করোনা ভেবে ধরল না চিকিৎসক, গলায় মাংস আটকে ছটফট করে মরল যুবক 

ঢাকা, রোববার   ৩১ মে ২০২০,   জ্যৈষ্ঠ ১৭ ১৪২৭,   ০৭ শাওয়াল ১৪৪১

Beximco LPG Gas

করোনা ভেবে ধরল না চিকিৎসক, গলায় মাংস আটকে ছটফট করে মরল যুবক 

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৮:৩০ ২০ মে ২০২০   আপডেট: ১৮:৩৩ ২০ মে ২০২০

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

মানিকগঞ্জে গরুর মাংস গলায় আটকে চঞ্চল হোসেন নামে এক ২০ বছরের যুবকের মৃত্যু হয়েছে। বুধবার দুপুরে মানিকগঞ্জ জেলা হাসপাতালের সামনে আমতলায় এ ঘটনা ঘটে। চঞ্চল সদর উপজেলার উচুটিয়া গ্রামের আব্দুর রহিমের ছেলে।

স্বজনদের অভিযোগ চিকিৎসকেরা চঞ্চলের গলায় সমস্যা হওয়ায় করোনা আক্রান্ত রোগী ভেবে তার চিকিৎসায় হাত দেয়নি। তাদের গাফিলতিতেই বিনা চিকিৎসায় চঞ্চল ছটফট করতে করতে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে।

চঞ্চলের বোন সুমাইয়া আক্তার জানান, তার ভাই ঢাকার একটি প্রেসে চাকরি করতেন। সকালে ঢাকা থেকে বাড়িতে এসে গরুর মাংস দিয়ে ভাত খাইতে গিয়ে একটি টুকরো তার গলায় আটকে যায়। পরে তাকে মানিকগঞ্জ জেলা হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে আসা হয়। গলা ব্যথায় তার ভাই ছটফট করলেও করোনার রোগী মনে করে কোনো চিকিৎসক তার কাছেই আসেননি। কিছুক্ষণ পর জরুরি বিভাগ থেকে জানানো হয় তার ভাই মারা গেছে।

নিহতের মা শিখা বেগম হাসপাতালের ট্রলিতে ছেলের নিথর দেহ নিয়ে বিলাপ করে অভিশাপ দিচ্ছেন হাসপাতালের চিকিৎসকদের। তার অভিযোগ হাসপাতালে আনা হলেও বিনা চিকিৎসায় তার একমাত্র ছেলে চঞ্চল হোসেনের মৃত্যু হয়েছে। 

মানিকগঞ্জ জেলা হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ডা. মোহাম্মদ মাহফুজ জানান, হাসপাতালে আনার আগেই গলায় মাংস আটকে চঞ্চলের মৃত্যু হয়। হাসপাতালের জরুরি বিভাগে আনার পর ইসিজি করে বিষয়টি নিশ্চিত করে তাদেরকে জানানো হয়।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ