Exim Bank
ঢাকা, বৃহস্পতিবার ২৪ মে, ২০১৮
iftar

ককপিটের গ্লাস ভেঙে পাইলট বাইরে

 আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৮:৩০, ১৬ মে ২০১৮

২১০৯ বার পঠিত

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

৩২ হাজার ফুট ওপর দিয়ে উড়ে যাওয়ার সময় হঠাৎ যদি এর সামনের কাচ ভেঙে যায়। এমনই এক ঘটনার জন্ম দিয়েছে চীনের যাত্রীবাহী একটি বিমান। ফলে বিমানটিকে জরুরি ভিত্তিতে অবতরণ করতে হয়েছে।

ঐ সময় উইন্ডস্ক্রিন ভেঙে গেলে বাইরের বাতাসের চাপে বিমানের কো পাইলটের শরীরের প্রায় অর্ধেক বিমানের বাইরে চলে যায়। এর এক পর্যায়ে কো পাইলট বিমানের বাইরে ঝুলতে থাকেন।

পাইলট লিউ চুয়ানজিয়ান স্থানীয় সংবাদমাধ্যমকে বলেন, মাঝ আকাশে উড়ন্ত অবস্থায় ককপিটের ভেতরে হঠাৎ প্রচ- শব্দ হতে থাকে। তিনি বলেন, আমি দেখলাম সামনের কাচটিতে ফাটল ধরেছে। তখন জোরে একটা শব্দ হয়। তার পর দেখি আমার কো পাইলটের অর্ধেকটা বাইরে চলে গেছে।

এর পর বিমানের ভেতরে তাপমাত্রা ও বাতাসের চাপ দ্রুত কমে যেতে শুরু করে। সেই সময় বিভিন্ন যন্ত্রপাতিও নিচে পড়তে থাকে বলে তিনি জানিয়েছেন। সৌভাগ্যবশত কো পাইলটের সিটবেল্ট বাঁধা ছিল। তখন তাকে টেনে ককপিটের ভেতরে নিয়ে আসা হয়।

লিউ বলেন, ককপিটের ভেতরে যা কিছু ছিল তার সবই বাতাসে ভাসতে থাকে। আমি রেডিওতে কিছু শুনতে পাচ্ছিলাম না। বিমানটি এত জোরে কাঁপতে লাগল যে আমি কোনো মিটারও পড়তে পারছিলাম না।

ঘটনার সুত্রপাত যেভাবে।
সিচুয়ান এয়ারলাইনসের এই বিমান চীনের দক্ষিণ পশ্চিমের চংকিং থেকে যাচ্ছিল তিব্বতের লাশা অভিমুখে। বিমানটি তখন মাঝ আকাশে, ৩২ হাজার ফুট ওপরে। যাত্রীদের তখন সকালের খাবার সরবরাহ করা হচ্ছিল। হঠাৎ করেই বিমানটি ২৪ হাজার ফুটে নেমে আসে।

এক যাত্রী চীনা রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যমকে বলেন, আমরা জানতাম না কি হয়েছে। কিন্তু আমরা আতঙ্কিত হয়ে পড়ি। অক্সিজেনের মাস্ক নিচে নেমে আসে। কয়েক সেকেন্ডের জন্য মনে হচ্ছিল যে বিমানটি হঠাৎ করেই নিচের দিকে পড়ে যাচ্ছে। কিছুক্ষণ পর সেটি স্থির হয়ে যায়।

বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, কো পাইলট তার হাতে চোট পেয়েছেন। তার মুখের বিভিন্ন জায়গায় কেটে গেছে। বিমানটি হুট করে নিচে নামতে থাকায় আরও একজন ক্রু তার কোমরে চোট পেয়েছেন। এর পর পাইলট ১১৯ যাত্রীকে নিয়ে বিমানটিকে দক্ষতার সঙ্গে চেংডু শহরের বিমানবন্দরের রানওয়েতে নামিয়ে আনতে সক্ষম হন। যাত্রীদের অনেককে পরে একটি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। তাদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে ছেড়ে দেয়া হয়েছে।

এ ঘটনার পর সোশ্যাল মিডিয়ায় লোকজন পাইলট লিউর প্রশংসা করেছেন। অনেকেই পাইলটকে পুরস্কার দেয়ার দাবি জানান। আবার অনেকে বলছেন, বিমানের ভেতরে নিরাপত্তা বাড়াতে।

একজন লিখেছেন, এ রকম একটি ঘটনা কীভাবে ঘটল? অনুসন্ধান করুন এবং এর জন্য দায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিন। এ ঘটনাটিকে একটি উদাহরণ হিসেবে নিয়ে এ রকম ব্যবস্থা করুন যাতে ভবিষ্যতে আর না ঘটে।

এর আগে যুক্তরাষ্ট্রে উড়ন্ত একটি বিমানের জানালা ভেঙে গেলে ভেতরের একজন যাত্রী বাইরের দিকে চলে যেতে থাকে। তখন তাকে টেনে ধরে রাখা হয়। পরে তার মৃত্যু হয়।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বিমানের সামনের কাচ ভেঙে যাওয়া খুব একটা অস্বাভাবিক কিছু নয়। বজ্রপাত কিংবা কোনো পাখির সঙ্গে আঘাত লেগেও এ রকম হতে পারে। তবে পুরো উইন্ডস্ক্রিন উড়ে যাওয়ার ঘটনা খুবই বিরল।
সূত্র:বিবিসি বাংলা

ডেইলি বাংলাদেশ/সালি

 

সর্বাধিক পঠিত