ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯,   ফাল্গুন ৮ ১৪২৫,   ১৫ জমাদিউস সানি ১৪৪০

আত্মহত্যার পর মুখ খুলছেন অভিভাবকরা: শিক্ষামন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক

 প্রকাশিত: ১৪:৫৯ ৫ ডিসেম্বর ২০১৮   আপডেট: ১৫:০৬ ৫ ডিসেম্বর ২০১৮

শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। ছবি: সংগৃহীত

শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। ছবি: সংগৃহীত

ভিকারুননিসা স্কুল শিক্ষার্থী অরিত্রীর আত্মহত্যার ঘটনার জেরে অভিভাবকরা একে একে নানা অভিযোগের বিষয়ে মুখ খুলতে শুরু করেছেন বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। 

মন্ত্রী বলেন, এ ঘটনার পর থেকে আমি অসংখ্য টেলিফোন পাচ্ছি। তারা তাদের ক্ষোভের কথা জানাচ্ছেন। আমি বলেছি, এ বিষয়গুলো আগে বলেননি কেন? অনেক ক্ষমতাবান ব্যক্তি অথচ তারা আগে বলেননি! তারা বলেছেন, আমরা সাহস পাইনি, কারণ আমরা বললে আমাদের মেয়েকে শাসাতে পারে, সেই কারণে।

বুধবার সচিবালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন তিনি। 

নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেন, এ ঘটনায় আমরা মর্মাহত, ব্যথিত। ঘটনার দিন আমরা দুপুরে সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এতে তদন্ত কমিটি হয়েছে। নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে আমরা কমিটির প্রতিবেদনও পেয়েছি, যাতে দোষীদের চিহ্নিত করা হয়েছে। একইসঙ্গে ওই প্রতিষ্ঠানে যেসব অনিয়ম রয়েছে সেগুলোও উঠে এসেছে। আমরা এখন যথাযথ আইনী ব্যবস্থার দিকে যাচ্ছি বলেও জানান তিনি। 

তিনি আরো বলেন, অভিভাবক ও শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে পাওয়া বিভিন্ন অভিযোগ খতিয়ে দেখা হচ্ছে। ওখানে অনেক দিন যাবৎ অধ্যক্ষ নেই, একজন ভারপ্রাপ্ত অধ্যাক্ষকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। এ বিষয়ে বারবার দাগিদ দেয়া সত্ত্বেও তারা নিয়ম না মেনে অধ্যক্ষ নিয়োগের ব্যবস্থা নেয়নি। ফলে এটাও বড় ধরনের অনিয়ম।

মন্ত্রী জানান, নিয়মের বাইরে স্কুলটি অতিরিক্ত শিক্ষার্থী ভর্তি করিয়েছে। এমনকি আমরা এটাও জেনেছি, আগে সেখানে একজন শিক্ষার্থী ভর্তি করাতে স্কুল কর্তৃপক্ষ ১০ লাখ টাকা পর্যন্তও নিতো। নতুন শাখা খোলা থেকে শুরু করে এসব বিভিন্ন অভিযোগ রয়েছে, যা আমরা চিহ্নিত করে ব্যবস্থা নেবো বলে জানান শিক্ষামন্ত্রী।

ডেইলি বাংলাদেশ/এসআর/এসআইএস