Alexa ইসলামপুর-দেওয়ানগঞ্জ বন্যানিয়ন্ত্রণ বাঁধ নির্মাণে স্থবিরতা

ঢাকা, শুক্রবার   ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০,   ফাল্গুন ১৫ ১৪২৬,   ০৪ রজব ১৪৪১

Akash

ইসলামপুর-দেওয়ানগঞ্জ বন্যানিয়ন্ত্রণ বাঁধ নির্মাণে স্থবিরতা

ইসলামপুর (জামালপুর) প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৭:৪০ ২২ জানুয়ারি ২০২০  

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

বরাদ্দ সংকটে যমুনার ইসলামপুর-দেওয়ানগঞ্জ বন্যানিয়ন্ত্রণ বাঁধ নির্মাণে স্থবিরতায় এলাকাবাসীর মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে। 

জানা যায়, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের অর্থায়নে জামালপুরের ইসলামপুরে মোরাদাবাদ-দেওয়ানগঞ্জ সীমানায় প্রায় তিন কিলোমিটার বন্যানিয়ন্ত্রণ বাঁধ নির্মাণে ৮০ মেট্রিক টন চাল বরাদ্দ দেয়া হয়। এরই মধ্যে বাঁধের প্রায় ১২০০ মিটার কাজ সম্পন্ন হলেও বরাদ্দের অভাবে ১৮০০ মিটার কাজ বন্ধ রয়েছে। ফলে যমুনার তীরবর্তী কয়েকটি গ্রামের মানুষ বন্যার আতঙ্কে রয়েছেন। 

বুধবার বন্যার বিপদসীমা সম্পর্কিত উপজেলা পর্যায়ে মতবিনিময় সভায় বরাদ্দের বিষয়ে আলোকপাত হয়। ইউএনও মিজানুর রহমানের সভাপতিত্বে উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে ও ইসলামিক রিলিফ বাংলাদেশের সহযোগিতায় এ সভা হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন জামালপুর পাউবো’র নির্বাহী প্রকৌশলী আবু সাইদ, বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্রের নির্বাহী প্রকৌশলী আরিফুজ্জামান ভূইয়া প্রমুখ। 

স্থানীয় এলাকাবাসী জানান, বাঁধটির কাজ সম্পন্ন না হলে ২০১৭ সালের বন্যার চেয়েও আগামী বন্যায় বেশি ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা রয়েছে। পাথর্শী ইউপি চেয়ারম্যান ইফতেখার আলম বাবুল জানান, বাঁধটি সম্পন্ন না হলে ইউনিয়নে ব্যাপক ক্ষতি হবে। 

পিআইও মেহেদী হাসান টিটু জানান, যমুনার তীরবর্তী মানুষদের বন্যার কবল থেকে বাঁধ রক্ষায় আরো ৬০ মেট্রিক টন চাল বরাদ্দ পাওয়া গেছে। যা প্রয়োজনের তুলনায় অপ্রতুল।  

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকে