ইরানের সঙ্গে যুদ্ধ চায় না যুক্তরাষ্ট্র: পম্পেও

ঢাকা, রোববার   ১৯ মে ২০১৯,   জ্যৈষ্ঠ ৫ ১৪২৬,   ১৪ রমজান ১৪৪০

Best Electronics

ইরানের সঙ্গে যুদ্ধ চায় না যুক্তরাষ্ট্র: পম্পেও

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৭:৩৪ ১৫ মে ২০১৯  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

যুক্তরাষ্ট্র ইরানের সঙ্গে কোনো যুদ্ধে জড়াতে চায় না বলে মন্তব্য করেছেন মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রী মাইক পম্পেও। দু’দেশের মধ্যকার চলমান উত্তেজনা ক্রমাগত বৃদ্ধি পাওয়ার প্রেক্ষাপটে এ মন্তব্য করেছেন তিনি।

রাশিয়া সফররত মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, যুক্তরাষ্ট্র চায় ইরান যেন একটি ‘স্বাভাবিক দেশের’ মতো আচরণ করে। তিনি সতর্ক করে বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের স্বার্থ আক্রান্ত হলে তারা সমুচিত জবাব দেবে।- খবর বিবিসি

এরইমধ্যে ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতোল্লাহ আলী খামেনি বলেছেন, ইরান এবং যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে কোনো যুদ্ধ হবে না।

গেল সপ্তাহে উপসাগরীয় অঞ্চলে দু’টি বিমানবাহী রণতরী এবং বোমারু যুদ্ধ বিমান মোতায়েন করেছে যুক্তরাষ্ট্র।
রাশিয়া সফরকালে দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী সার্গেই ল্যাভরভের সঙ্গে বৈঠক করেন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও। তিনি বলেন, নীতিগতভাবে যুক্তরাষ্ট্র ইরানের সঙ্গে কোনো যুদ্ধ চায় না।

দুই পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বৈঠকে বেশ কয়েকটি বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী রাশিয়াকে আহ্বান জানিয়েছেন, তারা যাতে ভেনেজুয়েলার প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরোর উপর থেকে সমর্থন প্রত্যাহার করে।
জবাবে রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সার্গেই ল্যাভরভ সেটি নাকচ করে দিয়েছেন।

ল্যাভরভ বলেন, যেভাবে নিকোলাস মাদুরোকে হুমকি দেয়া হচ্ছে সেটি ‘অগণতান্ত্রিক’।

এদিকে ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ খামেনির বক্তব্য দেশটির রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে প্রচারিত হয়েছে। তিনি বলেন, প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প যে পরমাণু চুক্তি বাতিল করেছেন সেটির বদলে ভিন্ন কোনো চুক্তির বিষয়ে আমেরিকার সঙ্গে আপস করবে না ইরান।

খামেনি বলেন, আমরা যুদ্ধ চাই না, তারাও যুদ্ধ চায় না।

সোমবার ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি দেশটির ধর্মীয় নেতাদের সঙ্গে এক বৈঠক করেছেন। সে বৈঠকে রুহানি বলেন, ইরানকে ভয় দেখানোর সাধ্য কারো নেই। ইরান এ সংকট কাটিয়ে উঠবে এবং মাথা উঁচু করে টিকে থাকবে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

চলতি সপ্তাহে পারস্য উপসাগরের একটি গুরুত্বপূর্ণ এলাকায় সৌদি আরব এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতের মোট চারটি তেলবাহী জাহাজে রহস্যজনক ‘অন্তর্ঘাতী আক্রমণের’ ঘটনা ওই অঞ্চলে তীব্র উত্তেজনা সৃষ্টি করেছে।

মার্কিন তদন্তকারীরা ধারণা করছেন- এর পেছনে রয়েছে ইরান বা ইরানের সমর্থিত কোনো গোষ্ঠী। অবশ্য এ ধারণার পক্ষে কোনো তথ্যপ্রমাণ দেয়া হয়নি।

ডেইলি বাংলাদেশ/মাহাদী/এসআই

Best Electronics