.ঢাকা, মঙ্গলবার   ২৩ এপ্রিল ২০১৯,   বৈশাখ ৯ ১৪২৬,   ১৭ শা'বান ১৪৪০

অবশেষে রবিউল ইসলামের অবসর 

ক্রীড়া প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৮:৩৯ ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯  

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

সব ধরনের ক্রিকেট থেকে অবসরের ঘোষণা দিলেন পেসার রবিউল ইসলাম। সাতক্ষীরায় জন্মগ্রহণ করা ক্রিকেটার মাত্র ৩২ বছর বয়সেই ক্রিকেট থেকে অবসরের ঘোষণা দিলেন। আজ গণমাধ্যমে তার এই অবসরের ঘোষণা দেন।

২০১০ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট ম্যাচে জাতীয় দলে তার অভিষেক হয়। সম্ভাবনা জাগিয়ে শুরু করলেও দলে স্থায়ী জায়গা করে নিতে পারেননি। মাত্র ৯টি টেস্ট খেলেই তাঁর ক্রিকেট ক্যারিয়ারের সমাপ্তি ঘটলো। 

দেশের বাইরে প্রথম কোনো টেস্ট সিরিজে ম্যান অব দ্য সিরিজ হওয়া বাংলাদেশি পেসার এই রবিউল ইসলাম।  জিম্বাবুয়েতে ওই একটি সিরিজ ভালো খেলেই যেন আবার হারিয়ে যান তিনি।

২০১৩ সালের ১৭ এপ্রিল হারারেতে অনুষ্ঠিত প্রথম টেস্টে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে চমকপ্রদ বোলিং উপহার দেন তিনি। সেই ম্যাচে প্রতিপক্ষের ১৭ উইকেটের মধ্যে তিনি একাই ৯ উইকেট শিকার করেন। ওই ম্যাচের নিজের ক্যারিয়ার সেরা বোলিং ছিল তার। ৭১ রানের বিনিময়ে ৬ উইকেট দখল করেন।


 দ্বিতীয় টেস্টেও দলের সফল বোলার ছিলেন তিনি। দ্বিতীয় ম্যাচের প্রথম ইনিংসে ৮৫ রানের বিনিময়ে নেন ৪ উইকেট। দ্বিতীয় ইনিংসে নেন ১টি উইকেট। এছাড়া প্রথম ইনিংসে ব্যাট হাতেও করেছিলেন ২৪ রান। সেই ম্যাচ বাংলাদেশ জিম্বাবুয়েকে ১৪৩ রানের ব্যবধানে পরাজিত করে। প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশ হেরে যাওয়ায় টেস্ট সিরিজ ১-১ ড্র হয়। ২ ম্যাচে ১৪ উইকেট শিকার করে ম্যান অব দ্য সিরিজ পুরস্কারে ভূষিত হন রবিউল।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ওই সিরিজে প্রথম বাংলাদেশি পেস বোলার হিসেবে টেস্ট সিরিজে শতাধিক ওভার বোলিং করার সক্ষমতা দেখান তিনি। তার আগে সর্বোচ্চ ওভার বোলিং করার রেকর্ড ছিল খালেদ মাহমুদ সুজনের। ২০০৩ সালে সুজন পাকিস্তানের বিপক্ষে ৩-টেস্টের সিরিজে ৯৯ ওভার বোলিং করেছিলেন।

টেস্ট এর পর ২০১৩ সালের ৩মে একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে অভিষিক্ত হন তিনি। তবে কোনো ফরম্যাটেই দীর্ঘায়িত হয়নি তাঁর ক্যারিয়ার। ৯ টেস্টে তার শিকার ২৫ উইকেট। ৩ ওয়ানডে খেলে নিয়েছেন ২ উইকেট। ১টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেললেও কোনো উইকেট নেই তার।

ডেইলি বাংলাদেশ/সালি