Alexa আবরার স্মরণে ছাত্রলীগের শোক র‍্যালি

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ১৭ অক্টোবর ২০১৯,   কার্তিক ১ ১৪২৬,   ১৭ সফর ১৪৪১

Akash

আবরার স্মরণে ছাত্রলীগের শোক র‍্যালি

ঢাবি প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১২:৫৬ ১০ অক্টোবর ২০১৯   আপডেট: ১২:৫৮ ১০ অক্টোবর ২০১৯

ডেইলি বাংলাদেশ

ডেইলি বাংলাদেশ

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের তড়িৎ ও ইলেকট্রনিক প্রকৌশল বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ স্মরণে শোক র‌্যালি পালন করেছে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ।

এর আগে বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিন থেকে র‌্যালিটি বের করা হয়। র‌্যালিটি কলা ভবন, শহীদ মিনার হয়ে মধুর ক্যান্টিনে এসে শেষ হয়।

র‌্যালির নেতৃত্বে ছিলেন ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য।

র‍্যালি শেষে আল নাহিয়ান খান জয় বলেন, ছাত্রলীগ কোনো অপরাধীকে প্রশ্রয় দেয় না। আবরার হত্যার সঙ্গে জড়িত ১১ জনকে সংগঠন থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। এর মধ্যে আইনপ্রয়োগকারী সংস্থা ১৩জনকে আটক করেছে।

আবরার হত্যার জড়িতদের শুধু কি বহিষ্কার করেই ছাত্রলীগ পার পেয়ে যাবে এই প্রশ্নের জবাবে জয় বলেন, আমাদের এখতিয়ার হিসেবে জড়িতদের সংগঠন থেকে বহিষ্কার করেছি৷ বাকিটুকু আইন প্রয়োগকারী সংস্থা করবে, এতে কোনো সহযোগিতা প্রয়োজন হলে আমরা সহযোগিতা করব। এরপরও যদি সংগঠন এর কেউ জড়িত থাকে, আমরা তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নিব।

বুধবার রাতে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ এর দফতর সম্পাদক আহসান হাবিব এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ৭ অক্টোবর ২০১৯ বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের শেরে-বাংলা হলে বুয়েটের তড়িৎ ও ইলেকট্রনিক প্রকৌশল বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদকে নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়৷ এ হত্যাকাণ্ডটি ছাত্রসমাজসহ সমাজের প্রতিটি মানুষের হৃদয়ে প্রচণ্ডভাবে নাড়া দেয়।

বিবৃতিতে আরো জানানো হয়, আয়োজিত শোকর‍্যালি বৃহস্পতিবার সকাল দশটায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিন থেকে শুরু হবে। এছাড়াও দেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এ কর্মসূচি দুপুর দুইটার মধ্যে পালনের নির্দেশ দিয়েছে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ।

এর আগে বুধবার রাতে আবরার ফাহাদের স্মরণে মোমবাতি জ্বালিয়ে মৌন মিছিল ও এক মিনিট নিরবতা পালন করেছেন তার সহপাঠীসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্যান্য শিক্ষার্থী।

বুধববার সন্ধ্যা ৭টার দিকে মোমবাতি জ্বালিয়ে আবরারকে স্মরণ ও তার বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করেন তারা।

৬ অক্টোবর রাতে বুয়েটের শেরে বাংলা হলের ২০১১ নাম্বার কক্ষে আবরারকে পিটিয়ে হত্যা করেন বুয়েট ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতাকর্মী।

এ ঘটনায় আবরারের বাবা বরকতউল্লাহ ১৯জনকে আসামি করে সোমবার রাজধানীর চকবাজার থানায় হত্যা মামলা দাযের করেন। এ মামলায় ১২ আসামিসহ ১৩ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ ১৩ জনই বুয়েট ছাত্রলীগের নেতাকর্মী।

এছাড়া বৃহস্পতিবার সকালে এ মামলায় বুয়েট ছাত্রলীগের আইনবিষয়ক সম্পাদক অমিত সাহাকে গ্রেফতার করেছে ডিবি পুলিশ।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডএম