ইউটিউবে সবচেয়ে পপুলার সার্চ “হাউ টু কিস”

ঢাকা, সোমবার   ১৭ জুন ২০১৯,   আষাঢ় ৩ ১৪২৬,   ১২ শাওয়াল ১৪৪০

ইউটিউবে সবচেয়ে পপুলার সার্চ “হাউ টু কিস”

সৌমিক অনয়  ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৩:০১ ১০ মার্চ ২০১৯  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

গুগলের পরপরই পৃথিবীর সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত ওয়েবসাইটগুলোর একটি ইউটিউব। রোজকার সমস্যার সহজ সমাধান খোঁজা থেকে শুরু করে কোনো পণ্যের রিভিউ, আবার পড়ালেখা থেকে শুরু করে সহজ বিনোদন সকল কাজেই আমরা ইউটিউব ব্যবহার করে থাকি। জাভেদ করিম, স্টিভ চ্যান এবং চ্যাড হার্লি দ্বারা প্রতিষ্ঠিত ইউটিউব পৃথিবীর সর্ববৃহৎ এবং সবথেকে জনপ্রিয়  ভিডিও লাইব্রেরি। তো জেনে আসা যাক এই সর্ববৃহৎ ভিডিও শেয়ারিং প্লাটফর্ম সম্পর্কে অজানা সব তথ্য-

১. ইউটিউব ২০০৫ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি অর্থাৎ ভ্যালেন্টাইনস ডে এর দিন ইউটিউব প্রতিষ্ঠা লাভ করে। 

২. ইউটিউবের প্রতিষ্ঠাতারা আসলে পে-পাল এর ইঞ্জিনিয়ার ছিলেন এবং তারা ইউটিউবকে একটি ভিডিও ডেটিং সাইট হিসেবে প্রতিষ্ঠিত লাভ করতে চেয়েছিল। 

৩. পে- পালকে যখন এমাজন কিনে নিয়েছিল তখন এমাজন থেকে পে-পালের কর্মকর্তাদের যে এক্সট্রা বোনাস দিয়েছিল তা থেকেই পে পাল এর তিন কর্মকর্তা ইউটিউব প্রতিষ্ঠা করেন। 

৪. ইউটিউব তার বর্তমান নাম পাবার পূর্বে এর নাম ছিল “টিউন ইন হুক আপ”।

৫. প্রতিষ্ঠার মাত্র ১৮ মাসের মাথায়ই গুগল ইউটিউবকে ১ দশমিক ৬৫ বিলিয়ন ডলারে কিনে নেয়। 

৬. বর্তমানে ইউটিউব ব্যবহারকারীর সংখ্যা প্রায় ১ বিলিয়ন যা ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের তিন ভাগের এক ভাগ। 

৭. ইউটিউব লস এঞ্জেলেসে একটি প্রোডাকশন স্পেস তৈরি করে যেখানে যেকোন ইউটিবার ফ্রীতে  শুটিং করতে পাড়বে যদি তার ১০ হাজার বা তার অধিক ইউটিউব সবসক্রাইবার থাকে। 

৮. প্রতি মিনিটে ইউটিউবে প্রায় ১০০ ঘন্টার ভিডিও আপলোড করা হয়। 

৯. গুগলের পরেই ইউটিউব পৃথিবীর সর্ববৃহৎ সার্চ ইঞ্জিন যেখানে ইয়াহু, বিং এবং আসক এর সম্মিলিত সার্চের এর থেকেও বেশি সংখ্যক বার সার্চ হয়ে থাকে। 

১০. প্রতি এপ্রিল ফুলে ইউটিউব তার সকল ইউজারের সঙ্গে প্রাঙ্ক করে থাকে। 

১১. যুক্তরাষ্ট্রের পরে সবচেয়ে বেশি ইউটিউব ব্যবহারকারী দেশ সৌদি আরব। 

১২. সবচেয়ে বড় ইউটিউব ভিডিওর সাইজ ২৩ দিন ১৯ ঘন্টা। 

১৩. বৃটিশ প্রধানমন্ত্রী টনি ব্লেয়ারই প্রথম কোনো বিশ্বনেতা যিনি ২০০৭ সালে ইউটিউব চ্যানেল খুলেন। 

১৪. ইউটিউবে প্রথম ১ বিলিয়ন ভিউ পাওয়া ভিডিও এডেলের হ্যালো যা আপ্লোদের ৮৮ দিনের মাথায় ১ বিলিয়নে পৌছায় 

১৫. ইউটিবে সার্চ করা সবচেয়ে পপুলার টপিক মিউজিক এবং সবচেয়ে পপুলার সার্চ “হাউ টু কিস” !

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএমএস