আপত্তিকর অবস্থায় দেখলেন বাবা, প্রতিশোধে পুড়ল সন্তান!

ঢাকা, বুধবার   ১৯ জুন ২০১৯,   আষাঢ় ৭ ১৪২৬,   ১৪ শাওয়াল ১৪৪০

আপত্তিকর অবস্থায় দেখলেন বাবা, প্রতিশোধে পুড়ল সন্তান!

ডেস্ক নিউজ ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২৩:০৯ ৮ জুন ২০১৯   আপডেট: ০০:২৭ ৯ জুন ২০১৯

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

নীলফামারীর জলঢাকা পল্লীতে পূর্ব ঘটনার জেরে গরম পানি ঢেলে এক শিশুর শরীর ঝলসে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। বর্তমানে শিশুটি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন।

আহত ফজলে রাব্বি উপজেলার পূর্ব বালাগ্রাম মসজিদ পাড়া এলাকার আব্দুর রহমানের ছেলে।

শিশুটির বাবা আব্দুর রহমান বলেন, ঈদের রাতে বাড়ি ফিরছিলাম। ফেরার পথে কুমিল্লায় শ্রমিকের কাজ করতে যাওয়া প্রতিবেশী আতা মামুদের ছেলে আব্দুল লতিফের রান্নাঘরে শব্দ পাই। চোর ভেবে এগিয়ে গিয়ে দেখি লতিফের স্ত্রী রোজিনা বেগম এলাকার খাতির মামুদের ছেলে মাহাবুরের সঙ্গে আপত্তিকর অবস্থায়। একপর্যায়ে মাহাবুর সেখান থেকে পালিয়ে যায় ও রোজিনা মাহাবুরের পরিবারের শরণাপন্ন হয়। এতে মাহাবুরের চাচা সাইদুল ও সিরাজুল এক জোট হয়ে রাতেই আমার ঘরবাড়ি ভাঙচুর করে।

তিনি বলেন, শুক্রবার সকালে লতিফ কুমিল্লা থেকে বাড়ি ফিরলে রোজিনা আবারো আমার বাড়িতে এসে ঝগড়া শুরু করে। তারা আমাকে আক্রমণ করার চেষ্টা করলে আমি সরে যাই। একপর্যায়ে লতিফ আমাকে হাতের কাছে না পেয়ে পাশে চুলার ওপর চা করতে বসানো গরম পানির পাত্রটি আমার ছেলের গায়ে ঢেলে দেয়।

উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. জেডএ সিদ্দিকী বলেন, শিশুটির পায়ে ১৫ শতাংশ পুড়ে গেছে। তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

জলঢাকা থানার ওসি মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, শিশুটির বাবা আব্দুর রহমান একটি অভিযোগ দিয়েছে। তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমআর