অবশেষে ইউসুফের জয়, হলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক
SELECT bn_content.*, bn_bas_category.*, DATE_FORMAT(bn_content.DateTimeInserted, '%H:%i %e %M %Y') AS fDateTimeInserted, DATE_FORMAT(bn_content.DateTimeUpdated, '%H:%i %e %M %Y') AS fDateTimeUpdated, bn_totalhit.TotalHit FROM bn_content INNER JOIN bn_bas_category ON bn_bas_category.CategoryID=bn_content.CategoryID INNER JOIN bn_totalhit ON bn_totalhit.ContentID=bn_content.ContentID WHERE bn_content.Deletable=1 AND bn_content.ShowContent=1 AND bn_content.ContentID=118917 LIMIT 1

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ০৬ আগস্ট ২০২০,   শ্রাবণ ২২ ১৪২৭,   ১৫ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

Beximco LPG Gas

অবশেষে ইউসুফের জয়, হলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২০:৫২ ১২ জুলাই ২০১৯  

ছবি : সংগৃহীত

ছবি : সংগৃহীত

বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে (বেরোবি) অবশেষে ইতিহাস ও প্রত্নতত্ত্ব বিভাগে শিক্ষক হিসেবে মো. ইউসুফকে নিয়োগ দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। দীর্ঘ ৭ বছর আইনি লড়াই করেছেন মো. ইউসুফ। 

বৃহস্পতিবার ঢাকার লিয়াজো অফিসে অনুষ্ঠিত ৬২তম সিন্ডিকেটে মো. ইউসুফকে শিক্ষক পদে নিয়োগ দেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি।

এর আগে ৭ জুলাই মো. ইউসুফকে বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক পদে আগামী ৩০ দিনের মধ্যে নিয়োগ দেয়ার নির্দেশ দেন হাইকোর্ট।

এ বিষয়ে মো. ইউসুফ জানান, ১ম স্থান অধিকার করার পরেও বাছাইবোর্ডের সুপারিশ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন অমান্য করে আমাকে নিয়োগ দেয়া হয়নি। সাত বছর আইনি লড়াইয়ের পর আমি ন্যায়বিচার পেলাম। ভিসির প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।

জানা যায়, ২০১১ সালের ১৮ ফেব্রুয়ারি ইতিহাস ও প্রত্নতত্ত্ব বিভাগে তিনজন শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে। বিজ্ঞপ্তির প্রেক্ষিতে সাক্ষাৎকারের জন্য সাতজন আবেদনকারী বাছাই বোর্ডের সম্মুখীন হয়। তাদের মধ্য থেকে তিনজনকে নিয়োগের জন্য  চুড়ান্ত সুপারিশ করে বাছাই বোর্ড। কিন্তু মেধাক্রমের ১ম জনকে বাদ দিয়ে তালিকায় থাকা ২য় ও ৩য় জনকে নিয়োগ দেয় বিশ্ববিদ্যালয় সিন্ডিকেট।

পরে মেধা তালিকার প্রথম স্থানে থাকা মো. ইউসুফ হাইকোর্টে রিট পিটিশন দায়ের করেন। রিটের প্রেক্ষিতে কেন তাকে নিয়োগ দেয়া হবে না- তা জানতে চেয়ে রুল জারি করে এবং ওই বিভাগে একটি ‘প্রভাষক’ পদ সংরক্ষণের নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। 

ডেইলি বাংলাদেশ/এমএইচ