অ্যাম্বুলেন্স আছে চালক নেই

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ০৪ জুন ২০২০,   জ্যৈষ্ঠ ২১ ১৪২৭,   ১১ শাওয়াল ১৪৪১

Beximco LPG Gas

অ্যাম্বুলেন্স আছে চালক নেই

সাবজাল হোসেন, কালীগঞ্জ ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৬:৩০ ১১ জুন ২০১৯  

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দুটি অ্যাম্বুলেন্সের একজন চালকও নেই। ফলে জরুরি ভিত্তিতে রোগী বাইরে নিতে স্বজনদের চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে। গত দুই সপ্তাহ ধরে এমন অবস্থা এ কমপ্লেক্সে।

এখানে দায়িত্ব পালনকারী অ্যাম্বুলেন্সচালক ছাড়পত্র নিয়ে সিভিল সার্জন অফিসে যোগ দেয়ায় অ্যাম্বুলেন্সটি চালক শূন্য হয়। এরপর ১ জুন কামরুজ্জামান নামের একজন চালক যোগ দিয়েই দুদিনের ছুটি নেন। কিন্তু ছুটি কাটিয়ে তিনি এখনো কর্মস্থলে ফিরেননি। এজন্য ৩ জুন ও ৯ জুন তার বিরুদ্ধে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয়েছে।

১ জুন থেকে ১১ জুন পর্যন্ত জরুরি বিভাগ থেকেই সাতজন ও ভর্তি করা রোগীর মধ্যে ১১ জনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য অন্য হাসপাতালে রেফার করা হয়েছে।

রেফার হওয়া এক রোগীর স্বজন শাহিন হোসেন বলেন, অবস্থার অবনতি হওয়ায় হাসপাতাল থেকে এক আত্মীয়কে যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতালে রেফার করা হয়। কিন্তু অ্যাম্বুলেন্সের চালক না থাকায় অনেক দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে। বাধ্য হয়ে শহরের একটি মাইক্রোবাস ১ হাজার ৭শ টাকা দিয়ে যশোর যেতে হয়েছে।

তিনি বলেন, গুরুতর মুহূর্তে টাকাটা বড় কথা নয়। দ্রুত পৌঁছানই বেশি প্রয়োজন। সে ক্ষেত্রে অ্যাম্বুলেন্স নিতে পারলে একদিকে টাকা সাশ্রয় হতো অন্যদিকে দ্রুত পৌঁছানো যেতো।

স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের টিএইচএ ডা. হোসাইন সাফায়েত বলেন, নতুন অ্যাম্বুলেন্সচালক যোগ দিয়েই তিনি আর কর্মস্থলে আসেননি। অফিসিয়ালি এ পর্যন্ত তার বিরুদ্ধে দুটি কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয়েছে। জরুরি মুহূর্তে রোগীর জন্য অ্যাম্বুলেন্স সেবা না পাওয়াটা কষ্টদায়ক ব্যাপার।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমআর