Alexa অপহৃত চার জেলে ৮ লাখ টাকায় মুক্তি 

ঢাকা, শুক্রবার   ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০,   ফাল্গুন ১৫ ১৪২৬,   ০৪ রজব ১৪৪১

Akash

অপহৃত চার জেলে ৮ লাখ টাকায় মুক্তি 

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২২:৫৯ ১৯ জানুয়ারি ২০২০  

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

সুন্দরবন সাতক্ষীরা রেঞ্জের কচুখালী খাল থেকে অপহৃত চার জেলে অবশেষে ৮ লাখ টাকা মুক্তিপণ দিয়ে বাড়ি ফিরেছেন। 

রোববার বাড়ি ফিরে শ্যামনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হয়েছেন। এদিকে, মুক্তিপণ দিতে দেরি হওয়ায় বনদস্যু জিয়া বাহিনীর সদস্যরা তাদের শারীরিক নির্যাতন করেছেন বলে জানা গেছে। 

ফিরে আসা জেলেরা হলেন, শ্যামনগর উপজেলার রমজাননগর ইউপির কালিঞ্চি খাসখামার গ্রামের আব্দুল্লাহ খোকনের ছেলে মিয়ারাজ হোসেন, একই এলাকার সাদেক গাজীর ছেলে রবিউল ইসলাম, গাবুরা নাপিতখালী গ্রামের মোমিন হাওলাদারের ছেলে কবির ও একই এলাকার সিরাজুল হালদারের ছেলে রিপন হাওলাদার। 

জেলেরা জানান, কোবাতক ও কৈখালী স্টেশন থেকে বৈধ পাশ নিয়ে ছয়টি নৌকায় ১২ জন জেলে সুন্দরবনে যায় মাছ শিকার করতে। ১৬ জানুয়ারি সন্ধ্যায় পশ্চিম সুন্দরবনের রায়মঙ্গল নদী সংলগ্ন কচুখালী খাল থেকে ৮ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবিতে চার জেলেকে অপহরণ করে বনদস্যু জিয়া বাহিনীর সদস্যরা। 

তারা এ সময় তিন দিনের মধ্যে ৮ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করেন। মুক্তিপণ দিতে দেরি হওয়ায় বনদস্যুরা তাদের হাত পা বেঁধে গরান কাঠ দিয়ে পায়ের তালুসহ শরীরের বিভিন্ন অংশে নির্যাতন চালায় বলে জানান জেলেরা।

তারা আরো জানান, সুন্দরবনে নিখোঁজ হওয়ার পর তাদের অভিভাবকরা শ্যামনগর থানায় ১৮ জানুয়ারি সকালে একটি জিডি করেন।  

রমজাননগর ইউপি চেয়ারম্যান শেখ আল মামুন ও গাবুরা ইউপি চেয়ারম্যান মাসুদুল আলম জানান, ফিরে আসা জেলেরা বনদস্যুদের নির্যাতনে স্বাভাবিক হাঁটা চলার সক্ষমতা হারিয়ে ফেলায় তাদের শ্যামনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।  

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকে