আপনার তথ্য বিক্রি করছে না তো ফেসবুক?
SELECT bn_content_arch.*, bn_bas_category.*, DATE_FORMAT(bn_content_arch.DateTimeInserted, '%H:%i %e %M %Y') AS fDateTimeInserted, DATE_FORMAT(bn_content_arch.DateTimeUpdated, '%H:%i %e %M %Y') AS fDateTimeUpdated, bn_totalhit.TotalHit FROM bn_content_arch INNER JOIN bn_bas_category ON bn_bas_category.CategoryID=bn_content_arch.CategoryID INNER JOIN bn_totalhit ON bn_totalhit.ContentID=bn_content_arch.ContentID WHERE bn_content_arch.Deletable=1 AND bn_content_arch.ShowContent=1 AND bn_content_arch.ContentID=75937 LIMIT 1

ঢাকা, মঙ্গলবার   ১১ আগস্ট ২০২০,   শ্রাবণ ২৭ ১৪২৭,   ২০ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

Beximco LPG Gas

আপনার তথ্য বিক্রি করছে না তো ফেসবুক?

ফিচার ডেস্ক

 প্রকাশিত: ১১:২২ ১৩ জানুয়ারি ২০১৯   আপডেট: ১১:২২ ১৩ জানুয়ারি ২০১৯

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

সোস্যাল মিডিয়া জায়ান্ট ফেসবুক বিভিন্ন কোম্পানীর কাছে তাদের ব্যবকারীদের তথ্য বিক্রি করতে চেয়েছিলো। আর্সটেকনিকা ডটকমের খবরে জানা যায়, ২০১২ সালে ব্যবহারকারীদের তথ্যে প্রবেশের সুযোগ দিয়ে প্রতি কোম্পানি থেকে অন্তত ২ লাখ ৫০ হাজার ডলার নেয়ার পরিকল্পনা করেছিলো ফেসবুক। তবে পরবর্তীতে এ সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসে ফেসবুক।

ডিজিটাল বিজ্ঞাপন প্লাটফর্মই হলো ফেসবুকের আয়ের অন্যতম মাধ্যম। ফেসবুক কর্মকর্তারা অর্থের বিনিময়ে বিজ্ঞাপনদাতাদের পণ্য আরো বেশিসংখ্যক মানুষের কাছে পৌঁছানোর আশ্বাস দিয়েছিলেন। যে কারণে ফেসবুক ব্যবহারকারীদের তথ্যে প্রবেশ করার সুযোগ পায় বিজ্ঞাপনদাতারা। এছাড়া বিজ্ঞাপন বাড়াতেও এই পন্থা অবলম্বন করেছিলো এই সোস্যাল মিডিয়া জায়ান্ট।

২০১২সালের এই পরিকল্পনা এমন এক সময় প্রকশিত হলো, যখন ব্রিটিশ পার্লামেন্টের হাতে সোস্যাল মিডিয়া জায়ান্টটির অভ্যন্তরীণ বেশকিছু গুরুত্বপূর্ণ নথি পৌঁছেছে। গত বছরের মে মাসে সিক্সফোরথ্রি ক্যালিফোর্নিয়ায় ফেসবুকের বিরুদ্ধে নতুন একটি মামলা করে। এতে অভিযোগ করা হয়, ফেসবুক তাদের অ্যাপের মাধ্যমে প্লাটফর্ম ব্যবহারকারী ও তাদের বন্ধুদের তথ্য সংগ্রহ করছে। 

ব্রিটিশ রাজনৈতিক পরামর্শক ও তথ্য বিশ্লেষক প্রতিষ্ঠান ক্যামব্রিজ অ্যানালিটিকার অ্যাপের মাধ্যমে প্রায় ৯ কোটি ব্যবহারকারীর তথ্য বেহাত হবার কারণে ঘটনা প্রকাশের পর চাপে পড়ে ফেসবুক। গত বছরের শুরুর দিকের এ ঘটনার পর আরো বেশ কয়েকটি বড় তথ্য কেলেঙ্কারি প্রকাশ পায়। গত বছরজুড়ে একাধিকবার ক্ষমা চাইতে হয়েছে ফেসবুক সহপ্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) মার্ক জাকারবার্গকে। হাজির হতে হয়েছিলো সিনেট কমিটির শুনানিতে।

মূলত, ফেসবুক ব্যবহারকারীদের অবস্থানগত তথ্য ট্র্যাকিং করা, টেক্সট মেসেজ পড়া এবং মোবাইল ডিভাইসের ছবিতে প্রবেশের জন্য বিভিন্ন কৌশল ব্যবহার করা হয়। গত বছর মার্চে ব্যবহারকারীদের ফোন কল ও টেক্সট মেসেজ সংগ্রহের কথা স্বীকার করে ফেসবুক। তবে তথ্য সংগ্রহের এ কাজ ব্যবহারকারীদের অনুমোদন সাপেক্ষে করা হয়েছে বলে দাবি করা হয়।

ডেইলিবাংলাদেশ/এনকে