করোনাকালে অজান্তেই গড়ে উঠছে যেসব ভালো অভ্যাস

ঢাকা, রোববার   ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০,   আশ্বিন ১৩ ১৪২৭,   ১০ সফর ১৪৪২

করোনাকালে অজান্তেই গড়ে উঠছে যেসব ভালো অভ্যাস

লাইফস্টাইল ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৪:০৫ ৩ আগস্ট ২০২০  

করোনাভাইরাসের জেরে সবার জীবনেই এসেছে নানা পরিবর্তন। ছবি: সংগৃহীত

করোনাভাইরাসের জেরে সবার জীবনেই এসেছে নানা পরিবর্তন। ছবি: সংগৃহীত

করোনাভাইরাসের তাণ্ডবে দিশেহারা পুরো বিশ্ব। সবার জীবনেই এসেছে নানা পরিবর্তন। আগের মতো বাইরে ঘুরে বেড়ানো, খেতে যাওয়া, বন্ধুদের সঙ্গে আড্ডা কিছুই আর হচ্ছে না। বাইরে যেতে হলেই মুখে মাস্ক, আর সামাজিক দূরত্ব মেনে চলা। এছাড়াও বারবার সাবান পানি দিয়ে হাত ধুচ্ছেন সবাই।

এছাড়া খাবার-দাবারেও এসেছে আমূল পরিবর্তন। ভাজাভুজি আর বিরিয়ানি রেখে ভিটামিন সি, ডি সমৃদ্ধ খাবারেই বেশি ঝুঁকছেন সবাই। আচ্ছা ভেবে দেখেছেন কি? এসব অভ্যাসে অজান্তেই হচ্ছে আপনার উপকার। যা ভবিষ্যতে আপনাকে মুক্তি দেবে নানারকম রোগ ব্যাধি থেকে।

এবার জেনে নিন অজান্তেই যেসব উপকার মিলছে—

* হাত ধোয়ার অভ্যাস চালু থাকলে পেটের অসুখ কম হবে। আমাশয়, ডায়রিয়া, কৃমি, জন্ডিস কিংবা মৌসুমী ফ্লু থেকে রেহাই মিলবে। অন্যান্য সংক্রমণজনিত অসুখের আশঙ্কাও কমবে।

* সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখলে ড্রপলেট সংক্রমণের আশঙ্কা কমবে। এর মধ্যে সাধারণ ফ্লু থেকে যক্ষ্মার মতো জটিল অসুখও আছে।

* মাস্ক বাঁচাবে ফ্লু, যক্ষ্মা, ধুলা বা রেণু সংক্রান্ত পোলেন অ্যালার্জির হাত থেকে। এছাড়া পরোক্ষ ধূমপানের ক্ষতি থেকেও বাঁচাবে মাস্ক।

* মুখ ঢাকা থাকলে পুরু করে সানস্ক্রিন মাখার প্রয়োজন নেই। সূর্যের ক্ষতিকর প্রভাবের হাত থেকে ত্বক এমনিই বাঁচবে। মেকআপ ও পার্লারের খরচও কমবে। আর এতে ত্বকও ভালো থাকবে অনেক বেশি।

* ঘরের রান্না খেলে স্বাস্থ্য ভালো থাকবে। এতে খরচ কমবে, সেইসঙ্গে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়বে বলে অসুখ-বিসুখও হবে কম। কমবে ডাক্তারের প্রয়োজন ও স্বাস্থ্য বাবদ খরচ।

* নিজের কাজ নিজে করার অভ্যাস হয়ে গেলে শরীর যেমন সচল থাকবে, কাজের লোকের উপর অতিরিক্ত নির্ভরশীলতাও কমবে।

* শরীরচর্চার অভ্যাস আজীবন বজায় থাকলে তা সুস্থ রাখবে আপনাকে।

* মনের সমস্যাও সমাধান হবে করোনাকালে। ঘরবন্দী জীবনে অনেকেই সময় কাটাচ্ছেন বই পড়ে, গান শোনা বা পরিবারের সঙ্গে। সৃষ্টিশীল কাজেও ব্যস্ত থাকছেন অনেকে। এতে করে মনের উপর চাপ পরছে কম। সব কিছুর মাঝেই আপনি খুঁজে পেয়ে যাবেন বেঁচে থাকার রসদ। বাকি জীবনটুকু কাটিয়ে দিতে পারবেন এই রসদ নিয়েই।

ডেইলি বাংলাদেশ/এনকে