ইসরাইলি ক্ষেপণাস্ত্র ব্যর্থ, চুক্তি বাতিল করলো ভারত   
SELECT bn_content.*, bn_bas_category.*, DATE_FORMAT(bn_content.DateTimeInserted, '%H:%i %e %M %Y') AS fDateTimeInserted, DATE_FORMAT(bn_content.DateTimeUpdated, '%H:%i %e %M %Y') AS fDateTimeUpdated, bn_totalhit.TotalHit FROM bn_content INNER JOIN bn_bas_category ON bn_bas_category.CategoryID=bn_content.CategoryID INNER JOIN bn_totalhit ON bn_totalhit.ContentID=bn_content.ContentID WHERE bn_content.Deletable=1 AND bn_content.ShowContent=1 AND bn_content.ContentID=118921 LIMIT 1

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ০৬ আগস্ট ২০২০,   শ্রাবণ ২২ ১৪২৭,   ১৫ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

Beximco LPG Gas

ইসরাইলি ক্ষেপণাস্ত্র ব্যর্থ, চুক্তি বাতিল করলো ভারত   

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২১:০৮ ১২ জুলাই ২০১৯  

ছবি- সংগ্রহীত

ছবি- সংগ্রহীত

একজন মানুষের পক্ষে সহজে বহনীয় ট্যাংক বিধ্বংসী গাইডেড ক্ষেপণাস্ত্র নির্মাণের কথা বলে ইসরাইলের সঙ্গে পাঁচশ বিলিয়ন ডলারের একটি চুক্তি বাতিল করেছে ভারত।

গত বছর ইসরাইলের স্পাইক অ্যান্টি-ট্যাংক গাইডেড মিসাইলের(এটিজিএম) পরীক্ষা চালিয়েছে ভারতীয় সেনাবাহিনী। কিন্তু তাদের পরীক্ষায় পাশ করতে পারেনি ইসরাইলি ট্যাংক।

এতে রাফায়েলের সঙ্গে পাঁচশ বিলিয়ন ডলারের চুক্তি বাতিল করা হয়েছে।-খবর স্পুটনিকের

এ সংশ্লিষ্ট একটি সূত্র জানায়, গত গ্রীষ্মের ওই পরীক্ষার সময় বিভিন্ন ক্ষেত্রে ওই ক্ষেপণাস্ত্রটির পরীক্ষা ব্যর্থ হয়েছে। এর আগে খবরে জানা গেছে, ৩২১টি লাঞ্চার, আট হাজার ৩৫৬টি ক্ষেপণাস্ত্র ও ১৫টি সিমিউলেটর ক্রয় চুক্তি বাতিল করা হয়েছে।

ভারতীয় প্রতিরক্ষা গবেষণা ও উন্নয়ন সংস্থা(ডিআরডিও) দেশীয়ভাবে অস্ত্র উৎপাদনের প্রতি জোর দিয়েছে। তারা ২০২০ সাল নাগাদ একজন মানুষের পক্ষে বহনীয় তৃতীয় প্রজন্মের ট্যাংকবিধ্বংসী গাইডেড ক্ষেপণাস্ত্র নির্মাণের প্রত্যয়ের কথা জানিয়েছে।

২০১৮ সালের ফেব্রুয়ারিতে ভারতীয় প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বলেছে, এটিজিএম ব্যবস্থার প্রযুক্তি হস্তান্তরের কোনো প্রয়োজন নেই। তখনকার প্রতিরক্ষামন্ত্রী মনোহার পারিকরের গঠন করা একটি বিশেষজ্ঞ প্যানেলের সুপারিশে এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছিল।

পরবর্তী সময়ে ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী বেনইয়ামিন নেতানিয়াহুর নয়াদিল্লি সফরের সময় তাকে বিষয়টি জানানো হয়।চলতি বছরের মার্চে ভারতের ন্যাগ এটিজিএমের সফল পরীক্ষা হয়েছে। নিজস্ব প্রযুক্তির এই সফলতায় ভারতীয় সেনাবাহিনীর ভেতর নতুন প্রত্যাশা জাগিয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমএস