Exim Bank Ltd.
ঢাকা, মঙ্গলবার ২০ নভেম্বর, ২০১৮, ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

অমিমাংসিত সংলাপ, তফসিল ও ভোটারের প্রত্যশা

আফরোজা পারভীন
অাফরোজা পারভীন, কথাশিল্পী, কলাম লেখক, সম্পাদক। জন্ম ৪ ফোব্রুয়ারি ১৯৫৭, নড়াইল। সাহিত্যের সকল ক্ষেত্রে অবাধ পদচারণা। ছোটগল্প, উপন্যাস, শিশুতোষ, রম্য, স্মৃতিকথা, অনুবাদ, গবেষণা ক্ষেত্রে ১০১টি পুস্তক প্রণেতা। বিটিতে প্রচারিত টিয়া সমাচার, ধূসর জীবনের ছবি, গয়নাসহ অনেকগুলি নাটকের নাট্যকার। 'অবিনাশী সাঈফ মীজান' প্রামাণ্যচিত্র ও হলিউডে নির্মিত স্বল্পদৈর্ঘ্য 'ডিসিসড' চলচ্চিত্রের কাহিনিকার। রক্তবীজ ওয়েব পোর্টাল www.roktobij.com এর সম্পাদক ও প্রকাশক। অবসরপ্রাপ্ত যুগ্মসচিব

সংলাপ শেষ হলো। প্রথমে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট, তারপর বিকল্পধারা ও যুক্তফ্রন্ট, এরপর জাতীয় পার্টি, বামজোটসহ ৭০টি রাজনৈতিক দলের সঙ্গে ।

ঐক্যফ্রন্টের সঙ্গে সংলাপ হলো দু দফা, ১ ও ৭ নভেম্বর। কোন ঐক্যমত্য ছাড়াই শেষ হলো সংলাপ। ঐক্যফ্রন্ট আন্দোলনের ঘোষণা দিলো। আওয়ামী লীগ বলল, আর সংলাপ হবে না। তবে সুষ্ঠু নির্বাচনের স্বার্থে আলোচনা চলতে পারে।

এরইমধ্যে রাজনীতিতে এলো চমক। বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী যোগ দিলেন ঐক্যফ্রন্টে। দু-দু’জন বঙ্গবন্ধু ভক্ত মানুষ এখন আওয়ামী লীগের বিপরীত অবস্থানে। এটা একটা শুভলক্ষণ । এতদিন ধরে তো আমরা শুধু গালাগাল করতেই দেখেছি। বিরোধীরাও যে প্রশংসা করে, শ্রদ্ধা করে এটা কম নয়। পারস্পরিক শ্রদ্ধাবোধ রাজনীতির একটা বড় বিষয়।

ইসি তফসিল ঘোষণা করেছে। প্রাথমিকভাবে ৪ নভেম্বর তফসিল ঘোষণার কথা ছিল।ঐক্যফ্রন্ট ইসিকে চিঠি দিয়েছিল যেন সংলাপ চলা অবস্থায় তফসিল ঘোষণা না করা হয়। তারা ইসির সঙ্গে দেখা করেও একই অনুরোধ জানিয়েছিল। অন্যদিকে বিকল্পধারা যুক্তফ্রন্ট, জাতীয় পার্টি শেখ হাসিনার অধীনে নির্বাচন করবে বলে জানিয়েছে। তারা ইসিতে দেখা করে অনুরোধ করেছে যেন তফসিল পেছানো না হয়। আওয়ামী লীগেরও একই মত। আওয়ামী লীগ নির্বাচন পরিচালনা কমিটির প্রধান এইচ টি ইমাম ইসিতে বলেছেন, আওয়ামী লীগ ইসির মতামতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তারা নির্বাচন এগোনো বা পেছানোর কথা বলবেন না। তিনি অভিযোগ করেছেন ঐক্যফ্রন্ট ইসির প্রতি আঙ্গুল উঁচিয়ে কথা বলেছে।

আস্থার সংকটের বিষয়ে কিছু উত্তপ্ত কথা হয়েছে বলে জেনেছি । ইসিতে নিজেদের মধ্যেই তো আস্থার সংকট রয়েছে। পাঁচজন মানুষ একমত হতে পারছেন না অথচ আছেন একসাথে । আর সেটা গোপনও নেই। একজন আরেকজনের বিরুদ্ধে অসাংবিধানিক, অগ্রহণযোগ্য প্রস্তাব দেয়ার কথা বলছেন। আবার চারজন মিলে একজনকে অনুরোধ করার পরও তিনি শুনছেন না। মিডিয়াতে এসব প্রচারিত হয়ে আমরা জানছি। সংবাদপত্রে লেখালিখি হচ্ছে। আবার সক্রিয় লোক হঠাৎ নিষ্ক্রিয় হয়ে পড়েছেন, কেন সে প্রশ্ন মনে জাগছে। তবে ঐক্যফ্রন্ট কি দেখে বা জেনে ইসির প্রতি আস্থা নেই বলেছেন সেটা তারাই ভাল জানেন।

সংলাপকে আমরা সবসময়ই ইতিবাচক বলে মনে করি। মতবিরোধ থাকতেই পারে। আলোচনার মাধ্যমে অনেক সময় তার সহজ সমাধান বেরিয়ে আসে। কিন্তু একসাথে না বসলে সেটি হবে কী করে! আমাদের দেশে সংলাপের কথা উচ্চারিত হয় কিন্তু সংলাপ হয় না অথবা যে সংলাপ হয় তা ফলপ্রসু হয় না। দুই হাজার সাত সালে তৎকালীন ক্ষমতাসীন দল বিএনপি ও আওয়ামী লীগের সংলাপ যদি ফলপ্রসু হতো তাহলে হয়ত এক এগারোর আধা সেনাশাসিত সরকার এদেশে আসত না। হুসাইন মুহাম্মদ এরশাদের আমলেও একাধিকবার সংলাপ হয়েছে । কিন্তু ফলোলাভ হয়নি। নিকট অতীতে সংলাপের জন্য শেখ হাসিনা খালেদা জিয়ার ফোনালাপের কথাও আমরা জানি। কাজেই সংলাপের প্রশ্নে জনগণ অনেকটাই নিস্পৃহ হয়ে পড়েছিল। কারণ আমাদের প্রধান দুটি দলকে ছাড় দেবার প্রশ্নে অনমনীয় থাকতে দেখেই আমরা অভ্যস্ত।

তবে এবারের সংলাপটি জনগণের মনে আশা জাগিয়েছিল। ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বে গঠিত হল ঐক্যফ্রন্ট। তাতে যোগ দিলো বিএনপি, পরে কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ।

ঐক্যফ্রন্ট গঠনের পর আওয়ামী লীগ নেতিবাচক কিছু কথা বলেছে। বলেছে ঐক্যফ্রন্ট জনগণের কাছে না গিয়ে বিদেশিদের কাছে ধর্না দিয়েছে। দশ বছর চেষ্টা করেও গণফোরাম কোন আন্দোলন গড়ে তুলতে পারেনি। ড, কামাল হোসেন আন্তর্জাতিক পর্যায়ে একজন উল্লেখযোগ্য ব্যক্তি। তিনি সংবিধান প্রণয়ন কমিটিতে ছিলেন। বঙ্গবন্ধুর ক্যাবিনেটে তিনি মন্ত্রীও ছিলেন।

ঐক্যফ্রন্ট আওয়ামী লীগ সভানেত্রী বরাবরে সংলাপের জন্য চিঠি দিলো। কিছু দিন ধরে বিএনপি সাত দফা দাবির কথা বলে আসছিল। আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক স্পষ্ট বলে দিয়েছিলেন, কোন দাবিই মানা হবে না। ঐক্যফ্রন্টের আলোচনাতেও সেই সাতটি দফা অন্তর্ভুক্ত ছিল। আওয়ামী লীগের সাথে আছে ১৪ দল। সে দলে এমন কিছু নেতা রয়েছেন যারা আওয়ামী লীগের কারণেই নির্বাচনে জেতেন, মন্ত্রীও হন। তারাও মুখর হয়ে উঠল ঐক্যফ্রন্টের সমালোচনায়।

চিঠি পাওয়ামাত্র দ্রæত সাড়া দিলো আওয়ামী লীগ। তবে শর্ত জুড়ে দিলো, তারা সংবিধানের ভেতরে থেকে সংলাপ করবেন। আর কামাল হোসেন বললেন, সংবিধান বদলানো এক মিনিটের ব্যাপার। সংলাপ অনুষ্ঠিত হল। হৃদ্যতাপূর্ণ আলোচনা, হাসিঠাট্টা হলো খাবার খেতে খেতে। কেউ কারো প্রতি বিরূপ মন্তব্য করল না। উভয়পক্ষ উভয়পক্ষকে শুনল। প্রধানমন্ত্রী তার সরকারের উন্নয়ন কাজের বর্ণনা দিলেন। সংলাপে অংশ নেবার জন্য ধন্যবাদ দিলেন। আর সংলাপে অংশগ্রহণকারীরাও তাদের বক্তব্য তুলে ধরলেন।

প্রথমদিন সংলাপ শেষে বেরিয়ে এসে ফখরুল ইসলাম আলমগীর বললেন, সংলাপে তারা খুশি নন। ড. কালাম হোসেন ততটা নেতিবাচক প্রতিক্রিয়া না দেখালেও বললেন, সব শুনে প্রধানমন্ত্রী একটা বড়সড় বক্তৃতা দিলেন । কিন্তু সভা সমিতি ছাড়া আর কোন ব্যাপারেই তেমন আশ্বাস পাওয়া গেল না। তিনি আলাপ আলোচনার মাধ্যমে সমাধান বেরিয়ে আসার আশাবাদ ব্যক্ত করলেন। আওয়ামী লীগ বলছে সংলাপ হয়েছে খোলামেলা পরিবেশে। ঐক্যফ্রন্ট ৬ নভেম্বর তাদের কর্মসূচি পালন করলো। আর ৭ নভেম্বর আবারও সংলাপে হলো ঐক্যফ্রন্ট আওয়ামী লীগের সাথে।

আর কোন সমঝোতা ছাড়াই বেরিয়ে এসে আন্দোলনের ঘোষণা দিল। তবে এর পরপরই রোডমার্চ বাতিল করল আর আওয়ামী লীগও বাতিল করল প্রধানমন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন। এই যুগপৎ বাতিলের পেছনে কছু আছে কিনা সেটা অজ্ঞাত। কিন্তু সংবিধানের ভেতরে থেকেই নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের একটি রূপরেখা কামাল হোসেন দিয়েছিলেন বলে জানা যায়। পরে উপদেষ্টা পরিষদ গঠনের কথাও বলা হয়েছিল। কোনটিই হয়নি। খালেদার মুক্তির ব্যাপারটিও আদালতের এখতিয়ার বলে জানিয়েছে আওয়ামী লীগ। এরশাদের জাতীয় পার্টি আগের থেকেই সরকারের সাথে আছেন। তারা একাধারে বিরোধী দল আবার সরকারি দলও । তিনি কখন কি বলেন বুঝে ওঠা সত্যিই কঠিন।

এটা ঠিক, এদেশে এর আগে এমন ঘটনা ঘটেনি। যেখানে দুই নেত্রী কুশল বিনিময় পর্যন্ত করেন না সেখানে এই সংলাপ রাজনীতিতে এক ইতিবাচক দিক নিঃসন্দেহে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, তিনি অবাধ সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন চান। তিনি জনসভায় ভোট চাচ্ছেন। জনগণের সহযোগিতা কামনা করছেন। অবস্থাদৃষ্টে মনে হচেছ, অবাধ সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন করার সদিচ্ছা তার রয়েছে। আওয়ামী লীগের মন্ত্রীরাও নিরপেক্ষ নির্বাচনের কথা বলছেন।

নির্বাচনে সেনা মোতায়েন, রাষ্ট্রপতির অধীনে নির্বাচন কমিশনকে ন্যস্ত করা, ইভিএম ব্যবহার, নির্বাচন কমিশন পুনর্গঠন নিয়ে দাবি উঠেছে। এ দাবি যে এই সংলাপের সময়ই করা হলো এমন নয়। বহুদিন ধরেই বিএনপি করে আসছে। সংলাপের প্রেক্ষিতে দু চারটি মেনে নেয়া যেতো না এমনও নয়। কারণ সব দাবিতেই তো আর সংবিধান বা আদালতের প্রশ্ন নেই।

যে কোন জটিল বিষয় সমাধানের জন্য একাধিকবার বসা প্রয়োজন। ঐক্যফ্রন্ট সেটাই চেয়েছিল। কিন্তু নির্বাচন কমিশন নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে দিয়েছে যুক্তফ্রন্টের আপত্তি সত্তে¡ও। প্রধান নির্বাচন কমিশনার তার ভাষণে বলেছেন, রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে মতপার্থক্য কমাতে আর নির্বিচনের লেবেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরি করা হবে। আওয়ামী লীগ বলছে, তফসিল ঘোষণার ফলে নির্বাচন নিয়ে অনিশ্চয়তা কেটে গেছে। সংবিধান অনুযায়ী জানুয়ারি মাসের একটা নির্দিষ্ট তারিখ পর্যন্ত নির্বাচন অনুষ্ঠান করার সুযোগ ছিল। কিন্তু নির্বাচনের দিন ঠিক করা হয়েছে ২৩ নভেম্বর। বড় যেন তড়িঘড়ি নির্বাচন কমিশনের এ ব্যাপারে। ঐক্যফ্যন্ট বলছে, তাদের সব কথা বলা হয়নি। কিন্তু সেই কথা বলার জন্য পুনরায় সংলাপ করার সুযোগ পেলো না। ইতোমধ্যে তারা রাজশাহীতে জনসভা করেছে।

তফসিল ঘোষণার মধ্য দিয়ে রাজনীতি এখন কোন দিকে মোড় নেবে কে জানে! সব দল নির্বাচনে অংশ নেবে, নাকী কেউ কেউ নেবে, কেউ নেবে না তা বোঝা যাচ্ছে না। সম্পূর্ণ অংশগ্রহণমূলক হবে না দেশ সংঘাতের দিকে এগোবে তাও আমরা জানি না। আমরা শুধু জানি আমরা নির্বিঘ্নে ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে চাই , পছন্দের প্রতিনিধি নির্বাচন করতে চাই। আমরা ভোটার । ভোটার হিসেবে এটুকুই আমাদের দাবি সরকারের কাছে। এই সরকারের অধীনেই যদি নির্বাচন হয় তাহলে যতটা নিস্পৃহ থাকা দরকার সরকার ততটাই থাকবে বলে আমরা আশা করি।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরআর

আরোও পড়ুন
সর্বাধিক পঠিত
পুলিশের গাড়ি ভাঙায় ছাত্রদল নেতা বহিষ্কার
পুলিশের গাড়ি ভাঙায় ছাত্রদল নেতা বহিষ্কার
তাহলে কি এখনো তারা স্বামী-স্ত্রী?
তাহলে কি এখনো তারা স্বামী-স্ত্রী?
আবারো মা হচ্ছেন কারিনা!
আবারো মা হচ্ছেন কারিনা!
ভাবীর শরীরে দেবরের ‘আপত্তিকর’ স্পর্শ
ভাবীর শরীরে দেবরের ‘আপত্তিকর’ স্পর্শ
ফরজ গোসলের সঠিক নিয়ম
ফরজ গোসলের সঠিক নিয়ম
নির্বাচন একমাস পেছানোর আশ্বাস দিয়েছে ইসি: ড. কামাল
নির্বাচন একমাস পেছানোর আশ্বাস দিয়েছে ইসি: ড. কামাল
কাজলকে ‘জোর করে’ চুমু, ছিল অশ্লীল আচরণ!
কাজলকে ‘জোর করে’ চুমু, ছিল অশ্লীল আচরণ!
বিএনপিতে যোগ দিলেন সৈয়দ আলী
বিএনপিতে যোগ দিলেন সৈয়দ আলী
‘হট’ ভিডিওতে ভাইরাল পুনম
‘হট’ ভিডিওতে ভাইরাল পুনম
বাড়িতে বাবার লাশ, ছেলে পরীক্ষার হলে
বাড়িতে বাবার লাশ, ছেলে পরীক্ষার হলে
মুম্বাইতে ‘তারা’
মুম্বাইতে ‘তারা’
দাদি হলেন মমতাজ
দাদি হলেন মমতাজ
মির্জা ফখরুলকে ৪৮ ঘণ্টার আল্টিমেটাম ছাত্রলীগের
মির্জা ফখরুলকে ৪৮ ঘণ্টার আল্টিমেটাম ছাত্রলীগের
লাল শাড়িতে চীনে ঐশী!
লাল শাড়িতে চীনে ঐশী!
‘নৌকার মনোনয়ন পাবে জরিপে অগ্রগামীরা’
‘নৌকার মনোনয়ন পাবে জরিপে অগ্রগামীরা’
১৬ বছরেই মা হয়েছেন সানিয়া!
১৬ বছরেই মা হয়েছেন সানিয়া!
কে হবেন প্রধানমন্ত্রী? জানালেন ড. কামাল
কে হবেন প্রধানমন্ত্রী? জানালেন ড. কামাল
নৌকার মাঝি হতে চান প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত সহকারী
নৌকার মাঝি হতে চান প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত সহকারী
‘নির্বাচনে দায়িত্ব পেলে নিরপেক্ষ ও পেশাদারিত্বের সঙ্গে কাজ করবে সেনাবাহিনী’
‘নির্বাচনে দায়িত্ব পেলে নিরপেক্ষ ও পেশাদারিত্বের সঙ্গে কাজ করবে সেনাবাহিনী’
যৌনদাসী বানিয়ে অভিনেত্রীদের...
যৌনদাসী বানিয়ে অভিনেত্রীদের...
শিরোনাম:
৩০০ আসনেই নির্বাচনের প্রস্তুতি নেয়ার নির্দেশনা এরশাদের ৩০০ আসনেই নির্বাচনের প্রস্তুতি নেয়ার নির্দেশনা এরশাদের মহিলা ফুটবল দলের সঙ্গে ঢাকা ব্যাংকের ছয় বছরের চুক্তি মহিলা ফুটবল দলের সঙ্গে ঢাকা ব্যাংকের ছয় বছরের চুক্তি গুলশানে জাপার মনোনয়নপ্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার চলছে; জাতীয় পার্টি যে জোটে থাকবে তারাই ক্ষমতাই আসবে: রুহুল আমিন হাওলাদার গুলশানে জাপার মনোনয়নপ্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার চলছে; জাতীয় পার্টি যে জোটে থাকবে তারাই ক্ষমতাই আসবে: রুহুল আমিন হাওলাদার এবার সব দলের অংশগ্রহণে অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন হবে; কোনো পর্যবেক্ষণ সংস্থা দায়িত্ব পালনে অনিয়ম করলে ব্যবস্থা : ইসি সচিব এবার সব দলের অংশগ্রহণে অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন হবে; কোনো পর্যবেক্ষণ সংস্থা দায়িত্ব পালনে অনিয়ম করলে ব্যবস্থা : ইসি সচিব টেকনাফে র‌্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত ২ টেকনাফে র‌্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত ২ তৃতীয় দিনের মতো বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার চলছে তৃতীয় দিনের মতো বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার চলছে