করোনা নিয়ে চবিতে চার গবেষণা, শিগগিরই ফুটবে আশার আলো 

ঢাকা, বুধবার   ২৭ মে ২০২০,   জ্যৈষ্ঠ ১৪ ১৪২৭,   ০৪ শাওয়াল ১৪৪১

Beximco LPG Gas

করোনা নিয়ে চবিতে চার গবেষণা, শিগগিরই ফুটবে আশার আলো 

চবি প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২০:৫০ ৯ এপ্রিল ২০২০  

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) নিয়ে গবেষণায় আছেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল গবেষক। এই দুর্যোগময় মুহূর্তে রাষ্ট্রীয় ও সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে কাজ করছেন তারা।

চবি ভিসি প্রফেসর ড. শিরীণ আখতার এর বিশেষ আগ্রহে ও বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের সার্বিক সহযোগিতায় বেশ কয়েকটি গবেষণা প্রকল্প এই মুহূর্তে বিশ্ববিদ্যালয়ে পরিচালিত হচ্ছে।

কোভিড-১৯ নিয়ে জনসাধারণের সচেতনতার প্রকৃতি ও তা কার্যকর করতে বিভিন্ন পদ্ধতি উদ্ভাবন পরিচালনা করছেন ভূগোল ও পরিবেশবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক ড. অলক পাল।

কোভিড-১৯ এর জিনগত গঠনে বিভিন্ন রোগীর মধ্যে ভিন্নতা, বিষক্রিয়া সৃষ্টিকারী প্রোটিনের বিভিন্ন গঠন ও ভাইরাসটির উৎপত্তিগত বিশ্লেষণ পরিচালনায় আছেন জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড বায়োটেকনোলজি বিভাগের ড. আদনান মান্নান।

বর্তমান করোনাভাইরাস পরিস্থিতি বিভিন্ন দেশে, সংস্কৃতিতে মানুষকে কিভাবে প্রভাবিত করছে তা নিয়ে বাংলাদেশে সহযোগী হিসেবে আন্তর্জাতিক গবেষণায় কাজ করছেন মনোবিজ্ঞান বিভাগের অলি আহমেদ পলাশ। 

কোভিড-১৯ এর অবস্থান ও বিভিন্ন এলাকায় তার প্রকোপ নির্ণয়ে কভিড ট্র্যাকার অ্যাপস উদ্ভাবন করেছেন ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ড. আরিফ ইফতেখার মাহমুদ।

বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন গবেষণাকর্ম থেকে এরইমধ্যে দুটি গবেষণা প্রকল্প সমাপ্ত হয়েছে এবং তা শিগগিরই আন্তর্জাতিক জার্নালে প্রকাশিত হবে বলে আশা করছেন গবেষকেরা।

এছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ড. আরিফ ইখতেখার মাহমুদ এবং ড. আদনান মান্নান বাংলাদেশ সরকারের পিপিই (স্বাস্থ্য সুরক্ষা পোশাক উদ্ভাবন এর মান নির্নয়) প্রকল্পে পরামর্শক হিসেবে সহায়তা করছেন।

বাংলাদেশ সরকারের কোভিড-১৯ ডায়াগনস্টিক দলের সঙ্গে স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে কাজ করছেন জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড বায়োটেকনোলজি বিভাগের আরটি পিসিআর এ প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা। এর মধ্যে আছেন, আসমা সালাউদ্দিন, মোহাম্মদ ইমরান হোসেন, রক্তিম বড়ুয়া ও সৈয়দ লোকমান।

অন্যদিকে বিআইটিআইডিতে করোনা শনাক্তকরণ দলের সঙ্গে প্রত্যক্ষভাবে কাজ করছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।

ভিসি প্রফেসর ড.শিরীণ আখতার এই করোনাভাইরাস শনাক্তকরণের দলের ব্যক্তিগত সুরক্ষার জন্য পিপিই এবং যাতায়াতের বিশেষ ব্যবস্থা নিশ্চিত করেছেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডএম