Alexa আজব দুনিয়া, দুলাভাইয়ের সন্তানে আপত্তি নেই বোনের!

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ১২ ডিসেম্বর ২০১৯,   অগ্রহায়ণ ২৭ ১৪২৬,   ১৪ রবিউস সানি ১৪৪১

আজব দুনিয়া, দুলাভাইয়ের সন্তানে আপত্তি নেই বোনের!

আয়েশা পারভীন

 প্রকাশিত: ০৯:৩১ ৩০ জানুয়ারি ২০১৯   আপডেট: ০৯:৩১ ৩০ জানুয়ারি ২০১৯

ছবি- সংগৃহীত

ছবি- সংগৃহীত

পুরো পৃথিবীটা এক আজব দুনিয়া। বহু জাতের মানুষ এই দুনিয়ায় বসবাস করে। এমনও মানুষ আছে এতে যারা বিভিন্ন নারীর সঙ্গে সম্পর্ক করে বেড়ায় আর পরবর্তীতে জানাজানি হলে পরিবার সুন্দর মত সব কিছু মেনে নেয়। আবার অনেক মানুষ আছে যাদের পরিবার অনেক শক্ত, কোন অনৈতিক বিষয় মানতে চায় না। অনেক মানুষ আছে যারা ধার্মিক হয়, আর তাদের মধ্যে ভেতর এসব অপকর্মের প্রশ্নই আসে না। আবার অনেকে আছে যারা বউতো দূরের কথা শালিকেও ছাড়ে না।

প্রশ্ন করতে পারেন এসব কেন বলছি, হুম এসব বলার পেছনে যথেষ্ট কারণ আছে। সম্প্রতি ঘটেছে এমন এক কাহিনী। যেখানে তিন মাসের অন্তঃসত্ত্বা হয়েছেন শালি। হঠাৎ একদিন এসে জানালেন, তার গর্ভে আসা আগত সন্তান দুলাভাইয়ের। আর এতে তার স্বামী ও ননদ কিছু মনে করছেন না। দুজনই সন্তুষ্ট ছিলেন।

আর যার সঙ্গে এই ঘটনাটি ঘটেছে, সেই ৩১ বছরের নারীর নাম র‍্যাচেল উইলকক্স। তার স্বামী মিকাহ। দীর্ঘদিন প্রেমের পর ২০০৭ সালে বিয়ে করেন এই দম্পতি। সংসারে রয়েছে তাদের আরো তিনটি সন্তান। যখন তৃতীয় সন্তান গর্ভে ধারণ করেছেন, তখন র‍্যাচেল জানতে পারলেন তার স্বামীর বোন ৩৩ বছরের আমান্ডা প্যাটারসন কোলন ক্যানসারের তৃতীয় পর্যায়ে আছেন।

এর আগে, ২০১৪ সালের অক্টোবর মাসে যুক্তরাষ্টের টেনেসি অঙ্গরাজ্যের ফ্রাংকলিন এলাকার বাসিন্দা আমান্ডা পেটে প্রচণ্ড ব্যথাসহ নানা উপসর্গ নিয়ে চিকিৎসকের কাছে যান। এরপর জানতে পারেন তিনি কোলন ক্যানসারে আক্রান্ত। তার গলায় বড় একটি টিউমার হয়েছে। মোথেরাপি ও রেডিওথেরাপি নিতে হচ্ছে তাকে।

ওই বছরই হবু স্বামী রিডের সঙ্গে দেখা হয় আমান্ডার। এরপর চিকিৎসকের শরণাপন্ন হন তারা। সেখানে জানতে চান, তিনি কখনো মা হতে পারবেন কি না? জবাবে চিকিৎসক জানান, না।

এই উত্তরে ভীষণ ভেঙে পড়েন আমান্ডা। তখন রিডকে তিনি জানান, রিড চাইলে তাকে ছেড়ে যেতে পারেন। আর রিড জানান, তিনি আমান্ডাকে ভালোবেসে বিয়ে করেছে, তাই সে বাচ্চা না হওয়ার কারণে ছেড়ে যাবেন না।

এদিকে, আমান্ডার ভাই মিকাহর সঙ্গে দীর্ঘ সম্পর্কের পর বিয়ে করেন র‍্যাচেল। ফলে আমান্ডা-র‍্যাচেলের সম্পর্কও অনেক দিনের। তাই তার কষ্টগুলোও কাছ থেকে দেখেছেন র‍্যাচেল। তাদের দুজনের সম্পর্ক ননদ-ভাবির চেয়ে বেশি ছিল, অনেকটা বন্ধুর মতো ছিল তারা।

একদিন চিকিৎসক র‍্যাচেলকে আমান্ডার সন্তানের সারোগেট মা হওয়ার পরামর্শ দেন। অর্থাৎ কৃত্রিমভাবে র‍্যাচেলের গর্ভে স্থাপন করা হবে আমান্ডা-রিডের ডিম্বাণু-শুক্রাণু। তা নিষিক্ত হলে গর্ভবতী হবেন র‍্যাচেল। কিন্তু জীনগতভাবে সেই সন্তানের বাবা-মা হবেন রিড-আমান্ডা।

এতে র‍্যাচেল হেসে ওঠেন, মনে করেন মজা করছে সবাই। কারণ এরই মধ্যে সবাইকে তিনি ঘোষণা দিয়ে রেখেছেন যে, তৃতীয় এবং শেষবারের মতো মা হচ্ছেন তিনি। এরপর আর গর্ভবতী হতে চান না তিনি।

এদিকে, বিয়ের পর আমান্ডা-রিড দম্পতি সন্তান দত্তকও নিতে চেয়েছিলেন। কিন্তু ক্যানসার আক্রান্ত হওয়ায় দত্তক নেওয়ার উপযোগী ছিলেন না এই পরিবার। এ পরিস্থিতিতে গত বছর জুলাই মাসে র‍্যাচেল চিকিৎসকের সেই কথা ভাবতে বসেন। ভাবেন তিনিই হতে পারেন আমান্ডা-রিডের সন্তানের সারোগেট মা।

বিষয়টি নিয়ে স্বামী মিকাহর সঙ্গে কথা বলেন র‍্যাচেল। এরপর আমান্ডা ও রিডকে দীর্ঘ বার্তা পাঠান তিনি। জানান, তিনি সত্যিই আমান্ডা-রিডের সন্তানকে গর্ভে বহন করতে চান। কয়েকদিন পর এই সিদ্ধান্তের সঙ্গে সহমত প্রকাশ করেন আমান্ডা ও রিড। তারা জেসটেশনাল সারোগেসি পদ্ধতিতে সন্তান জন্ম দিতে চান, যাতে আমান্ডার ডিম্বাণু ও রিডের শুক্রাণু র‍্যাচেলের গর্ভে স্থাপন করা হয়।

নানা পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে জানা যায়, র‍্যাচেল অন্তঃসত্ত্বা। র‍্যাচেলের কাছে এই ঋণ মুখে প্রকাশ করতে পারবেন না বলে জানালেন আমান্ডা। এ মুহূর্তে র‍্যাচেল ৩১ সপ্তাহের অন্তঃসত্ত্বা। এবং তার গর্ভে বেড়ে উঠছে আমান্ডা-রিডের মেয়েসন্তান। সবকিছু ঠিক থাকলে আগামী ৪ অক্টোবর পৃথিবীতে আসবে ওই শিশু।

র‍্যাচেল বলেন, তার স্বামী খুব সাহায্য করেছেন তাকে এবং বোনের বাচ্চা গর্ভে ধারণ করা নিয়ে কোনো আপত্তিও তোলেননি তিনি। তাই খুব সহজভাবে এগোতে পেরেছেন তিনি।

ডেইলি বাংলাদেশ/টিআরএইচ