ইরানের পারমাণবিক স্থাপনায় আগুন
SELECT bn_content.*, bn_bas_category.*, DATE_FORMAT(bn_content.DateTimeInserted, '%H:%i %e %M %Y') AS fDateTimeInserted, DATE_FORMAT(bn_content.DateTimeUpdated, '%H:%i %e %M %Y') AS fDateTimeUpdated, bn_totalhit.TotalHit FROM bn_content INNER JOIN bn_bas_category ON bn_bas_category.CategoryID=bn_content.CategoryID INNER JOIN bn_totalhit ON bn_totalhit.ContentID=bn_content.ContentID WHERE bn_content.Deletable=1 AND bn_content.ShowContent=1 AND bn_content.ContentID=191607 LIMIT 1

ঢাকা, সোমবার   ১০ আগস্ট ২০২০,   শ্রাবণ ২৬ ১৪২৭,   ১৯ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

Beximco LPG Gas

ইরানের পারমাণবিক স্থাপনায় আগুন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৯:০০ ২ জুলাই ২০২০   আপডেট: ১৯:০৪ ২ জুলাই ২০২০

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

ইরানের নাতাঞ্জ পারমাণবিক স্থাপনায় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। তবে এতে কোনো হতাহত হয়নি। স্থাপনাটির কর্মকান্ড যথারীতি অব্যাহত রয়েছে বলে জানা গেছে।

বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে দেশটির কর্মকর্তারা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

বিবৃতিতে বলা হয়, নাতাঞ্জ ফুয়েল সমৃদ্ধকরণ কেন্দ্র (এফইপি) ইরানের প্রধান ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণ স্থাপনা। জাতিসংঘের পারমাণবিক পর্যবেক্ষণ সংস্থা দ্বারা ইরানের যে কয়টি স্থাপনায় নজরদারি করা হয় এই স্থাপনাটি সেগুলোর মধ্যে অন্যতম।

ইরানের আণবিক শক্তি সংস্থা জানিয়েছে, রাজধানী তেহরানের দক্ষিণাঞ্চলের ইসফাহান প্রদেশের ভূগর্ভস্থ নাতাঞ্জ পারমাণবিক স্থাপনায় ওই অগ্নিকাণ্ড হয়। সংস্থাটি পরে একটি ছবি প্রকাশ করে যেখানে দেখা যায় যে, স্থাপনাটির একটি শেড আংশিকভাবে পুড়ে গেছে।

সংস্থাটির মুখপাত্র বেহরুজ কামালবন্দি দেশটির রাষ্ট্রীয় টিভিকে জানিয়েছেন, যে শেডের ক্ষতি হয়েছে আমরা সেটির তদন্ত করছি। তবে কোনো হতাহতের ঘটনা নেই। স্থাপনাটি নিষ্ক্রিয় ছিলো। ওখানে কোনো তেজস্ক্রিয় পদার্থ ছিলো না। এছাড়া ঘটনাস্থলে কোনো কর্মীও ছিলো না।

নাতাঞ্জ শহরের গভর্নর রমজান আলী ফেরদৌসি দেশটির আধা-সরকারি সংবাদ সংস্থা তাসনিম নিউজ এজেন্সিকে জানান, অগ্নিনির্বাপন কর্মীদের ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়েছে। তবে অগ্নিকাণ্ডের কারণ সম্পর্কে বিস্তারিত কোনো তথ্য দিতে পারেননি তিনি। ইরানের আণবিক শক্তি সংস্থার একদল বিশেষজ্ঞ পারমাণবিক ওই স্থাপনাটির অগ্নিকাণ্ডের কারণ জানতে তদন্ত শুরু করেছেন বলেও জানান তিনি।

সূত্র- রয়টার্স

ডেইলি বাংলাদেশ/এসএমএফ