ঢাকা, শনিবার   ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯,   ফাল্গুন ৩ ১৪২৫,   ১০ জমাদিউস সানি ১৪৪০

অরিত্রী আত্মহত্যা মামলার তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল ১৮ মার্চ

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৩:৪১ ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯   আপডেট: ১৩:৪৪ ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী অরিত্রী অধিকারীর আত্মহত্যায় প্ররোচণার অভিযোগে দায়েরকৃত মামলায় তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের তারিখ আগামী ১৮ মার্চ ধার্য করেছে আদালত।

সোমবার মামলাটির তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের দিন ধার্য ছিল। কিন্তু এদিন তদন্ত কর্মকর্তা প্রতিবেদন দাখিল করতে পারেননি। এজন্য ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতের বিচারক সাদবীর ইয়াছির আহসান চৌধুরী নতুন এ তারিখ ধার্য করেন।

অরিত্রীর আত্মহত্যার পর এ ঘটনায় প্ররোচনায় দায়ে রাজধানীর পল্টন থানায় তার বাবা দিলীপ অধিকারী বাদী হয়ে গত ৪ ডিসেম্বর রাতে দণ্ডবিধির ৩০৫ ধারায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলার অভিযুক্তরা হলেন- ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ নাজনীন ফেরদৌস, শাখা প্রধান জিন্নাত আরা ও শ্রেণি শিক্ষক হাসনা হেনা।

মামলা দায়েরের পর গত ৫ নভেম্বর অরিত্রির শ্রেণিশিক্ষক হাসনা হেনাকে গ্রেফতার করেছিল পুলিশ। পরদিন আদালত জামিন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। এরপর ৯ ডিসেম্বর জামিন পান হাসনা হেনা।

আর চলতি বছরের ১৪ জানুয়ারি ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ নাজনীন ফেরদৌস, জিন্নাত আরা আত্মসমর্পণ করে আদালতে জামিনের আবেদন করলে বিচারক তাদের জামিন দেন।

মামলা অভিযোগপত্র থেকে জানা যায়, গত ৩ ডিসেম্বর পরীক্ষা চলাকালে অরিত্রীর কাছে মোবাইল ফোন পাওয়ার পর তার বিরুদ্ধে নকল করার অভিযোগ তোলা হয়। এতে অরিত্রীকে পরদিন তার মা-বাবাকে নিয়ে স্কুলে যেতে বলা হয়। বাবা-মাসহ ওইদিন অরিত্রি স্কুলে গেলে ভাইস প্রিন্সিপাল তাদের অপমান করে কক্ষ থেকে বের হয়ে যেতে বলেন। এমনকি মেয়েকে টিসি (ছাড়পত্র) দেয়ার কথাও জানায় স্কুল কর্তৃপক্ষ।

এভাবে নিজের সামনে বাবা-মাকে অপমানিত হতে দেখে পরে শান্তিনগরে বাসায় গিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে অরিত্রী।

ডেইলি বাংলাদেশ/এসআইএস