Alexa এমপিওভুক্তির আশায় দেড় যুগ

ঢাকা, শুক্রবার   ১৫ নভেম্বর ২০১৯,   কার্তিক ৩০ ১৪২৬,   ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

Akash

রায়পুর মহিলা কলেজ

এমপিওভুক্তির আশায় দেড় যুগ

এম.আর সুমন, রায়পুর (লক্ষ্মীপুর) ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১২:৩৮ ৩ নভেম্বর ২০১৯   আপডেট: ১৪:১৩ ৩ নভেম্বর ২০১৯

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

১৭ বছর ধরে বিনা বেতনে শিক্ষার্থীদের পাঠদান করে আসছেন লক্ষ্মীপুরের রায়পুরের একমাত্র মহিলা কলেজের ১৯ শিক্ষক। সর্বশেষ এমপিওভুক্ত প্রতিষ্ঠানের তালিকায় নিজেদের কলেজের নাম দেখবেন এমনটাই আশা ছিল এই কলেজের শিক্ষকসহ সংশ্লিষ্ট সবার। কিন্তু সর্বশেষ তালিকায়ও কলেজের নাম না থাকায় প্রতিষ্ঠানে কর্মরতরা হতাশ হয়ে পড়েছেন। 

৪৯ আসনের মহিলা এমপি সেলিনা ইসলামকে কলেজের সভাপতি তালিকা দেয়া সত্ত্বেও এমপিওভুক্তির তালিকায় স্থান পায়নি প্রতিষ্ঠানটি। এতে সচেতনমহল ও এলাকাবাসী ক্ষোভ প্রকাশ করে শিক্ষামন্ত্রীসহ স্থানীয় এমপিদের হস্তক্ষেপ কামনা করছেন।

কলেজ সূত্রে জানা গেছে, ২০০২ সালে এক একর ১০ শতাংশ জমি নিয়ে সাবেক এমপি আবুল খায়ের ভুঁইয়া পৌর শহরের নতুন বাজার এলাকায় কলেজটি প্রতিষ্ঠা করেন। কলেজটিতে এখন ১৯ জন কর্মরত ও ছয় শতাধিক ছাত্রী অধ্যয়নরত রয়েছে। উপজেলার মধ্যে এটিই একমাত্র মহিলা কলেজ। ২০০৪ সাল থেকে ছাত্রীরা মাধ্যমিক পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে আসছে। পরীক্ষার ফলাফলে একাধিক জিপিএ-৫ সহ পাসের হারও সন্তোষজনক। 

শিক্ষা অধিদফতরের নীতিমালা অনুযায়ী নারী শিক্ষার অগ্রগতি ও উন্নয়নের জন্য প্রত্যেক উপজেলায় অন্তত একটি করে মহিলা কলেজ প্রতিষ্ঠার বিধান থাকলেও বার বার আবেদন করলেও ১৭ বছরে এমপিওভুক্ত হয়নি এ কলেজটি। ফলে  কলেজটির শিক্ষক-কর্মরতদের মধ্যে অসন্তোষ দেখা দিয়েছে।

কলেজের প্রভাষক মাজহারুল আনোয়ার টিপুসহ কয়েকজন জানান, এমপিওভুক্তির আশায় প্রায় দেড় যুগ ধরে শিক্ষক-কর্মচারীরা নামমাত্র সম্মানিতে পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। এই কলেজটি সব যোগ্যতা অর্জন করার পরও সর্বশেষ অক্টোবর মাসে এমপিওভুক্তির তালিকায় স্থান না পাওয়ায় শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসী হতাশ হয়ে পড়েছেন। কলেজটি এমপিওভুক্ত না হওয়ায় আর্থিক অভাব-অনটনের কারণে সমাজের সর্বোচ্চ শিক্ষিত হয়েও শিক্ষকরা সামাজিক মর্যাদা নিয়ে জীবনযাপন করতে পারছেন না।

তারা আরো জানান, প্রতিষ্ঠানটি এমপিওভুক্ত করা হলে শিক্ষার ক্ষেত্রে অগ্রগতি যেমন বাড়বে, তেমনি জেলার মধ্যে নারী শিক্ষার ক্ষেত্রে মহিলা কলেজ একটি অনন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসেবে প্রতিষ্ঠা লাভ করবে।

রায়পুর মহিলা কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ উম্মে হানী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকার শিক্ষাবান্ধব সরকার। বিশেষ করে নারী শিক্ষার উন্নয়নে এই সরকার নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। কিছুদিন আগে এমপিওভুক্তির তালিকায় এই কলেজের নাম না থাকায় আমরা চরম হতাশায় আছি। 

তিনি আরো জানান, রায়পুরে নারী শিক্ষার একমাত্র উচ্চ বিদ্যাপীঠ রায়পুর মহিলা কলেজটিকে এমপিওভুক্ত করার জন্য তিনি সরকারের প্রতি জোর দাবি জানিয়েছেন। দীর্ঘদিন ধরে শিক্ষক-কর্মচারীরা বিনা বেতনে চাকরি করে আসছেন। কলেজটি এমপিওভুক্ত না হওয়ায় শিক্ষক-কর্মচারীরা পরিবার-পরিজন নিয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএস