Alexa অপহরণের ৩০ ঘণ্টা পর শিশু উদ্ধার, গ্রেফতার ৬

ঢাকা, শুক্রবার   ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯,   আশ্বিন ৫ ১৪২৬,   ২০ মুহররম ১৪৪১

Akash

অপহরণের ৩০ ঘণ্টা পর শিশু উদ্ধার, গ্রেফতার ৬

 প্রকাশিত: ২২:০৮ ৩০ আগস্ট ২০১৮   আপডেট: ২২:০৮ ৩০ আগস্ট ২০১৮

প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

রাজধানীতে ২০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবিতে অপহৃত চার বছরের শিশু তোয়াছিন ইসলাম সিমনকে ৩০ ঘণ্টা পর উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে এক নারীসহ ছয় জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। 

বুধবার গভীর রাতে তাকে উদ্ধার করে পুলিশ। এর আগে তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানা এলাকার লিচুবাগান এলাকার বাসা থেকে মঙ্গলবার রাতে অপহৃত হয় সিমন। 

গ্রেফতাররা হলেন রুমান মিয়া (১৮), শহিদুল ইসলাম মানিক(১৮), মো. জিসান মিয়া (১৮), মো. সাইফুল ইসলাম ইমন(১৮), মো. আলী আহম্মেদ(১৮) ও মোসা. মীম আক্তার রিয়া(১৮)। 

পুলিশের ঢাকার তেজগাঁও বিভাগের উপ কমিশনার বিপ্লব কুমার সরকার বৃহস্পতিবার সাাংবাদিকদের বলেন, এ ঘটনায় শিশুটির বাবা ওই দিন রাতেই তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন। এর ভিত্তিতে থানা-পুলিশ  সিমনকে খুঁজতে থাকে। বুধবার ২টা  ৫মিনিট সিমনের বাবার মোবাইলে অজ্ঞাত নামা একটি মুঠোফোন থেকে কল আসে।  তারা বলে, যে সিমন তাদের কাছে আছে। কিন্তু শর্ত হল ২০ লাখ টাকা দিতে হবে। না হলে ছেলের লাশ পাবে তারা। কোনো রকম চালাকি কিংবা থানা-পুলিশের সাহায্য নিলেও সিমনকে মেরে ফেলার হুমকি দেয় তারা। সিমনের বাবা তাদেরকে আশ্বস্ত করেন। আত্মীয় স্বজনের কাছ থেকে কোন রকমে দেড় লাখ টাকা যোগাড় করেন সিমনের বাবা। কিন্তু তাতে সন্তুষ্ট নয় তারা।

পরে তিনি আবার বিষয়টি থানা-পুলিশকে জানায়। বুধবার রাত পৌনে ২টার দিকে পূর্ব নাখাল পাড়ার লিচু বাগান এলাকা থেকে সিমনকে সুস্থ অবস্থায় উদ্ধার করে।  

তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানার ওসি আব্দুর রশিদ বলেন, ঘটনার দিন রাত পৌনে নয়টায় নিজেদের বাসায় সে খেলছিল। ঘড়ির কাঁটা তখন নয়টা ছুঁই ছুঁই। খোঁজ শুরু হয় সিমনের। কোথাও তার হদিস মিলছে না। পরবর্তীতে শিশুটির বাবা আমাদেরকে অবহিত করে। এরপরই আমরা জরুরি ভিত্তিতে শিশুটি উদ্ধারে অভিযান শুরু করি। 

তিনি আরো বলেন, গ্রেফতার ব্যক্তিরা একই মহল্লার বাসিন্দা। গ্রেফতার রুমান মিয়া সিমনকে চিপস খাওয়াতে খাওয়াতে নিয়ে যায়।  গ্রেফতার সময় থানা-পুলিশ ৫টি মোবাইল ও ৬টি চাপাতি উদ্ধার করেছে। তাদের কাল শুক্রবার আদালতে পাঠানো হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এসবি/জেডআর/এসআই