Alexa আনসার নিয়োগ

ঢাকা, রোববার   ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯,   আশ্বিন ৭ ১৪২৬,   ২২ মুহররম ১৪৪১

Akash

আনসার নিয়োগ

নিউজ ডেস্ক :: news-desk

 প্রকাশিত: ১৬:২১ ২০ ডিসেম্বর ২০১৮   আপডেট: ১৬:২৩ ২০ ডিসেম্বর ২০১৮

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

সাধারণ আনসার নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২০১৮-১৯

সারাদেশে ৩ হাজার ৭৩২টি সংস্থায় ৬ হাজার গার্ডে প্রায় ৫০ হাজার সাধারণ আনসার সদস্য অঙ্গীভূত রয়েছে। প্রশিক্ষণ গ্রহণের পর আপনিও হতে পারেন একজন গর্বিত অঙ্গীভূত আনসার। 
আগ্রহ ও যোগ্যতা থাকলে আপনিও আবেদন করতে পারেন। চূড়ান্তভাবে নির্বাচিত প্রার্থীদের ১০ সপ্তাহ মেয়াদী সাধারণ আনসার প্রশিক্ষণ গ্রহণ করতে হবে। প্রশিক্ষণ কোর্স পূর্ণ মেয়াদে আনসার ভিডিপি একাডেমি গাজীপুরে পরিচালিত হবে।

সম্প্রতি এই বাহিনীতে সাধারণ আনসারের শূন্য পদ পূরণের লক্ষ্যে অস্থায়ী ভিত্তিতে শুধু পুরুষ প্রার্থীদের বাছাই করা হবে বলে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে।

সাধারণ আনসার পদের জন্য আবেদন করার যোগ্যতা

১. লিঙ্গঃ পুরুষ

২. বয়স ০৯ ডিসেম্বর ২০১৮ তারিখে সর্বনিম্ন ১৮ এবং ৩০ ডিসেম্বর ২০১৯ তারিখে সর্বোচ্চ ৩০ বছর গ্রহণযোগ্য

৩. সর্বনিম্ন উচ্চতা: 5ft এবং 4inch

৪. সর্বনিম্ন বুকের মাপ (স্বাভাবিক-সম্প্রসারিত) 32-34inch

শিক্ষাগত যোগ্যতা: জেএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ।

বেতন ও সুযোগ সুবিধা: প্রশিক্ষণ শেষে অঙ্গীভূত হলে মাসিক ১৩,০৫০/ টাকা (সমতল এলাকায়) এবং ১৪,২০০/ টাকা (পার্বত্য এলাকায়) ভাতা প্রাপ্য হবেন।
৯,৭৫০/- টাকা হারে বছরে ২টি উৎসব ভাতা।
দুই ইউনিট রেশন ভর্তূকি মূল্যে।

কর্তব্য অবস্থায় মৃত্যুবরণ করলে ৫ লাখ টাকা এবং স্থায়ী পঙ্গুত্ব বরণ করলে ২ লাখ টাকা আর্থিক সহায়তা।

আবেদনের নিয়ম:
ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টার অথবা যেকোনো অন-লাইন সুবিধা সম্পন্ন কম্পিউটার থেকে আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর ওয়েব সাইট (www.ansarvdp.gov.bd) এ ‘সাধারণ আনসার মৌলিক প্রশিক্ষণের আবেদন’ লিংকে ক্লিক করে আবেদনপত্র পূরণ করে দাখিল করা যাবে।

প্রয়োজনীয় কাগজপত্র:
লিখিত পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারী প্রার্থীদের নির্বাচন কমিটির কাছে শিক্ষাগত যোগ্যতার মূল/সাময়িক সনদের ফটোকপি, জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি, চারিত্রিক সনদের মূল কপি, নাগরিকত্ব সনদের মূল কপি, অভিভাবকের সম্মতিসূচক সনদ, অনলাইন রেজিস্ট্রেশনের প্রবেশপত্রের মূল কপি, পাসপোর্ট সাইজের ৪ কপি সত্যায়িত রঙিন ছবিসহ বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখিত প্রয়োজনীয় কাগজপত্র জমা দিতে হবে।

নির্বাচন পদ্ধতি:
প্রার্থীদের প্রথমে প্রাথমিক বাছাই বা শারীরিক পরীক্ষার জন্য নির্দিষ্ট কেন্দ্রে উপস্থিত হতে হবে। শারীরিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রার্থীদের সনদ যাচাইয়ের পর লিখিত পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে হবে। বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনী সূত্রে জানা গেছে, ‘সাধারণত প্রার্থীদের ৫০ নম্বরের লিখিত ও ১০ নম্বরের মৌখিক পরীক্ষা নেওয়া হয়। তবে এবার কত নম্বরের পরীক্ষা নেওয়া হবে, বিষয়টি এখনো প্রক্রিয়াধীন।

লিখিত পরীক্ষায় বিষয় থাকবে চারটি—বাংলা, ইংরেজি, গণিত ও সাধারণ জ্ঞান। মৌখিক পরীক্ষায় প্রার্থীদের শিক্ষাগত যোগ্যতা, আচরণ, নিজ জেলা, সাধারণ জ্ঞান ইত্যাদি বিষয়ে প্রশ্ন করা হবে।

আবেদনের সময়সীমা: আগামী ৩০ ডিসেম্বর ২০১৮ তারিখ রাত ১২টা পর্যন্ত আবেদন করা যাবে। অন-লাইন রেজিস্ট্রেশন ফি ২০০টাকা।

জেলাভিত্তিক পদের সংখ্যা ও নির্বাচন কেন্দ্র...

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএজে