Alexa উদ্বোধনের আগেই দেবে গেছে কোটি টাকার গণমিলনায়তন

ঢাকা, বুধবার   ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০,   ফাল্গুন ৭ ১৪২৬,   ২৫ জমাদিউস সানি ১৪৪১

Akash

উদ্বোধনের আগেই দেবে গেছে কোটি টাকার গণমিলনায়তন

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০২:৩৩ ২৯ জানুয়ারি ২০২০  

ছবি : ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি : ডেইলি বাংলাদেশ

উদ্বোধনের আগেই দেবে গেছে দেড় কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত সুনামগঞ্জের শাল্লার গণমিলনায়তন। 

নির্মাণের দুই বছর পর গণমিলনায়তনটির এমন দুরবস্থা। ফলে এটি ব্যবহার করতে ভয় পাচ্ছেন স্থানীয়রা। 

২০১৫ সালের ৩ সেপ্টেম্বর থেকে শাল্লা উপজেলা পরিষদ ও গণমিলনায়তন ভবন দুটি’র জয়েন্ট বেঞ্চারে কাজ শুরু করে এলজিইডি’র ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান জেবি,কাজী সিরাজুল ইসলাম ও মেসার্স আর এস কনস্ট্রাকশন। ভবন দুটি’র প্রাক্কলিত ব্যয় ৫কোটি ২৭ লাখ ৫৭ হাজার ৩১৮ টাকা নির্ধারণ হলেও পরে বিল করা হয় ৫ কোটি ৪৬ লাখ ৯ হাজার ২৮ টাকা। এরমধ্যে ৮০ ফুট দৈঘ্য ও ৬০ ফুট প্রস্থের চারতলা উপজেলা পরিষদ ভবন এবং ৫৪ ফুট দৈর্ঘ্য এবং ৪০ ফুট প্রস্থের এক তলা গণমিলনায়তন নির্মাণ করা হয়। গণমিলনায়তনের বরাদ্দ ছিল প্রায় দেড় কোটি টাকা। ২০১৬ সালের ৩ ডিসেম্বর ভবন দুটির কাজ শেষ হওয়ার কথা থাকলেও ২০১৭ সালের শেষ দিকে ভবন দুটির কাজ শেষ হয়।

ছবি : ডেইলি বাংলাদেশ

এই দুটি ভবনের উদ্বোধন এখনো হয় নি। তবে ভবনগুলোর ব্যবহার শুরু হয়েছে দুই বছর আগে থেকেই।

গত ৬ মাস ধরে শাল্লা গণমিলনায়তন ভবন দেবে যাচ্ছে। ভবনের দেয়াল থেকে বারান্দা আলাদা হয়ে গেছে। মূল ভবনের একটি দেয়াল ফেটে গেছে। দেয়ালটি ৬ ইঞ্চি পরিমাণ দেবে গেছে। ১৮টি পিলার মাটির উপরে শূন্যে দাঁড়িয়ে আছে। গণমিলনায়তনের মঞ্চ ও দেবে যাচ্ছে।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি আব্দুস ছত্তার বলেন, গর্ত ভরাট করে ভবন হয়েছে। নির্মাণ কাজেও ত্রুটি হতে পারে। না হয় এতো বড় ফাটল দেখা দিতো না।

শাল্লা উপজেলা প্রকৌশল অফিসে কর্মরত উপসহকারী প্রকৌশলী নুরুজ্জামান বলেন, আমি আসার আগে ভবনের কাজ শেষ হয়েছে। বিল জামানত দুটোই ঠিকাদার নিয়ে গেছেন। আমি এর বেশি কোনো তথ্য দিতে পারবো না।

শাল্লার উপজেলা প্রকৌশলী’র অতিরিক্ত দায়িত্ব পালনকারী দিরাই উপজেলা প্রকৌশলী মো. ইফতেখার হোসেন জানান, ভবনটি দেবে যাবার বিষয়টি তাকে কেউ জানায়নি। তিনি সরেজমিনে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।

শাল্লা উপজেলা চেয়ারম্যান আলমিন চৌধুরী বলেন, মিলনায়তনের চতুর্দিকের বারান্দা ও মঞ্চ দেবে গেছে। ফাটল অংশে একবার সংস্কার করা হয়েছে। সেই অংশে আবার ফাটল ধরেছে। ভবনটি ঝুঁকিপূর্ণ কী না তা দেখা জরুরি।

সুনামগঞ্জের শাল্লায় বড় কোনো অনুষ্ঠান করার মিলনায়তন না থাকায় স্থানীয় জনগণের দাবি’র প্রেক্ষিতে শাল্লার প্রয়াত এমপি সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের প্রচেষ্টায় শাল্লা উপজেলা পরিষদ ভবন ও গণমিলনায়তনের বরাদ্দ হয়। এই ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করে গেছেন সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ