখ, মুখ ও নাক স্পর্শের মাধ্যমে শরীরে সংক্রমণ ঘটায়। 

বেলগ্রাভিয়ার বিজাক্স মেডিস্পায় একজন ব্রিটিশ সৌন্দর্য বিশেষজ্ঞ ডা. এলিজাবেথ ড্যান্সি করোনাভাইরাস সংক্রমণের জন্য লম্বা নখকে দায়ী করছেন। তিনি জানান, বড় নখের নিচে সহজেই যে কোনো ছত্রাক, ব্যাকটেরিয়া আটকে থাকতে পারে। যা চোখ, মুখ বা অন্যান্য জিনিস স্পর্শে ছড়াতে পারে। তাই করোনাভাইরাস প্রতিরোধে বারবার হাত ধোয়ার পাশাপাশি হাতের নখ ছোট রাখুন। 

নেইলপলিশ থাকলে তা পরিষ্কার করে নিন। এছাড়াও তিনি ডাক্তার এবং নার্সদের করোনাসহ যে কোনো ভাইরাস, ব্যাকটেরিয়া দূর করতে ভালোভাবে নখ পরিষ্কার করার পরামর্শ দিয়েছেন। হ্যাম্পস্টেড ক্লিনিকের পরিচালক ডা. চাইক এবং প্রাক্তন অর্থোপেডিক সার্জন ডা. চিকে ইমেগি করোনাভাইরাস প্রতিরোধে দিয়েছেন নখ ছোট রাখার সতর্কবার্তা। 

তাই ২০ সেকেন্ড ধরে সাবান পানি দিয়ে হাত ধোয়ার পাশাপাশি আপনার হাতের নখ ছোট রাখুন। নখের মাধ্যমে ছড়াতে পারে করোনা। তাই নখ বড় হলে আগে তা কেটে ছোট করুন। এরপর ভালোভাবে নখ সাবান পানি দিয়ে পরিষ্কার করুন। যে কোনো কিছু স্পর্শ করার আগে বা খাওয়ার আগে অবশ্যই ২০ সেকেন্ড ধরে সাবান পানি দিয়ে হাত ধুয়ে নিন। নখ পরিষ্কার করতে ব্রাশ ব্যবহার করতে পারেন। 

নিউইয়র্ক বিশ্ববিদ্যালয়ের ল্যাঙ্গোন মেডিকেল সেন্টারের অ্যালার্জি এবং সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ পূর্বভি পরীখ পরামর্শ দিয়েছেন, হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করলে তা সঠিক পদ্ধতিতে ব্যবহার করুন। যতবার আপনি মুখ, নাক, চোখ স্পর্শ করবেন তার আগে হাত এবং নখ ধুয়ে নিন। 

কারণ হাতের মাধ্যমে করোনাসহ অন্যান্য জীবাণু সরাসরি শরীরে প্রবেশ করতে পারে। অনেকেই আছেন দাঁতে নখ কাটেন। এ অভ্যাস পরিহার করুন। আতঙ্কিত না হয়ে সতর্ক থাকুন। করোনা প্রতিরোধে ঘরে অবস্থান করুন। স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের দেয়া পরামর্শ মেনে চলুন।    

সূত্র: ডেইলিমেইল

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএমএস