আলপনায় ভাষা শহীদদের স্মরণ

ঢাকা, সোমবার   ৩০ মার্চ ২০২০,   চৈত্র ১৭ ১৪২৬,   ০৬ শা'বান ১৪৪১

Akash

আলপনায় ভাষা শহীদদের স্মরণ

আহসান জোবায়ের, জবি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১১:৩৭ ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২০   আপডেট: ১২:১০ ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২০

ছবিঃ ডেইলি বাংলাদেশ

ছবিঃ ডেইলি বাংলাদেশ

‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি, আমি কি ভুলিতে পারি’। রঙের বালতি, তুলি আর রঙ বেরঙের আলপনায় ছেয়ে গেছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনার। যা বিশ্ববিদ্যালয় ইতিহাসের প্রথম। 

আলপনার আয়োজন করেছিলেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের একদল কর্মী। আলপনা অঙ্কনে জবিসাকের সভাপতি ফাইয়াজ হোসেনের নেতৃত্ব জবিসাকের প্রায় অর্ধশত কর্মী অংশগ্রহণ করেন।

প্রথমবারের মত বিশ্ববিদ্যালয় প্রাঙ্গনে শহীদ মিনারে আলপনা তৈরির এই কার্যক্রমের উদ্যোগ নিয়েছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় সাংস্কৃতিক কেন্দ্র। এতে অংশ নিয়েছে চারুকলা বিভাগের ১৫ জন শিক্ষার্থী। যারা সবাই জবি সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের সদস্য।

বছরের এই একটি দিনকে ঘিরেই তাদের এত কোলাহল, ব্যস্ততা। দিনের প্রথম প্রহর শুরু হয়েছে শহীদ মিনারে মোমবাতি প্রজ্জ্বলনের মধ্য দিয়ে। তারপর সেখানে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধাঞ্জলি জানায় নানান স্তরের মানুষসহ বিভিন্ন সংগঠন।

এদিকে শিক্ষার্থীদের মধ্যে উৎসাহের কমতি নেই। নিজ ক্যাম্পাসে প্রথমবারের মতো এমন আয়োজন দেখে উল্লসিত তারা। তাদের মতে, শহীদদের ত্যাগকে আরো রাঙা, আরো অটুট রাখতে আলপনা তৈরির এমন কার্যক্রম সহায়তা করবে। তারা আরো জানান যে, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ছোটো একটি জায়গা নিয়ে গঠিত। এতে শহীদ মিনার থাকলেও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে সেখানে কোনো ধরনের প্রস্তুতি নেয়া হতো না। বড়জোড় চলত পরিষ্কার এবং সাফ-সাফাইয়ের কাজ। কিন্তু আজকের এই কার্যক্রমে অভিভূত তারা।

এবিষয়ে জানতে চাইলে জবি সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের সভাপতি ফাইয়াজ হোসেন বলেন, আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ে একুশে ফেব্রুয়ারি ঘিরে এরআগে কখনো শহীদ মিনারে আলপনা করা হয়নি। আমাদের সংগঠনের উদ্যোগে সর্বপ্রথম এমন কাজ করতে পেরে আমি সত্যিই গর্বিত।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডএম