Alexa কমছে যমুনার পানি, বাড়ছে বাঙালীর

ঢাকা, বুধবার   ২১ আগস্ট ২০১৯,   ভাদ্র ৬ ১৪২৬,   ১৯ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

Akash

কমছে যমুনার পানি, বাড়ছে বাঙালীর

বগুড়া প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৩:৫৭ ২২ জুলাই ২০১৯   আপডেট: ১৩:৫৯ ২২ জুলাই ২০১৯

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

বগুড়ার সারিয়াকান্দিতে যমুনার পানি কমতে শুরু করেছে। তবে বাঙালী নদীর পানি বাড়ায় পৌর এলাকার নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হয়েছে। এতে নতুন করে ফসলের মাঠ প্লাবিত হয়ে ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের সংখ্যা বেড়েছে।

জেলার পৌর এলাকার সারিয়াকান্দি সদর, নারচী, ফুলবাড়ী, কুতুবপুর এবং ভেলাবাড়ী ইউপির নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হয়েছে। এতে বানভাসি মানুষের দুর্ভোগের পাশাপাশি গবাদি পশুর খাদ্য সংকট দেখা দিয়েছে।

বগুড়া পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকোশলী হাসান মাহমুদ জানান, গত ২৪ ঘন্টায় যমুনার পানি কমে বিপদসীমার ৫৫ সেন্টিমিটারে অবস্থান করছে। অপরদিকে বাঙালী নদীর পানি ২৩ সেন্টিমিটার বেড়ে বিপদসীমার ৮০ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

বাঙালী ও করতোয়া নদীর পানি বাড়ায় জেলার সাহেবাড়ি বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধে ভাঙন দেখা দিয়েছে। এতে আতঙ্কে রয়েছেন ২০ গ্রামের মানুষ।

এ ব্যাপারে বগুড়া পানি উন্নয়ন বোর্ডের প্রকৌশলী হাসান মাহমুদ জানান, শঙ্কার কোনো কারণ নেই। বাঁধটি দ্রুত মেরামত করা হবে।

জেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসের তথ্যানুযায়ী, বগুড়ার যমুনা ও বাঙালী নদী বেষ্টিত সারিয়াকান্দি, সোনাতলা ও ধুনট উপজেলার ২০টি ইউপির ১৩৮টি গ্রামের এক লাখ ২৮ হাজার ৯৭০ মানুষ পানিবন্দী রয়েছেন। নদী ভাঙনে তিন উপজেলায় ৬৩০ ঘরবাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বাঁধে আশ্রয় নিয়েছেন দুই হাজার ৯০০ পরিবার। অন্যান্য স্থানে আশ্রয় নিয়েছে ৯২৩ পরিবার। বন্যায় ৭৭টি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও ১২টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে পানি ঢুকেছে। এতে এসব স্কুল বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। বন্যায় ৯ হাজার ৬৫৯ হেক্টর জমির পাট, আউশ ধান, বীজতলা, মরিচ, আখ ও বিভিন্ন সবজি ক্ষেত ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বন্যায় দুই হাজার ৩৩০টি ল্যান্টিন ও দুই হাজার ৭৩৬টি নলকূপ নষ্ট হয়ে গেছে। এর মধ্যে ৯৬টি নলকূপ মেরামত, ২৪টি নলকূপ পুনঃস্থাপন ও ২৭টি ল্যাট্রিন স্থাপন করা হয়েছে। এছাড়া ১০ হাজার ৮৫০ পানি বিশুদ্ধকরণ ট্যাবলেট বিতরণ করা হয়েছে।

এরই মধ্যে বন্যা কবলিত এলাকায় দুই হাজার প্যাকেট শুকনো খাবার, ৪৬৭ মেট্রিক টন চাল ও নগদ ১০ লাখ টাকা বিতরণ করা হয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকেএ

Best Electronics
Best Electronics