.ঢাকা, বুধবার   ২০ মার্চ ২০১৯,   চৈত্র ৫ ১৪২৫,   ১৩ রজব ১৪৪০

আতঙ্কে গরু খামারিরা

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি

 প্রকাশিত: ১১:৫২ ২ ডিসেম্বর ২০১৮   আপডেট: ১১:৫২ ২ ডিসেম্বর ২০১৮

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

সাতক্ষীরায় জরা রোগের কারণে অর্ধশতাধিক গরু অসুস্থ হয়ে পড়েছে । এরইমধ্যে মারা গেছে পাঁচটি গরু। উপায় না পেয়ে ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন খামারিরা।

জানা গেছে, সদর উপজেলার ফিংড়ী ইউপির এল্লারচর, বালিথা, শিমুলবাড়িয়া, ফয়জুল্লাপুর, ফিংড়ী, গোবিন্দপুর, মির্জাপুর, সুলতানপুর, হাবাসপুরসহ বিভিন্ন এলাকায় জরা রোগ দেখা দিয়েছে। এর মধ্যে দক্ষিণ ফিংড়ী কাপালীপাড়ার খামার মালিকরা ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন।

স্থানীয় গরুর খামার মালিকের মধ্যে দীনবন্ধু বাছাড়, সাধন চন্দ্র মণ্ডল ও ইউপি সদস্য সুকুমার সরদার জানান, দীর্ঘদিন ধরে গরু পালন করে আসছি। কিন্তু জরা রোগের সমস্যায় পড়িনি। গত এক সপ্তাহর ব্যবধানে এলাকায় বেশ কয়েকটি গরু মারা গেছে। এর মধ্যে ইউপি সদস্য সুকুমার সরদারের দুটি গরু, মানস সরদারের একটি গরু, নির্মল মণ্ডলের একটিসহ এলাকায় পাঁচটি গরু মারা যায়।

গরুর খামরি জগদীশ কুমার রায় জানান, সাধারণত এখানে শীত মৌসুমে এ রোগ বেশি দেখা দেয়। এটি একটি ভাইরাস জনিত রোগ হওয়ায় এটি বেশি ছড়িয়ে পড়ে। এছাড়া এ এলাকায় কোনো পশু ডাক্তারও নেই। যার ফলে আমরা আরো বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হই।

এ বিষয়ে জেলা প্রাণী সম্পদ বিভাগের কর্মকর্তা সমরেশ কুমার দাশ বলেন, ভাইরাস রোগে গরু মারা যাচ্ছে বলে শুনেছি। এ রোগের প্রতিরোধক হিসেবে যে ধরনের ভ্যাকসিন দেয়ার প্রয়োজন সেটি আমাদের কাছে অপ্রতুল। আমরা বেসকারিভাবে এ ভ্যাকসিন সংগ্রহ করে চিকিৎসার কথা বলছি। এ রোগ যাতে না ছাড়ায় সে জন্য প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নিয়েছি।

 ডেইলি বাংলাদেশ/এমআর