করোনার করুণ সময়ে দুস্থদের সাহায্য করছে চুয়েট শিক্ষার্থীরা

ঢাকা, মঙ্গলবার   ০৭ এপ্রিল ২০২০,   চৈত্র ২৫ ১৪২৬,   ১৪ শা'বান ১৪৪১

Akash

করোনার করুণ সময়ে দুস্থদের সাহায্য করছে চুয়েট শিক্ষার্থীরা

সাঈদ চৌধুরী, চুয়েট ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১১:০৩ ২৬ মার্চ ২০২০   আপডেট: ১৫:১০ ২৬ মার্চ ২০২০

অসহায় মানুষদের পাশে দাঁড়াতে একটি ত্রাণ তহবিল গঠন করেছেন চুয়েট শিক্ষার্থীরা

অসহায় মানুষদের পাশে দাঁড়াতে একটি ত্রাণ তহবিল গঠন করেছেন চুয়েট শিক্ষার্থীরা

করোনাভাইরাস এখন মহামারি আকার ধারণ করেছে। ছড়িয়ে পড়েছে দেশে দেশে। তাই করোনার কবল থেকে বাঁচতে হলে ঘরে বসে থাকা ছাড়া আর কোনো উপায় নেই। যারা ঘরে বসে থাকে তাদের তিনবেলার আহার জুটবে কি করে? এই নিয়ে বেশ চিন্তিত নিম্ন আয়ের মানুষজন। তাদের এই দুরবস্থায় এগিয়ে এসেছেন একদল শিক্ষার্থী। সবাই পড়েন চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (চুয়েট)।

সমাজের অসহায় মানুষদের পাশে দাঁড়াতে একটি ত্রাণ তহবিল গঠন করেছেন চুয়েট শিক্ষার্থীরা। যাদের উদ্যোগে এই তহবিল গঠন করা হয়েছে তারা হলেন হলেন মঞ্জুর-ই-ইলাহি আকাশ, ফয়সাল আহমেদ, তারেক মাহমুদ, ইনজামাম উল হক। 

মঞ্জুর-ই-ইলাহি আকাশ বলেন, আমাদের লক্ষ্য চুয়েট এবং চুয়েটের বাইরে যারা আছেন সবার কাছ থেকে তহবিল সংগ্রহ করা। এরইমধ্যে চুয়েটের বর্তমান এবং প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের থেকে অর্থ সংগ্রহ করেছি। চট্টগ্রামের দেওয়ানহাট বস্তি এবং রেলস্টেশন এলাকায় ক্ষতিগ্রস্ত ১০০টি দুস্থ পরিবারের কয়েক বেলা খাবারের জন্য প্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী বিতরণের কাজ শুরু করেছি। চট্টগ্রামের সেচ্ছাসেবী সংগঠন ‌‍লাইটার বাংলাদেশ এর সেচ্ছাসেবক দ্বারা খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হচ্ছে। 

হ্যান্ড স্যানিটাইজারের বোতলে কোনো করোনাভাইরাসে সংক্রমিত ব্যক্তি স্পর্শ করলে ঐ বোতলে ভাইরাসের সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার একটা প্রকোপ থেকে যায়। সেই চিন্তা ভাবনা থেকে 'করোনাভাইরাস' এর প্রাথমিক প্রাদুর্ভাব মোকাবিলায় জীবাণুনাশক স্বয়ংক্রিয় পদ্ধতির  'অটো হ্যান্ড স্যানিটাইজার ডিস্পেন্সার' তৈরি করেছে চুয়েটের রোবো মেকাট্রনিক্স অ্যাসোসিয়েশন (আরএমএ)। চট্টগ্রাম নগরের জিইসি মোড়ে স্থাপিত এই মেশিন বেশ কার্যকর ভূমিকা রাখছে। একই যন্ত্রটি আপাতত চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজসহ নগরীর গুরুত্বপূর্ণ ১০টি পয়েন্টে বসানোর জন্য উত্তোলিত তহবিল থেকে সাহায্য প্রদান করা হয়েছে। বর্তমানে তহবিল থেকে ৩৫০-৫০০টি হ্যান্ড স্যানিটাইজার বোতল তৈরির কাজ চলমান রয়েছে। 

উক্ত তহবিল থেকে দিনাজপুরের এমএ আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ এর জন্য হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরি করনে সহায়তার কাজ চলমান রয়েছে। পাশাপাশি তহবিল থেকে দিনাজপুরের ২০০টি দুস্থ ও দিনমজুর পরিবারকে কয়েক বেলার খাদ্য সরবরাহকরণের কাজ চলমান রয়েছে। 

কর্মপরিকল্পনা সম্পর্কে তহবিল সংগ্রাহক ইনজামামুল হক মাহি জানান, দেশের এই পরিস্থিতিতে ক্ষতিগ্রস্ত দুস্থ পরিবারগুলোকে খাদ্য সহায়তা প্রদানই আমাদের মূল লক্ষ্য যা আমরা সামনের দিনগুলোতেও চালিয়ে নিতে চাই। এছাড়া যথেষ্ট তহবিল সংগ্রহ করতে পারলে চিকিৎসকদের জন্য পিপিই সরবরাহের ইচ্ছা আছে আমাদের। এ ব্যাপারে চিকিৎসকদের সঙ্গেও যোগাযোগ করেছি আমরা।

এছাড়া ব্যক্তিগত উদ্যোগেও চুয়েটের বিভিন্ন বর্ষের শিক্ষার্থীরা ভিন্ন ভিন্ন জায়গায় গরিব অসহায় দুস্থদের মাঝে ত্রান বিতরণের কাজ করছেন। তাদের মধ্যে প্রান্ত আলম জানান, আমাদের কে যেহেতু বলা হয় দেশের প্রথম সারির শিক্ষার্থী এবং ভবিষ্যৎ। তাই এই খারাপ সময়ে আমরা যদি এগিয়ে না আসি তাহলে এই শিক্ষিত হওয়াটা ষোল আনা অপূর্ণ রয়ে যাবে। আমরা আশা করি  এই পরিস্থিতি মোকাবেলায় সবাই নিজ নিজ জায়গা থেকে এগিয়ে আসবেন।

মানুষ মানুষের জন্য। তাই মানুষকে বাঁচাতে, দেশকে বাঁচাতে সবাইকে এগিয়ে আসার আহবান জানিয়েছেন তারা। অর্থ সহায়তা পাঠানোর জন্যঃ 

চুয়েটিয়ান তহবিলঃ
বিকাশ-
01777542267 (তারেক)
01704889805 (রজত)

রকেট- 
017775422675 (তারেক)
019726797574 (রাফি)

দেশের বাইরে থেকে আর্থিক সহায়তা প্রদানের জন্যঃ
ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট-
Title: Protap Sarker
Acc: 1011050037850
Branch: Local Office  - 101
Routing No : 090273889
Swift: DBBLBDDH101

ব্যক্তিগত উদ্যোগঃ
বিকাশ-
01677292039 (প্রান্ত)
01798963673 (আতাউর)
রকেট-
015213318009(প্রান্ত)
017989636736 (আতাউর)

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডএম