আপনি ডায়াবেটিসে আক্রান্ত, বুঝবেন যেভাবে

ঢাকা, শনিবার   ৩০ মে ২০২০,   জ্যৈষ্ঠ ১৬ ১৪২৭,   ০৬ শাওয়াল ১৪৪১

Beximco LPG Gas

আপনি ডায়াবেটিসে আক্রান্ত, বুঝবেন যেভাবে

স্বাস্হ্য ও চিকিৎসা ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২২:৪০ ৩০ মার্চ ২০২০  

৪০ পেরুলেই যে কারো এই রোগে পেয়ে বসতে পারে। তাই নিয়মিত পরীক্ষা করা উচিত।

৪০ পেরুলেই যে কারো এই রোগে পেয়ে বসতে পারে। তাই নিয়মিত পরীক্ষা করা উচিত।

আজকাল ডায়াবেটিস, হাইপারটেনসন, হার্ট এটাক, ব্রেন ষ্ট্রোক, অতিরিক্ত ওজন, কিডনী ফেইলার, ক্যান্সার ইত্যাদী রোগের প্রাধান্য সারা দুনিয়াব্যাপী। এদের মধ্যে ডায়াবেটিস রোগীর সংখ্যা পৃথিবীর সবদেশের সঙ্গে সঙ্গে আমাদেও দেশেও দিনদিন বেড়েই যাচ্ছে।

বিশেষ করে ৪০ পেরুলেই যে কারো এই রোগে পেয়ে বসতে পারে। তাই নিয়মিত পরীক্ষা করা উচিত।

রক্তে চিনির মাত্রা পরিমাপ করে ডায়াবেটিস শনাক্ত করা যায়। ল্যাবরেটরিতে রক্ত পরীক্ষা করে ও ঘরে বসে গ্লুকোমিটার ব্যবহার করেও নির্ণয় করা যায়।

রাতে স্বাভাবিক খাবার খেয়ে সকালে খালি পেটে রক্তে চিনির মাত্রা ৫.৮ মিলিমোলের চেয়ে কম থাকলে ডায়াবেটিস নেই বলে ধরে নেয়া যায়।

যদি চিনির মাত্রা ৫.৮ এর বেশি; কিন্তু ৭.৮ মিলিমোলের কম হয়, তবে ডায়াবেটিস হওয়ার ঝুঁকি আছে বা বর্ডার লাইন ডায়াবেটিসে আক্রান্ত বলে ধরা যেতে পারে।

যদি চিনির মাত্রা ৭.৮ মিলিমোলের বেশি হয়, তবে ডায়াবেটিসে আক্রান্ত বলে মনে করা যায়।

তবে শুধু খালিপেটে পরীক্ষাটিই ডায়াবেটিস নির্ণয়ের জন্য যথেষ্ট নয়। খালিপেটে নির্ণয়ের পর ৭৫ গ্রাম গ্লুকোজ পানিতে গুলে খেয়ে দুই ঘণ্টা পর রক্তে আবার চিনির মাত্রা পরীক্ষা করা দরকার। এ ক্ষেত্রে যদি চিনির মাত্রা ৭.৮ মিলিমোল বা তার থেকে কম হয়, তবে ডায়াবেটিস নেই। যদি ৭.৮ এর বেশি, কিন্তু ১১ মিলিমোল বা তার চেয়ে কম হয়, তবে বর্ডার লাইন ডায়াবেটিস বলে ধরে নেয়া যায়। আর যদি চিনির মাত্রা ১১ মিলিমোলের বেশি হয়, তবে ডায়াবেটিস আক্রান্ত বলে ধরে নিতে হয়।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএজে