আবেগের উপরো নজরদারি রাখবে স্মার্ট রিস্টব্যান্ড!
SELECT bn_content.*, bn_bas_category.*, DATE_FORMAT(bn_content.DateTimeInserted, '%H:%i %e %M %Y') AS fDateTimeInserted, DATE_FORMAT(bn_content.DateTimeUpdated, '%H:%i %e %M %Y') AS fDateTimeUpdated, bn_totalhit.TotalHit FROM bn_content INNER JOIN bn_bas_category ON bn_bas_category.CategoryID=bn_content.CategoryID INNER JOIN bn_totalhit ON bn_totalhit.ContentID=bn_content.ContentID WHERE bn_content.Deletable=1 AND bn_content.ShowContent=1 AND bn_content.ContentID=118791 LIMIT 1

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ০৬ আগস্ট ২০২০,   শ্রাবণ ২২ ১৪২৭,   ১৫ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

Beximco LPG Gas

আবেগের উপরো নজরদারি রাখবে স্মার্ট রিস্টব্যান্ড!

তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১১:৫৭ ১২ জুলাই ২০১৯  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

সবার হাতেই প্রায় এখন স্মার্ট রিস্টব্যান্ড। বাজারে স্মার্ট রিস্টব্যান্ড এসেছে অনেক দিন হয়েছে। এই রিস্টব্যান্ড জানিয়ে দেয় আপনি ক’পা হাঁটলেন, কতটা ক্যলোরি ঝরালেন কিংবা আপনার হার্টবিট এই মুহূর্তে কত। কিন্তু এমনটা কি কখনো ভেবেছেন, ওই রিস্টব্যান্ডই আপনার আবেগের উপরো নজরদারি রাখতে সাহায্য করবে? বা মুড বদল হলে আপনাকে জানান দেবে? হ্যাঁ, সেদিন আর বেশি দূরে নেই। এমনই নতুন রিস্টব্যান্ড বাজারে আনতে আপাতত গবেষণা চলছে। কিছু দিনের মধ্যেই তা সাফল্যের মুখ দেখবে।

নতুন ওই রিস্টব্যান্ড নিয়েই পরীক্ষা করছেন ব্রিটেনের বিজ্ঞানীরা। মানুষের আবেগের উপর নজরদারি করার জন্য তারা উন্নত প্রযুক্তির এক রিস্ট ব্যান্ড বানিয়েছেন। শরীরের তাপমাত্রায় বদল এলে ওই ব্যান্ডের রংও পরিবর্তিত হবে। যদি আপনার মুড বদলে যায়, তবে ব্যান্ডটি ভাইব্রেট করবে। নতুন এই প্রযুক্তির ব্যান্ডটি তৈরি করা হয়েছে মূলত সে সমস্ত মানুষদের জন্য যারা মানসিক অবসাদ, উদ্বেগ এবং বাইপোলার ডিসঅর্ডারে ভুগছেন।

ব্রিটেনের ল্যাঙ্কেস্টার বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক মহম্মদ উমরের মতে, কারো পক্ষেই সবসময় মানসিক অবস্থান কিংবা মানসিক আবেগ-অবসাদ সম্পর্কে জানা এবং সেটাকে নিয়ন্ত্রণ করা একদমই সহজ নয়। অনেকেই এই অবস্থায় নিজেদেরকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারেন না। উমরের দাবি, সেসব ক্ষেত্রে খুবই কার্যকরী হবে এই রিস্টব্যান্ড।

গবেষকরা একটি থার্মোক্রোমিক পদার্থ নিয়ে কাজ করছেন যা শরীরের তাপমাত্রা অনুযায়ী রং পরিবর্তন করে এবং কব্জিতে ভাইব্রেট কিংবা স্কুইজ করে। নতুন এই রিস্টব্যান্ডটি মানবদেহের যে কোনও রকম উত্তেজনার পরিবর্তন হলে গ্যাল্ভাটিক এনার্জি দ্বারা নির্ণয় ও পরিমাপ করবে। রিস্ট ব্যান্ডে সেটাই দেখা যাবে।

তারা তাদের এই নতুন আবিষ্কার কতটা সফল হয়েছে বা ভবিষ্যতে কতটা কার্যকরী হবে তা জানার জন্য বিভিন্ন রকম পরীক্ষা করছেন। এই পরীক্ষারই একটি অংশ হিসেবে গবেষকেরা কিছু মানুষের হাতে এই রিস্টব্যান্ডটি ৮ থেকে ১৬ ঘণ্টার জন্য পরিয়ে তাদেরকে দৈনিক কাজকর্ম যেমন- খেলাধুলো, সাঁতার, কথাবার্তা, সিনেমা দেখা, হাসি-কান্না, ভয় পাওয়া সমস্ত কিছুই পর্যবেক্ষণ করেছেন। তারা জানাচ্ছেন, ওই ব্যান্ড ব্যবহার করার দু’দিনের মধ্যেই ব্যবহারকারীরা তাদের এই মানসিক পরিবর্তন বুঝতে সক্ষম হচ্ছেন।

তবে এই অভিনব আবিষ্কার বাজারে কবে আসবে কিংবা তা কেমন দেখতে সে সম্পর্কে এখনো কিছুই জানাননি গবেষকেরা।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএমএস