করোনাকালে ২০ বছরের রেকর্ড ভাঙলো বঙ্গবন্ধু সেতু

ঢাকা, মঙ্গলবার   ০৪ আগস্ট ২০২০,   শ্রাবণ ২০ ১৪২৭,   ১৩ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

Beximco LPG Gas

করোনাকালে ২০ বছরের রেকর্ড ভাঙলো বঙ্গবন্ধু সেতু

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৬:৩৭ ১ আগস্ট ২০২০   আপডেট: ১৬:৩৮ ১ আগস্ট ২০২০

বঙ্গবন্ধু সেতু

বঙ্গবন্ধু সেতু

ঈদ যাত্রায় স্বাস্থ্যবিধি মানার সরকারি নির্দেশনা থাকলেও এর কোনো বিধি নিষেধ ছিল না বাড়ি ফেরা উত্তরাঞ্চলগামী কয়েক হাজার মানুষের। গত ২৪ ঘণ্টায় বঙ্গবন্ধু সেতু দিয়ে রেকর্ড সংখ্যক যানবাহন পারাপার হয়েছে। 

সেতু কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, বঙ্গবন্ধু সেতু উদ্বোধনের পর গত ২০ বছরের মধ্যে এটাই সর্বোচ্চ যানবাহন পারাপার। তবে রেকর্ডসংখ্যক যানবাহন চলাচলে ছিলো কিছুটা ধীরগতি। বৃহস্পতিবার থেকে যানবাহনের চাপ বাড়লেও হাটিকুমরুল মোড় দিয়ে শুক্রবারও নির্বিঘ্নে ও নিরাপদে উত্তরাঞ্চলের দিকে মানুষজন চলাচল করতে পেরেছেন।সিরাজগঞ্জ অঞ্চলের ঢাকা-হাটিকুমরুল-রাজশাহী এবং পাবনা-হাটিকুমরুল-রংপুর মহাসড়কে যানজট ছিলো না বলে জানা গেছে।

এর আগে, বৃহস্পতিবার সকাল ৬টা থেকে শুক্রবার সকাল ৬টা পর্যন্ত ঢাকা-উত্তরাঞ্চল ও উত্তরাঞ্চল-ঢাকার দিকে ৪৮ হাজার ৩২১টি যানবাহন পারাপার হয়। এরমধ্যে ঢাকা থেকে উত্তরের দিকে গেছে ৩২ হাজার ৮৫টি এবং উত্তরাঞ্চল থেকে ঢাকার দিকে যায় ১৬ হাজার ২৩৬টি যানবাহন চলাচল করে। গত বছরে কোরবানির ঈদের আগে সর্বোচ্চ ৩৬ হাজার ২৪৮টি যানবাহন বঙ্গবন্ধু সেতু পারাপার হয়েছিলো বলে জানিয়েছেন কর্তৃপক্ষ।

বাংলাদেশ সেতু কর্তৃপক্ষ (বিবিএ)-এর টোল আদায় ব্যবস্থাপনার ইনচার্জ ও নির্বাহী প্রকৌশলী আহসান নাসির বাপ্পি বলেন, বৃহস্পতিবার সকাল থেকে শুক্রবার সকাল পর্যন্ত ৪৮ হাজার ৩২১টি যানবাহন পারাপার হওয়ায় দুই কোটি ৮৪ লাখ টাকার রাজস্ব আয় হয়েছে। যা সেতু নির্মাণ হবার পর সর্বাধিক।

সিরাজগঞ্জ অতিরিক্ত এসপি ফারহানা ইয়াসমিন বলেন, মানুষের ঈদযাত্রা নির্বিঘ্ন করতে জেলা পুলিশের সিরাজগঞ্জ জেলার ১০২ কিলোমিটার মহাসড়ক জুড়ে তিন শিফটে ২৫০ জন পুলিশ সদস্য দায়িত্ব পালন করছেন। ১৮টি পেট্রোল টিম, ছয়টি গাড়ি ও ১৩টি মোটরসাইকেল দল এবং তিনটি তদারকি দল প্রতি শিফটে মহাসড়কেই অবস্থান করছে। এবার আগে থেকেই তারা মাঠে রয়েছেন। এছাড়াও হাইওয়ে পুলিশ কাজ করছেন।

বগুড়া হাইওয়ে পুলিশ বগুড়া রিজিয়নের এসপি মো. শহিদউল্লাহ বলেন, সিরাজগঞ্জের দুটি মহাসড়কসহ বগুড়া ও রংপুরের মহাসড়ক পর্যন্ত হাইওয়ে পুলিশের ৬৫০ জন সদস্য দায়িত্ব পালন করছেন। 

তিনি আরো জানান, করোনার প্রভাবে মানুষজন কম চলাচল করবে যার কারণে যানবান কম চলবে আমাদের এমন ধারনা বদলে গেছে। তিনি জানান, বুধবার সিরাজগঞ্জের দুটি মহাসড়ক দিয়ে ৩৫ হাজার ৮৫৫টি যানবাহন বঙ্গবন্ধু সেতু পরাপার হয়। বৃহস্পতিবার দুপুর পর্যন্ত প্রায় ১৫ হাজার যানবাহন চলাচল করে। সড়ক দুর্ঘটনা মোকাবেলায় হাইওয়ে পুলিশের পক্ষ থেকে সিরাজগঞ্জসহ বগুড়া ও রংপুরের মহাসড়কে তিনটি অ্যাম্বুলেন্স, চারটি র‍্যাকার ও হোন্ডা ট্রুপ ক্যারেড দল সার্বক্ষণিক প্রস্তত রাখা ছিলো।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএস