অনিয়মে ডিএসসিসির লাইসেন্স সুপারভাইজার চাকরিচ্যুত
SELECT bn_content.*, bn_bas_category.*, DATE_FORMAT(bn_content.DateTimeInserted, '%H:%i %e %M %Y') AS fDateTimeInserted, DATE_FORMAT(bn_content.DateTimeUpdated, '%H:%i %e %M %Y') AS fDateTimeUpdated, bn_totalhit.TotalHit FROM bn_content INNER JOIN bn_bas_category ON bn_bas_category.CategoryID=bn_content.CategoryID INNER JOIN bn_totalhit ON bn_totalhit.ContentID=bn_content.ContentID WHERE bn_content.Deletable=1 AND bn_content.ShowContent=1 AND bn_content.ContentID=193652 LIMIT 1

ঢাকা, সোমবার   ১০ আগস্ট ২০২০,   শ্রাবণ ২৬ ১৪২৭,   ১৯ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

Beximco LPG Gas

অনিয়মে ডিএসসিসির লাইসেন্স সুপারভাইজার চাকরিচ্যুত

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২০:২২ ১২ জুলাই ২০২০   আপডেট: ২০:২৬ ১২ জুলাই ২০২০

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

অনিয়মের অভিযোগে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) রাজস্ব বিভাগের লাইসেন্স ও বিজ্ঞাপন সুপারভাইজার ইকবাল আহমেদকে চাকরি থেকে অপসারণ করা হয়েছে। 

রোববার ডিএসসিসির সচিব আকরামুজ্জামান স্বাক্ষরিত এক অফিস আদেশে তাকে চাকরি থেকে অপসারণ করা হয়। 

ডিএসসিসির চাকরি বিধিমালা ২০১৯ এর বিধি ৬৪ (২) মোতাবেক জনস্বার্থে ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের স্বার্থ রক্ষার্থে তাকে চাকরি থেকে অপসারণ করা হয়েছে বলে অফিস আদেশ উল্লেখ করা হয়।

ইকবাল আহমেদ প্রকৌশল বিভাগ, বাজার (বিদ্যুৎ) বিল সরকারি হিসেবে ডিএসসিসিতে কর্মরত হলে বর্তমানে তিনি সংযুক্তিতে অঞ্চল-৫ এর রাজস্ব বিভাগে লাইসেন্স ও বিজ্ঞাপন সুপারভাইজার হিসেবে দায়িত্বরত ছিলেন।

বিধি মোতাবেক তিনি ৯০ দিনের বেতন নগদ পাবেন ও এ জন্য তাকে কর্পোরেশন হিসাব বিভাগের সঙ্গে অতিসত্বর যোগাযোগ করে সব দেনা পাওনা বুঝে নিতেও অফিস আদেশে নির্দেশনা দেয়া হয়।

ইকবাল আহমেদের ব্যক্তিগত নথি পর্যালোচনায় জানা যায়, ২০০৮ সালের ২৩ এপ্রিল তিনি মাদকদ্রব্য বহনের অপরাধে র‌্যাবের হাতে গ্রেফতার হন। পরবর্তীতে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করে তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা করা হয়।

এছাড়া দায়িত্ব পালনে অবহেলা, অসদাচরণ, তহবিল তছরুপ ও প্রতারণার দায়ে তার বিরুদ্ধে ২০১৬ সালের ১৬ নভেম্বর, ২০১৭ সালের ১৩ এপ্রিল ও ২০১৮ সালের ৪ এপ্রিল বিভাগীয় মামলা করা হয়। এছাড়া হয়রানি ও ঘুষ নেয়ার অভিযোগে তার বিরুদ্ধে ডিএসসিসির ৫৪ নম্বর ওয়ার্ডের তৎকালীন কাউন্সিলর হাজি মোহাম্মদ মাসুদ (বর্তমান কাউন্সিলরও) ২০১৮ সালের ৩১ মে মাসে কর্পোরেশন বরাবর লিখিত অভিযোগ দাখিল করেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/এস.আর/আরএইচ