Alexa আমাদের যা আছে পৃথিবীর অনেক দেশেই নেই: প্রধানমন্ত্রী

ঢাকা, বুধবার   ১৭ জুলাই ২০১৯,   শ্রাবণ ২ ১৪২৬,   ১৩ জ্বিলকদ ১৪৪০

আমাদের যা আছে পৃথিবীর অনেক দেশেই নেই: প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৪:২৫ ১১ জুলাই ২০১৯  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

বাংলাদেশের পর্যটনশিল্পকে আরো আকর্ষণীয় করতে সরকারি-বেসরকারি খাতে বিনিয়োগে ওআইসিভুক্ত দেশগুলোর প্রতি আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, সারা বিশ্বে পর্যটন একটি বর্ধনশীল খাত। পর্যটনশিল্পে আমাদের যা আছে পৃথিবীর অনেক দেশেই তা নেই।

বৃহস্পতিবার সকালে ইন্টারকন্টিনেন্টাল হোটেল ঢাকায় ‘ঢাকা ইজ দ্য ওআইসি সিটি ট্যুরিজম ২০১৯’ দু’দিনব্যাপী ওআইসির অফিসিয়াল সেলিব্রেশন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব বলেন।

ওআইসি সদস্য দেশগুলোর প্রতিনিধিদের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ইসলামী পর্যটনকে ‘বিশ্ব বাণিজ্য ব্র্যান্ড’ হিসেবে গড়ে তুলতে হবে। এ জন্য সর্বাত্মক প্রচেষ্টা ও রোডম্যাপ থাকা দরকার। ইসলামী পর্যটনের বিকাশে আন্তঃওআইসি পর্যটক প্রবাহ বৃদ্ধির লক্ষ্যে ভিসা সহজীকরণ, বিনিয়োগ বৃদ্ধি, ব্র্যান্ডিং ও মানোন্নয়নের প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নিতে হবে।

তিনি বলেন, আমরা দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি, ওআইসি সদস্যভুক্ত রাষ্ট্রগুলো পর্যটন খাতের অবকাঠামো ও উন্নয়নমূলক প্রকল্প বাস্তবায়নের জন্য তাদের বেসরকারি খাতকে একক ও যৌথভাবে অংশ নেয়ার জন্য উৎসাহ দেবে।

বিকাশমান ইসলামী অর্থনীতির ইতিবাচক প্রবৃদ্ধির কথা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ইসলামী অর্থনীতি বর্তমানে নবরূপে বিকশিত হয়েছে। হালাল ফুডস, ইসলামী ফাইন্যান্স, হালাল ফার্মাসিউটিক্যালস এবং প্রসাধনী, হালাল পর্যটন ইত্যাদি ইসলামিক অর্থনীতির ক্রমবর্ধমান খাত। এ খাতগুলো বিকাশের জন্য ওআইসি সদস্যভুক্ত রাষ্ট্রসমূহের সরকারি-বেসরকারি উভয় খাতের সহযোগিতা ও অংশীদারিত্ব একান্ত প্রয়োজন।

ইসলামী পর্যটনের বিশাল আকার ও বিপুল সম্ভাবনার কথা তুলে ধরে শেখ হাসিনা বলেন, ওআইসির ২০১৮ সালের এক প্রতিবেদন অনুযায়ী বিশ্বে মুসলিম ট্যুরিস্টের সংখ্যা ১৫৬ মিলিয়ন, যা ২০২০ সালে বেড়ে দাঁড়াবে ১৮০ মিলিয়নে। একই বছর সারাবিশ্বের জনসংখ্যার ২৬ শতাংশ হবে মুসলিম।

ডেইলি বাংলাদেশ/এস