Alexa এখনো বই পৌঁছায়নি সিলেটে

ঢাকা, সোমবার   ১৯ আগস্ট ২০১৯,   ভাদ্র ৪ ১৪২৬,   ১৭ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

Akash

এখনো বই পৌঁছায়নি সিলেটে

 প্রকাশিত: ১৭:১১ ১৯ ডিসেম্বর ২০১৭   আপডেট: ১৮:৪৮ ১৯ ডিসেম্বর ২০১৭

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

সারাদেশে পাঠ্যবই উৎসব ১জানুয়ারি। এদিন স্কুলে শিশু কিশোরদের হাতে নতুন বই তুলে দেয়া হবে। নতুন বইয়ের আনন্দ নিয়ে বাড়ি ফিরবে তারা। এ মহোৎসবের বাকী আর কয়েকদিন।

কিন্তু এখনো সিলেটের বিভিন্ন স্কুলে শতভাগ বই পৌঁছেনি। বেশিরভাগ স্কুলে কয়েক বিষয়ের বই এলেও কিছু বই একেবারেই আসেনি। অনেক স্কুলেই ২-৪ টি বিষয়ের বই পৌঁছেছে। প্রাথমিকের বই ৯০-৯৫ শতাংশ পৌঁছলেও মাধ্যমিকে তা ৬০-৬৫ শতাংশ।

গোয়াইনঘাট উপজেলার সহকারী শিক্ষা অফিসার রেজাউল ইসলাম বলেন, আমাদের উপজেলায় প্রাক প্রাথমিকের একটি বিষয়ের ছাড়া সব বই পৌঁছে গেছে। ১ জানুয়ারির আগেই আমরা বইটি পেয়ে যাব আশা করছি।

হযরত শাহজালাল (রহ.) আলিম মাদ্রাসার অধ্যক্ষ বলেন, আমাদের মাদ্রাসায় ৩য় ও ৪র্থ শ্রেণির বই একেবারেই পৌঁছেনি। অন্যান্য শ্রেণির বই ৭০-৮০ শতাংশ পৌঁছেছে।

একই কথা বলেছেন, সিটি মডেল স্কুলের প্রধান শিক্ষক আবদুর রাজ্জাক রাজন। তিনি বলেন, আমাদের স্কুলে মাধ্যমিক বইয়ের চাহিদার বেশিরভাগ পৌঁছে গেছে। তবে প্রাথমিকের বই এখনো পৌঁছেনি।

সিলেট জেলা শিক্ষা অফিস ওয়েবসাইট সূত্রে জানা যায়, সিলেটে সর্বমোট মাধ্যমিক বিদ্যালয় ৩০২টি। এর মধ্যে সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয় ৬টি এবং বেসরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয় ২৯৬টি। এবতেদায়ী মাদ্রাসা রয়েছে ৫৩, দাখিল, আলিম, ফাজিল ও কামিল ১৪৪টি। এসএসসি ভোকেশনাল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ১৫ এবং ইংলিশ ভার্সন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ২৪টি।

সিলেট জেলা শিক্ষা অফিস সূত্রে জানা যায়, এসব প্রতিষ্ঠানে মোট বইয়ের চাহিদা রয়েছে ৫৬ লাখ ৮৭ হাজার ৩৯৮টি। এর মধ্যে মাধ্যমিকে ৪২ লাখ ১৯২২৬টি, দাখিলে ৮ লাখ ৪৩০৬, এবতেদায়ীতে ৫ লাখ ৬৩ হাজার ১২৬, এসএসসি (কারিগরি) ৩৮ হাজার ১১৫ এবং ইংরেজি ভার্সনে ৬২ হাজার ৬২৫টি।

দক্ষিণ সুরমার নছিবা খাতুন বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এ এইচ এম ইসরাইল আহমদ বলেন, চাহিদা অনুযায়ী মাধ্যমিকে ৮০ ভাগ বই পৌঁছেছে। প্রাথমিকে এখনো কোনো বই আসেনি।

দি এইডেড হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক ও সিলেট জেলা শিক্ষক সমিতির সচিব শমসের আলী বলেন, আমাদের স্কুলে শতভাগ বই পৌঁছে গেছে। অন্যান্য বিদ্যালয়ের হিসেবটা জানা নেই।

সিলেট জেলা শিক্ষা অফিসার গোলজার আহমদ খান বলেন, সিলেটের বিভিন্ন উপজেলার বেশিরভাগ বই এরইমধ্যে পৌঁছে দেয়া হয়েছে। শতকরা হিসেবে তা ৯০ থেকে ৯৫ ভাগ। কিছু বই এখনো পৌঁছেনি। তবে পৌঁছে শিগগিরই দেয়া হবে।

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর, সিলেট বিভাগীয় উপপরিচালক তাহমিনা খাতুন বলেন, বেশিরভাগ উপজেলায় বই পৌঁছে গেছে। কিছু বাকী রয়েছে, যা নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে পৌঁছে দেয়া হবে।

২০১০ সাল থেকে প্রতিবছর ১ জানুয়ারি বই উৎসব হিসেবে পালন করা হচ্ছে। বিনামূল্য বই বিতরণের এ ধারাবাহিকতা বর্তমানে এক মহোৎসবে পরিণত হয়েছে। প্রথমদিকে বছরের শুরুতে শুধু প্রথম থেকে পঞ্চম শ্রেণি পর্যন্ত প্রত্যেক ক্লাসের ছাত্রদের নতুন একসেট বই দেয়া হতো। এখন তা নবম শ্রেণি পর্যন্ত করা হয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/আজ/এআর

Best Electronics
Best Electronics