ঈশ্বরদীতে চাঁদাবাজির প্রতিবাদে বিক্ষোভ

.ঢাকা, বুধবার   ২৪ এপ্রিল ২০১৯,   বৈশাখ ১০ ১৪২৬,   ১৮ শা'বান ১৪৪০

ঈশ্বরদীতে চাঁদাবাজির প্রতিবাদে বিক্ষোভ

ঈশ্বরদী(পাবনা) প্রতিনিধি

 প্রকাশিত: ১৪:১৫ ৯ জানুয়ারি ২০১৯   আপডেট: ১৪:১৫ ৯ জানুয়ারি ২০১৯

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

পাবনার ঈশ্বরদীতে শিল্প ও বণিক সমিতির সভাপতি শফিকুল ইসলাম বাচ্চুর বিরুদ্ধে ঈশ্বরদী বাজারে চাঁদাবাজির অভিযোগ করেছেন সাধারণ ব্যবসায়ীরা। 

চাঁদা না দেয়ায় তাপস কুমার সাহা নামে এক মিষ্টি ব্যবসায়ীকে তার দোকানে গিয়ে মঙ্গলবার রাতে লাঞ্ছিত করে প্রাণনাশের হুমকি দেন তিনি। এ ঘটনা জানাজানি হলে ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেন বাজারের সাধারণ ব্যবসায়ীরা। এর প্রতিবাদে বুধবার বিক্ষোভ মিছিল ও পথসভা করেছে সাধারণ ব্যবসায়ী ও হিন্দু সম্প্রদায়। ঈশ্বরদী বাজারের প্রথম গেট সংলগ্ন রাস্তায় এসব কর্মসূচি পালন হয়।

বিক্ষোভ মিছিল চলাকালে অভিযুক্ত শিল্প ও বণিক সমিতির সভাপতি শফিকুল ইসলাম বাচ্চু ও সহ-সভাপতি ইউনুছ আলী মিন্টু একদল সন্ত্রাসী এনে বিক্ষোভ মিছিল ভঙ্গ করে দিলে বিক্ষোভকারীরা শহরের কলেজ রোডে ঠাকুরবাড়ি মন্দির প্রাঙ্গনে প্রতিবাদ সভা করে। 

প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য দেন- বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ ঈশ্বরদী উপজেলা সভাপতি সুনিল কুমার চক্রবর্তী, যুগ্ম সম্পাদক মিলন কর্মকার, বাংলাদেশ ছাত্র যুব ঐক্য পরিষদ ঈশ্বরদী উপজেলা সভাপতি তাপস কুমার সাহা, সাধারণ সম্পাদক অনন্ত কর্মকার, দই  ব্যবসায়ী শ্রী দয়াল ঘোষ, হিন্দু বৌদ্ধ খৃষ্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সুকুমার চক্রবর্তী, জাতীয় আদিবাসী পরিষদ উপজেলা সভাপতি মদন দাস, বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের পৌর শাখার সভাপতি বাবু পান্ডে, হিন্দু মহাজোটের ঈশ্বরদী শাখার সভাপতি উত্তম কুমার সাহা, আদিবাসী ছাত্র ঐক্য পরিষদ পাবনা জেলা সভাপতি মিথুন রবি দাস ও হরিজন সম্প্রদায় উপজেলা সভাপতি মনি বাঁশফোর প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, অফিস করার নামে প্রায়ই শিল্প ও বণিক সমিতির সভাপতি শফিকুল ইসলাম বাচ্চু বাজারের ছোট-বড় বিভিন্ন ব্যবসায়ীদের কাছে চাঁদাবাজি করেন। কয়েকদিন আগে নবিন ফ্যাশনের মালিক রবিউন নবির নিকট থেকে জোরপূর্বক ১০ হাজার টাকা চাঁদা নেন তিনি। মঙ্গলবার রাতে বাজারের পাল মিষ্টান্ন ভান্ডারে গিয়ে মালিক তাপস কুমার সাহার থেকে একই কথা বলে চাঁদা চাইলে তিনি দিতে অস্বীকার করেন। এসময় তাকে বুধবার সকালের মধ্যে চাঁদা পৌঁছে না দিলে দোকান ভাংচুর ও ব্যবসা বন্ধ করে দেয়ার হুমকি দেন বলে অভিযোগ করেন তাপস। একে একে অসংখ্য ব্যাবসায়ীরা সেখানে জড়ো হয়ে তাদের নিকটও চাঁদা চাওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করেন। এসময় ব্যবসায়ীরা ‘এই চাঁদাবাজ সভাপতির অপসারণ চাই’ বলে স্লোগান দেন। 

তাপস কুমার সাহাকে হুমকি দেয়ার কথা অস্বীকার করে শফিকুল ইসলাম বাচ্চু বলেন, শিল্প ও বণিক সমিতির নতুন অফিস করা হচ্ছে সে জন্য ব্যবসায়ীদের নিকট সহযোগিতা চাওয়া হয়েছে।      

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএম