.ঢাকা, শুক্রবার   ২২ মার্চ ২০১৯,   চৈত্র ৭ ১৪২৫,   ১৫ রজব ১৪৪০

উন্নয়নেই স্বপ্ন পূরণ

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি

 প্রকাশিত: ০২:৩২ ১৩ জানুয়ারি ২০১৯   আপডেট: ০২:৩৬ ১৩ জানুয়ারি ২০১৯

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

দৃষ্টিনন্দন ও আধুনিক শহর গড়তে ৮৬ লাখ টাকার উন্নয়নমূলক প্রকল্প হাতে নিয়েছে সুনামগঞ্জ পৌরসভা। পৌরশহরের এমন উন্নয়নে স্বস্তি প্রকাশ করেছে মানুষ।

মেয়র আইয়ুব বখত জগলুলের মৃত্যুর পর তার ভাই নাদের বখত উন্নয়নের দায়িত্ব হাতে নিয়েছেন। আইয়ুব বখতের স্বপ্ন পূরণের দায়িত্ব নিয়েছেন মেয়র নাদের বখত।

এরইমধ্যে পৌর এলাকার সড়ক ও ড্রেনেজ ব্যবস্থা সংস্কারে হাতে নেয়া হয়েছে ৮৬ লক্ষ ১৫ হাজার ৭৪৭ টাকার ১৭টি প্রকল্প। এর মধ্যে ষোলঘর ও বলাকা এলাকার সড়ক সংস্কারে দুই লাখ ৬৫ হাজার টাকা, নবীনগরের সড়ক সংস্কারে তিন লাখ ৬৫ হাজার টাকা, বিলপাড় মসজিদ রোডের সড়ক সংস্কারে চার লাখ ৪০ হাজার টাকা, হাসন নগরের সড়ক সংস্কারে  তিন লাখ ৫০ হাজার টাকা, কেজাউড়ার সড়ক সংস্কারে চার লাখ ২৪ হাজার টাকা, সুলতানপুর ও কলেজ রোডের সড়ক সংস্কারে চার লাখ ১০ হাজার টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।

এছাড়া রায়পাড়ায় ড্রেন সংস্কারে ছয় লাখ ৭৮ হাজার টাকা, ডিএস রোড থেকে ষোলঘরের সড়ক সংস্কারে ১৫ লাখ ৮৭ হাজার টাকা, উকিলপাড়ার ড্রেন সংস্কারে চার লাখ ৬০ হাজার টাকা, নতুনপাড়ার সড়ক সংস্কারে পাঁচ লাখ ৩২ হাজার টাকা, পশ্চিম নতুনপাড়ার সড়ক সংস্কারে তিন লাখ ৬১ হাজার টাকা, বড়পাড়া ও মল্লিকপুরে বিএসসিআইসি থেকে সড়ক সংস্কারে দুই লাখ ১৫ হাজার টাকা, মল্লিকপুরের সিসি রোডের উন্নয়নে দুই লাখ ১৩ হাজার টাকা, মল্লিকপুরের অ্যাডভোকেট নোমানের বাসা সড়ক থেকে মাইজুদ্দিনের বাড়ি পর্যন্ত সড়ক সংস্কারে দুই লাখ ৯৭ হাজার টাকা, কালিপুরের সড়ক সংস্কারে ১৫ লাখ ৬৯ হাজার টাকার দরপত্র দেয়া হয়েছে।

এরইমধ্যে বিলপাড় মসজিদ রোড, রায়পাড়া ড্রেন সংস্কার, ডিএস রোড ট্রাফিক পয়েন্ট থেকে ষোলঘর সড়ক সংস্কার, উকিলপাড়ার ড্রেন সংস্কারের কাজ শুরু করা হয়েছে।

উকিলপাড়ার বাসিন্দা জসিম উদ্দিন বলেন, এই এলাকার রাস্তাঘাটের অবস্থা ভালো ছিল না। এখন কাজ শুরু হওয়ায় আমরা স্বস্তি পেয়েছি। আশা করি কাজগুলো ঠিকঠাক শেষ হবে।

নবীনগরের বাসিন্দা সুমন মিয়া বলেন, সড়কের উন্নয়নের জন্য টেন্ডার পাস হয়েছে। আমাদের এলাকার
সড়কের অবস্থা খুবই খারাপ। সামান্য বৃষ্টি হলেই পানি জমে যায়। ছোট বড় অনেকগুলো খানাখন্দ সৃষ্টি হয়েছে। মানসম্মতভাবে কাজ হলেই আমরা খুশি।

সুনামগঞ্জ পৌরসভার নির্বাহী প্রকৌশলী মীর মোশারফ হোসেন বলেন, পৌর শহরের উন্নয়নে আমরা ব্যাপক কাজ হাতে নিয়েছি। এরইমধ্যে টেন্ডার করে দিয়েছি। অনেকগুলো কাজ শুরু হয়েছে। ফেব্রুয়ারির মধ্যে ১৭টি প্রকল্পের কাজ শেষ হবে। কাজ শেষ হলে পৌরবাসীর আর কোন সমস্যা থাকবে না।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর