Alexa একটি আমের দাম ৫০০ টাকা

ঢাকা, সোমবার   ১৪ অক্টোবর ২০১৯,   আশ্বিন ২৯ ১৪২৬,   ১৪ সফর ১৪৪১

Akash

একটি আমের দাম ৫০০ টাকা

ফিচার ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৫:৪৩ ১৯ মে ২০১৯  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

ফলের রাজা আম। কিন্তু আমের রানী কে হিমসাগর, ল্যাংড়া বা গোলাপখাস নয়, আমের রানী হিসেবে মান্যতা দেয়া হয় নূরজাহানকে। কিন্তু কেন আমের রানী বলা হয় এই নূরজাহানকে আফগানিস্তানের এই আমগাছের প্রজাতি ভারতে কেবল একটি মাত্র স্থানেই পাওয়া যায়। তাও খুবই সামান্য পরিমাণে। মধ্যপ্রদেশের আলিরাজপুর জেলার কাত্থিওয়াড়া অঞ্চলেই একমাত্র দেখা মেলে নূরজাহানের। এই আমের একটার দৈর্ঘ্য এক ফুট পর্যন্ত হতে পারে। এর আঁটির ওজনই ১৫০ থেকে ২০০ গ্রাম। নূরজাহান আমের সংখ্যা এতখানিই সীমিত যে, গাছে থাকা অবস্থাতেই মানুষ এই আমের অগ্রিম বুকিং করে নেন। চাহিদা বাড়লে এক একটা ফলের মূল্য ৫০০ টাকা পর্যন্ত পৌঁছে যায়। 

ইন্দোর থেকে প্রায় ২৫০ কিলোমিটার দূরে কাত্থিওয়াড়াতে এই প্রজাতির আম চাষের বিশেষজ্ঞ ইশাক মশুরী এনডিটিভিকে বলেন, ‘এবার আবহাওয়া অনুকূলে বলে নূরজাহানের বেশি ফলন আশা করা হচ্ছে। নূরজাহান গাছগুলোতে জানুয়ারি মাস থেকেই মুকুল ধরতে শুরু করে এবং ফল জুনের শেষদিকে সম্পূর্ণ পেকে যাবে। এই বার এক একটা ফল গড়ে আড়াই কিলোগ্রামের কাছাকাছি ওজনের হতে পারে। আগে নূরজাহান আমের গড় ওজন হত ৩ দশমিক ৫ থেকে ৩ দশমিক ৭৫ কেজি।’ বিশেষজ্ঞদের মতে, গত এক দশকে মৌসুমী বৃষ্টিপাতের দেরি, অল্প বৃষ্টি, অতি বৃষ্টি এবং আবহাওয়ার অন্যান্য কারণে নূরজাহানের ওজন ক্রমাগত হ্রাস পেয়েছে।

মশুরী বলেন, ‘এর আগে অনেকবারই কাত্থিওয়াড়ার বাইরে অনেক লোক নূরজাহানের কলম রোপন করার চেষ্টা করেছে। কিন্তু গাছ হয়নি। আমের এই বিশেষ প্রজাতি ঋতুর পরিবর্তনে অত্যধিক সংবেদনশীল। এর প্রচুর যত্ন প্রয়োজন।’ মশুরী জানান, গত বছর শিলাবৃষ্টিতে নূরজাহানের মুকুল ঝরে যায়। এই বার নূরজাহানের ভালো ফলন নিয়ে তারা আশাবাদী।