Alexa ‘ইনশাল্লাহ’ বয়সের তফাতে প্রেমের বাধা নেই!

ঢাকা, মঙ্গলবার   ২৩ জুলাই ২০১৯,   শ্রাবণ ৮ ১৪২৬,   ১৯ জ্বিলকদ ১৪৪০

‘ইনশাল্লাহ’ বয়সের তফাতে প্রেমের বাধা নেই!

বিনোদন ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০৯:১৬ ২৭ জুন ২০১৯  

সালমান খান এবং আলিয়া ভাট

সালমান খান এবং আলিয়া ভাট

সঞ্জয় লীলা বানসালী আপাতত ব্যস্ত রয়েছেন তার আগামী ছবি ‘ইনশাল্লাহ’ নিয়ে। আর এ ছবিতে সালমান খান এবং আলিয়া ভাট প্রথম বার জুটি বেঁধচ্ছেন।

এদিকে সঞ্জয়ের সঙ্গে আলিয়ারও এটি প্রথম কাজ। ভারতীয় গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবরে, আয়ারল্যান্ড এবং মিয়ামির সমুদ্র সৈকতের বিভিন্ন লোকেশনে ছবির শুটিং করবেন পরিচালক।

সাধারণত বানসালীর ছবি মানেই বিরাট সেট, জাঁকজমকের চূড়ান্ত হয়। কিন্তু এবার তিনি রিয়্যাল লোকেশনেই শুটিং করার কথা ভেবেছেন। আর ‘ইনশাল্লাহ’ একেবারেই তরুণ দর্শকের কথা ভেবে বানাতে চলেছেন পরিচালক। 

তবে কাস্টিং ঘোষণা হওয়ার পরে আলিয়া এবং সালমানের বয়সের ব্যবধান নিয়ে একটা চর্চা শুরু হয়েছিল। কিন্তু প্রযোজনা সংস্থার তরফ থেকে জানানো হয়েছে, চিত্রনাট্য এমনভাবেই লেখা যেখানে বয়সের ব্যবধানটা যুক্তিপূর্ণ। 

এদিকে, ‘ইনশাল্লাহ’য় সালমানের চরিত্রটি এক মাঝবয়সি ব্যবসায়ীর। চরিত্রটির বয়স হলেও মনের দিক থেকে সে এক জন সজীব তরুণ। দারুণ সু-পুরুষ, স্টাইলিশ সানগ্লাস আর ডিজাইনার জ্যাকেট পরেই চরিত্রটিতে বেশি দেখা যাবে। তবে সে প্রেমে বা কমিটমেন্টে বিশ্বাস করে না। 

এছাড়া, আলিয়ার চরিত্রটি আবার মধ্য কুড়ির এক যুবতীর, যে অভিনেত্রী হতে চায়। সঞ্জয় ঠিক করেছেন, বারাণসী, হৃষীকেশ বা হরিদ্বারের মধ্যে কোনো জায়গার মেয়ে হিসেবে তাকে দেখানো হবে। চরিত্রটি প্রেমে বিশ্বাসী। সালমানের চরিত্রের বাবা তার সম্পত্তির মালিকানা ছেলেকে দিতে চায় একটি শর্তের বিনিময়ে, ছেলেকে প্রেমে পড়তে হবে। এই প্রেমের অভিনয় করার জন্যই আলিয়ার চরিত্রটির এন্ট্রি হয়। তারপরে দু’জন কীভাবে মন দেয়া-নেয়া করে, সেটাই গল্পের সারমর্ম। 

তবে এই গল্পের সঙ্গে অনেকেই মিল পাচ্ছেন সালমানের একটি পুরনো ছবির সঙ্গে। ঊর্মিলা মাতণ্ডকরের সঙ্গে সেই ছবির নাম ছিল ‘জানম সমঝা করো’। এই ছবিতেও ভাইজানের চরিত্রটি ধনী এবং ঊর্মিলা বার-গায়িকার ভূমিকায়। প্রেমের নাটক করতে গিয়েই তারা একে অপরকে ভালবেসে ফেলে। ‘ইনশাল্লাহ’ পুরনো ছবির অনুপ্রেরণাতেই বানানো কি না, সেই জল্পনাই চলছে। 

ডেইলি বাংলাদেশ/টিএএস